লিবিয়া আন্তর্জাতিক পবিত্র কুরআন প্রতিযোগিতা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লিবিয়া আন্তর্জাতিক পবিত্র কুরআন পুরস্কার
Libya International Holy Quran Competition
লিবিয়া আন্তর্জাতিক পবিত্র কুরআন পুরস্কারের লোগো.jpg
লিবিয়া সরকারি পুরস্কারের লোগোর সাথে পবিত্র কুরআন প্রতিযোগিতা
প্রদানের কারণকুরআন মুখস্থকরন ও তেলওয়াত করা
পৃষ্ঠপোষক
  • লিবিয়া সরকার
  • লিবিয়ার আওকাফ ও ইসলামি আফেয়ার্স মন্ত্রণালয়
তারিখ১৯৯১; ৩১ বছর আগে (1991)
দেশলিবিয়া
পুরস্কার
  • ১ম: ১০০,০০০ লিবিয়া দিনার
  • ২য়: ৪০,০০০ লিবিয়া দিনার
  • ৩য়: ৪০,০০০ লিবিয়া দিনার

লিবিয়া আন্তর্জাতিক পবিত্র কুরআন মুখস্থকরন ও তেলাওয়াত প্রতিযোগিতা সমস্ত মুসলিম বিশ্বের আল-কুরআন পাঠ, মুখস্থ ও তেলাওয়াতের জন্য সবচেয়ে বড় উতসবগুলোর মধ্যে একটি।[১][২][৩] প্রায় ৬০টিরও বেশি দেশ এই উৎসবে অংশগ্রহণ করে।[৪] লিবিয়ার আওকাফ ও ইসলামি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ইভেন্টটি বিভিন্ন উপায়ে কোরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। প্রতিযোগিতার লক্ষ্য মানুষের মধ্যে সর্বোচ্চ এবং নৈতিক নৈতিকতা যোগাযোগ এবং উত্থাপন করা। এটি ধ্রুপদী আরবি ভাষার সঠিক ব্যবহারকেও উৎসাহিত করে এবং শিশু ও প্রাপ্ত বয়স্কদেরকে কোরআন অধ্যয়ন ও তেলাওয়াত করতে উৎসাহিত করে।[৫] মিসুরাতা শহরের আল-রাইদ মসজিদে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

এই প্রতিযোগিতাটি ১৯৯১ খ্রিস্টাব্দে চালু হয়েছিলো। নবীনদের প্রস্তুতির জন্য, দেশটি প্রতি বছর জাতীয় কোরআন প্রতিযোগিতার আয়োজন করে, যে পুরস্কারকে বলা হয় জাতীয় ঐক্য পুরস্কার। [৬] ২০১৮ সালে, ৮৫ টি প্রতিযোগী দেশ ছিল যারা তিনটি বিভাগে অংশগ্রহণ করেছিল। সেখানে:

  • পুরো কুরআন মুখস্থ করা
  • কুরআনের শেষ অর্ধেক মুখস্থ করা
  • কুরআনের শেষ চতুর্থাংশ মুখস্থ করা। [৭]

আয়োজনের উদ্দেশ্য[সম্পাদনা]

এই পুরস্কারের উদ্দেশ্য হল আল্লাহর কুরআনের সেবা করা এবং নিম্নোক্ত কার্যক্রমের মাধ্যমে কুরআনের সাধারণ স্তরের দক্ষতা উন্নত করা।

  • শিশু প্রজন্মকে তাদের ধর্মের প্রতি উদ্বুদ্ধ করা এবং তাদের ইসলামী বিশ্বাস ও লক্ষ্যের প্রতি তাদের কর্তব্য উপলব্ধি করা।
  • কুরআনুল কারীমের উল্লেখযোগ্য মুখস্থকারীদের সম্মান করা।
  • ইসলামের খেদমতে মুসলিম বিশ্বের কাছে নিজের দেশকে উপস্থাপন করা।

পুরস্কার[সম্পাদনা]

১ম পুরস্কার: ১০০,০০০ এলডি (লিবিয়ান দিনার)

২য় পুরস্কার: ৮০,০০০ এলডি (লিবিয়ান দিনার)

৩য় পুরস্কার: ৪০,০০০ এলডি (লিবিয়ান দিনার)[৮]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. iqna.ir। "Libya Int'l Quran Contest Is Back Again"iqna.ir-en.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৪ 
  2. iqna.ir। "40 Countries Attending Int'l Quran Competition in Libya"iqna.ir-en.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৪ 
  3. "Holy Qur'an Recitation Competition | The Libya Observer"www.libyaobserver.ly। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৪ 
  4. Morone, Antonio M. (২০১৭)। "Idrīs' Libya and the Role of Islam: International Confrontation and Social Transformation": 111–132। আইএসএসএন 0030-5472 
  5. "Conclusion of the Quran Memorisation Competition"Libya Institute for Advanced Studies (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৪-২৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৪ 
  6. asadian (২০২১-০৪-০৬)। "National Quran competition begins in Libya"International Shia News Agency (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৪ 
  7. "Completion of the Libya competition for the Holy Quran – ِAl-Naseem Organization" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৪ 
  8. "International Quran memorising competition won by Tajoura man"LibyaHerald (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৩-১১-২৮। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৪