লি ওয়েনলিয়াং

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লি ওয়েনলিয়াং
李文亮
লি ওয়েনলিয়াং.jpg
জন্ম(১৯৮৬-১০-১২)১২ অক্টোবর ১৯৮৬
বেইঝেন, লিয়াওনিং, চীন
মৃত্যু৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০(2020-02-07) (বয়স ৩৩)
উহান, হুয়েই, চীন
মৃত্যুর কারণCOVID-19
শিক্ষামেডিসিনের স্নানকোত্তর (MMed)
মাতৃশিক্ষায়তনউহান বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাচক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ
কর্মজীবন২০১১-২০
পরিচিতির কারণCOVID-19 আবিষ্কার করার জন্য
২০১৯-২০ করোনা ভাইরাসের বিশ্বমারীর বিষয়ে সচেতন করার জন্য
দাম্পত্য সঙ্গীফু জুয়েজি (Fu Xuejie)[১]
সন্তান
লি ওয়েনলিয়াং
চীনা 李文亮

লি ওয়েনলিয়াং (চীনা: 李文亮; ফিনিন: Lǐ Wénliàng; ১২ অক্টোবর ১৯৮৬ – ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০) একজন উহান কেন্দ্রীয় হাসপাতালের এক চীনা চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ ছিলেন যাকে ২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর করোনাভাইরাসের ব্যাপারে সতর্ক করার চেষ্টা চালানো প্রথম ব্যক্তিদের একজন বলে গণ্য করা হয়।[২][৩] ২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি উহান পুলিশ তার বিরুদ্ধে সমন জারি করে এবং ইন্টারনেটে ভুয়া মতামত প্রদান করার জন্য তাকে সতর্ক করে।[২][৪] লি কাজে ফিরে আসেন ও পরবর্তীতে আক্রান্ত রোগী থেকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। ২০২০ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।[৫][৬]

জীবন ও কর্মজীবন[সম্পাদনা]

উহান পুলিশ বিভাগ কর্তৃক ইস্যু করা একটি চিঠি যাতে লি ওয়েনলিয়াংকে "সার্স" বিষক "গুজব ছড়ানো" বন্ধ করতে বলস হয়েছে, যাতে লি ওয়েনলিয়াং ও দুইজন পুলিশ কর্মকর্তা সই করেছেন। লি ওয়েনলিয়াং এটি তার সিনা ওয়েইবো অ্যাকাউন্টে আপলোড করেছিলেন।

লি ওয়েনলিয়াং ১৯৮৬ সালের ১২ অক্টোবর চীনের লিয়ানিংয়ের বেইঝিয়ানে জন্মগ্রহণ করেন।[৭][৮] ২০০৪ সাল থেকে তিনি ৭ বছর ক্লিনিক্যাল মেডিসিন নিয়ে উহান বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছিলেন।[৮] সেখান থেকে তিনি মাস্টার অব মেডিসিন ডিগ্রি লাভ করেছিলেন। দ্বিতীয় বার্ষিকে তিনি চীনা কমিউনিস্ট পার্টীতে যোগদান করেন।[৯] স্নাতক করার পর তিনি ৩ বছর ফুজিয়ানের শিয়ামেনে কাজ করেছিলেন। এরপর, তিনি উহানে এসে উহান কেন্দ্রীয় হাসপাতালে চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞের চাকরি গ্রহণ করেন।[২] তাঁর টিউটর বলেছেন যে তিনি একজন পরিশ্রমী এবং সৎ ছাত্র ছিলেন। তাঁর কলেজ সহপাঠীরা বলেছেন যে তিনি বাস্কেটবলের একজন অনুরাগী ছিলেন।[১০] শিয়ামেনে পূর্বে ইন্টার্ন করা একজন বলেছেন যে লি রোগীদের ক্ষেত্রে যথেষ্ট ধৈর্যশীল ছিলেন। এমনকি রোগীরা তাঁর কথা মনোযোগ দিয়ে না শুনলে বা তাঁর কথা বুঝতে চেষ্টা না করলেও লি অসন্তুষ্ট হতেন না।[১০]

২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর লি ওয়েনলিয়াং এক রোগীর রিপোর্ট হাতে পান যাতে ঐ রোগীর সার্স-করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবার স্পষ্ট প্রমাণ ছিল। ঐ দিন সন্ধ্যা ৫ টা ৪৩ মিনিটে তিনি উইচ্যাট গ্রুপে জানান যে, হুয়ানান সিফুড বাজারের সার্স বিষয়ক ৭ টি নিশ্চিত ঘটনা আছে। এছাড়া, তিনি রিপোর্ট ও রোগীর সিটি স্ক্যান রেজাল্ট পোস্ট করেন। তিনি জানান যে, এটা নিশ্চিত যে এগুলো করোনাভাইরাস সংক্রান্ত ঘটনা কিন্তু, মূল ভাইরাস এর থেকে ভিন্ন বৈশিষ্ট্য বিশিষ্ট। এছাড়া, তিনি করোনাভাইরাস কি সে বিষয়ে আলোকপাত করেন।[২]

তার উইচ্যাট বার্তার স্ক্রিনশট অনলাইনে প্রকাশিত হবার তার হাসপাতালের মেডিকেল সুপারিন্টেনডেন্ট তার নিকট কথা বলতে আসেন।[২] ৩ জানুয়ারি উহান জননিরাপত্তা ব্যুরোর উচাং শাখার ঝাংনান স্ট্রিট পুলিশ স্টেশন তাকে সতর্ক করে ও "ইন্টারনেটে ভুয়া মন্তব্য" করার জন্য তিরস্কার করে।[১১] সেখানকার পুলিশ কর্মকর্তারা তাকে মুচলেকায় সই করতে বলেছিল।[২]

৮ জানুয়ারি হাসপাতালে এক করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীকে দেখার পর তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। ১০ জানুয়ারি তার জ্বর ও কাশি হয় যা খুব শীঘ্রই খারাপের দিকে যায়। ১২ জানুয়ারি তাকে ইন্টেনসিভ কেয়ারে কোয়ারান্টাইন ও চিকিৎসা করার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।[১২] নভেল করোনাভাইরাসের টেস্ট কিটের স্বল্পতার জন্য ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তার রোগের চিকিৎসা শুরু হয় নি। তার সহকর্মী ও তার পরিবারের ব্যক্তিরাও এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।[১৩]

প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

লি ওয়েনলিয়াং চীনা জনগণ ও গণমাধ্যমের স্পটলাইটে ছিলেন কেননা তিনি সেই সব আটজন "গুজব সৃষ্টিকারী" ব্যক্তিদের মাঝে ছিলেন, যাদের পুলিশ সতর্ক করেছিল। যাই হোক, কিছু গণমাধ্যম অনুসারে, ১ জানুয়ারি পুলিশ ৮ জন "গুজব সৃষ্টিকারী" ব্যক্তির বিরুদ্ধে সমন জারি করেছিল। অন্যদিকে লি ওয়েনলিয়াং ও উহান ইউনিয়ন হাসপাতালের চিকিৎসক শি লিনকাকে ৩ জানুয়ারি পুলিশ সতর্ক করেছিল, এর মানে হতে পারে, ৮ জন "গুজব সৃষ্টিকারী" ব্যক্তিদের মাঝে ছিলেন না।[১৪]

চীনা হাইকোর্ট এই ব্যাপারে বলেছিল যে এই ঘটনায় উহানের ৮ জন ব্যক্তিকে সাজা প্রদান করা অনুচিত কেননা, তারা যা বলেছেন তা পুরোপুরি মিথ্যা নয়।[১৫]

লি ওয়েনলিয়াং চাইশিংকে বলেছিলেন যে, "গুজব ছড়ানোর" দায়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে শাস্তি দিতে পারে ও এজন্য তিনি উদ্বিগ্ন ছিলেন কিন্তু উচ্চ আদালতের রায়ের পর তিনি স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেন।[১৫]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

২০২০ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানায় যে লি ওয়েলিয়াং ৩৪ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেছেন।[১৬] চায়না নিউজউইক এর প্রকাশিত খবর অনুসারে রাত ৯ টা ৩০ মিনিটে তার হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয় ও বিশেষ ব্যবস্থায় তার হৃদপিণ্ডকে সচল রাখা হচ্ছিল।[১৭] আরো অন্যান্য সূত্র ও লি ওয়েনলিয়াংয়ের সহকর্মীদের মতে তার হৃদপিণ্ডের স্বাভাবিক ক্রিয়া বন্ধের ৩ ঘণ্টা পর্যন্ত বিশেষ ব্যবস্থায় তার হৃদপিণ্ড সচল ছিল।[১৮]

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা টুইটারে লি ওয়েনলিয়াংয়্র মৃত্যুর খবর জানিয়ে শোকপ্রকাশ করেছিল।[১৯]

যাই হোক, এসব খবরের পরিপ্রেক্ষিতে উহান কেন্দ্রীয় হাসপাতাল এই বিবৃতি প্রদান করে যে, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত লি ওয়েনলিয়াং তাদের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। বিবৃতিতে আরো বলা হয়, তার অবস্থা সংকটাপন্ন ও তারা তাকে বাঁচাতে আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে।[২০] পরবর্তীতে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায় যে, লি ওয়েনলিয়াং মৃত্যুবরণ করেছেন। তারা জানায় যে, লি ওয়েনলিয়াং ২০২০ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি রাত ২ টা ৫৮ মিনিটে মৃত্যুবরণ করেছেন।[৫][২১]

পরিবার[সম্পাদনা]

লি ও তার স্ত্রীর এক সন্তান আছে। তারা দ্বিতীয় সন্তানের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। লি মারা যাবার সময়ে তার স্ত্রী গর্ভবতী ছিলেন।[২২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Lew, Linda (৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০)। "Coronavirus: mother of whistle-blower Li Wenliang demands answers for his treatment by Wuhan police"South China Morning Post। ১৯ মার্চ ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০২০ 
  2. Tan, Jianxing (২০২০-০১-৩১)। "新冠肺炎"吹哨人"李文亮:真相最重要"Caixin। ২০২০-০১-৩১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  3. "武汉肺炎:一个敢于公开疫情的"吹哨人"李文亮"BBC Chinese। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  4. "Coronavirus 'kills Chinese whistleblower doctor'"। BBC News। ২০২০-০২-০৬। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  5. Zhou, Cissy (৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০)। "Coronavirus: Whistleblower Dr Li Wenliang confirmed dead of the disease at 34, after hours of chaotic messaging from hospital"South China Morning Post। ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  6. "武汉中心医院:李文亮经抢救无效去世" (চীনা ভাষায়)। Sina Corp। ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  7. "武汉市公安局吴昌分局中南路街派出所训诫书" (চীনা ভাষায়)। Zhongnanlu Street Police Station, Wuchang Division of Wuhan Police Bureau। ৩ জানুয়ারি ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  8. "武汉大学:李文亮校友,一路走好"The Paper। ২০২০-০২-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৭ 
  9. "纪念李文亮:我盼望好了就上一线,不想当逃兵" 纪念李文亮:我盼望好了就上一线,不想当逃兵 (চীনা ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০  অজানা প্যারামিটার |trans-work= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য); অজানা প্যারামিটার |script-work= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  10. "憾别李文亮:一个"真"而"善良"的普通人走了"The Paper। ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  11. 林則宏। "武漢肺炎「吹哨者」:三周前就知道可「人傳人」了"元气网। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  12. "被训诫医生李文亮去世"The Beijing News। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  13. Deng, Chao; Chin, Josh (২০২০-০২-০৬)। "Chinese Doctor Who Issued Early Warning on Virus Dies"The Wall Street Journalআইএসএসএন 0099-9660। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  14. "讲疫情真话被训诫的武汉医生李文亮:想尽快回到抗疫一线"The Paper। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  15. "Rebuked coronavirus whistleblower vindicated by top Chinese court"Spotlight। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৫ 
  16. 何雾। "李文亮于6 February 2020 晚在重症监护室去世"界面新闻 (চীনা ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  17. 張子傑 (২০২০-০২-০৬)। "【武漢肺炎】敢言醫生李文亮傳死訊 院方稱仍搶救中"HK01 (চীনা ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  18. "Virus 'whistleblower' doctor in Wuhan dies from coronavirus"Global Times। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  19. World Health Organization [@WHO] (৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০)। "At today's #2019nCoV media briefing @DrMikeRyan is asked about reports that Dr Li Wenliang had passed away, and he expressed condolences. WHO has no information on the status of Dr Li." (টুইট) – টুইটার-এর মাধ্যমে। 
  20. Austin, Henry (২০২০-০২-০৬)। "Chinese doctor who raised alarm over coronavirus dies from disease, hospital confirms"NBC News। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৭ 
  21. "Chinese doctor who sounded Wuhan virus alarm is critically ill, hospital says, after state media reported he had died"। CNN। ২০২০-০২-০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৬ 
  22. Buckley, Chris (২০২০-০২-০৬)। "Chinese Doctor, Silenced After Warning of Outbreak, Dies From Coronavirus"The New York Timesআইএসএসএন 0362-4331। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]