লিশটেনস্টাইনে ইসলাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইউরোপে ইসলাম
দেশের জনসংখ্যা অনুযায়ী শতকরা হার[১]
  ৯০–১০০%
  ৭০–৮০%
কাজাখস্তান
  ৫০–৭০%
  ৩০–৫০%
উত্তর মেসেডোনিয়া
  ১০–২০%
  ৫–১০%
  ৪–৫%
  ২–৪%
  ১–২%
  < ১%

২০০৯ সালে 'পিউ রিসার্চ সেন্টার' কর্তৃক প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, লিশটেনস্টাইনে প্রায় ২,০০০ মুসলমান বাস করে, যা দেশটির মোট জনসংখ্যার ৪.৮%।[২] ২০১৭ সালে এসে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৫.৪%-এ।[৩] দেশটির অধিকাংশ মুসলমানই সুন্নি এবং তুরস্ক, কসোভো, মেসিডোনিয়াবসনিয়া থেকে আসা অভিবাসী।[৪]

২০০৬ সালে দেশটির সরকার মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য ২৫,০০০ সুইস ফ্রাঁ (২০,০০০ মার্কিন ডলার) বরাদ্দ করে।[৫]

২০০১ সাল থেকে দেশটির সরকার রমযানে একজন ইমামকে রেসিডেন্সি পারমিট এবং একজন অতিরিক্ত ইমামকে স্বল্পকালীন রেসিডেন্সি পারমিট দেয়।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Religious Composition by Country, 2010-2050"পিউ রিসার্চ সেন্টার। ১২ এপ্রিল ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৭ 
  2. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি" (PDF)। ২১ আগস্ট ২০১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০১৯ 
  3. "The World Factbook - Liechtenstein"। The World Factbook। ৪ জুলাই ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ জুলাই ২০১৭ 
  4. "Liechtenstein"। U.S Department of State। ২৯ মে ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৭ 
  5. "Religious Beliefs In Liechtenstein"। worldatlas.com। সংগ্রহের তারিখ ২৫ এপ্রিল ২০১৭