লিথুয়ানিয়ার ভূগোল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লিথুয়ানিয়া ভূগোল
LithuaniaPhysicalMap-Detailed.png
মহাদেশইউরোপ
অঞ্চলউত্তর ইউরোপ
স্থানাঙ্ক৫৪°৫৪′২৪″ উত্তর ২৫°১৯′১২″ পূর্ব / ৫৪.৯০৬৬৭° উত্তর ২৫.৩২০০০° পূর্ব / 54.90667; 25.32000
আয়তন
 • মোট৬৫,৩০০ কিমি (২৫,২০০ মা)
 • স্থলভাগ95.99%
 • জলভাগ4.01%
উপকূলরেখা২৬২ কিমি (১৬৩ মা)
সীমানামোট জমির সীমানা:
১,৫৭৪ কিমি (৯৭৮ মা)
সর্বোচ্চ বিন্দুঅক্সটোজাস পাহাড়
২৯৪ মি (৯৬৫ ফু)
সর্বনিম্ন বিন্দুবাল্টিক সাগর
০ মিটার
দীর্ঘতম নদীনেমুনাস
৯১৭ কিমি (৫৭০ মা)
বৃহত্তম হ্রদড্রিকসাই
৪৪.৭৯ কিমি (১৭.২৯ মা)
এক্সক্লুসিভ অর্থনৈতিক অঞ্চল৭,০৩১ কিমি (২,৭১৫ মা)

লিথুয়ানিয়া হল ইউরোপের বাল্টিক অঞ্চলের একটি দেশ। বাল্টিক রাষ্ট্রসমূহের মধ্যে সর্বাধিক জনবহুল অঞ্চল লিথুয়ানিয়ার উপকূলরেখা ২৬২ কিমি (১৬৩ মা), যার মধ্যে আছে মহাদেশীয় উপকূল এবং "কুরোনিয়ান স্পিট" উপকূল।[১] লিথুয়ানিয়ার বৃহত্তম উষ্ণ জলের বন্দর ক্লেইপেডার (মেমেল) কুরোনিয়ান উপহ্রদের সরু মুখে অবস্থিত। এটি একটি অগভীর উপহ্রদ। এটি দক্ষিণে কালিনিনগ্রাদ পর্যন্ত বিস্তৃত এবং কুরোনিয়ান স্পিটের মাধ্যমে বাল্টিক সমুদ্র থেকে পৃথক হয়ে আছে। সেখানে অসাধারণ বালির টিলাগুলিকে নিয়ে কারসিইউ নেরিজা জাতীয় উদ্যান প্রতিষ্ঠিত।

অভ্যন্তরীণ যাতায়াতের জন্য নেমন নদী এবং এর কয়েকটি উপনদীকে ব্যবহার করা হয় (২০০০ সালে, ৮৯টি অভ্যন্তরীণ জাহাজ ৯০০,০০০ টন পণ্যসম্ভার বহন করেছিল, যা মোট পণ্য চলাচলের ১% এরও কম)।

লিথুয়ানিয়া ৫৬.২৭ থেকে ৫৩.৫৩ অক্ষাংশ এবং ২০.৫৬ থেকে ২৬.৫০ দ্রাঘিমাংশের মধ্যে অবস্থিত। পশ্চিমাঞ্চলীয় উচ্চভূমির গ্রাবরৈখিক পাহাড় অঞ্চল ছাড়া লিথুয়ানিয়া বরফতুল্য সমতল, এবং পূর্বের উচ্চভূমি ৩০০ মিটারের বেশি উঁচু নয়। ভূখণ্ডটিতে অসংখ্য ছোট ছোট হ্রদ ও জলাশয় আছে এবং দেশের ৩৩% এরও বেশি অংশ জুড়ে আছে মিশ্র বনভূমি। চাষের মরশুমটি পূর্ব দিকে ১৬৯ দিন এবং পশ্চিমে ২০২ দিন স্থায়ী হয়, অধিকাংশ কৃষিজমি বেলে- বা কাদামাটি-দোআঁশ মাটি সমন্বিত। চুনাপাথর, মাটি, বালু এবং নুড়ি লিথুয়ানিয়ার প্রাথমিক প্রাকৃতিক সম্পদ, তবে উপকূলীয় বালুচরে সম্ভবত ১৬,০০,০০০ মি (১০ Mbbl) তৈল সঞ্চয় রয়েছে। দক্ষিণ-পূর্ব অঞ্চলে উচ্চমাত্রায় লৌহ আকরিক এবং গ্রানাইটের খণিজ সঞ্চয় রয়েছে।

কিছু ভূগোলবিদদের মতে, ইউরোপের ভৌগোলিক মধ্যবিন্দু লিথুয়ানিয়ার রাজধানী, ভিলনিয়াসের ঠিক উত্তরে অবস্থিত।

ভৌগোলিক অবস্থান[সম্পাদনা]

লিথুয়ানিয়ার রাজনৈতিক মানচিত্র

লিথুয়ানিয়া বাল্টিক সাগরের পূর্ব তীরে অবস্থিত। ১৯১৮ সাল থেকে লিথুয়ানিয়ার সীমানা বেশ কয়েকবার পরিবর্তিত হয়েছে, তবে সেটি ১৯৪৫ সাল থেকে স্থিতিশীল রয়েছে। বর্তমানে, লিথুয়ানিয়া প্রায় ৬৫,৩০০ কিমি (২৫,২০০ মা) অঞ্চল জুড়ে বিস্তৃত। আকারে পশ্চিম ভার্জিনিয়ার মত, এটি বেলজিয়াম, ডেনমার্ক, লাতভিয়া, নেদারল্যান্ডস, বা সুইজারল্যান্ডের চেয়ে বড়। লিথুয়ানিয়া বাল্টিক সাগরের পূর্ব তীরে অবস্থিত। এর উত্তরে লাতভিয়া, পূর্ব ও দক্ষিণে বেলারুশ এবং দক্ষিণ-পশ্চিমে পোল্যান্ড ও রাশিয়ার কালিনিনগ্রাদ অঞ্চল অবস্থিত। এটি অনুচ্চ পাহাড়, অনেক বন, নদী, ঝরণা এবং হ্রদের দেশ। এর প্রধান প্রাকৃতিক সম্পদ হ'ল কৃষিজমি।

লিথুয়ানিয়ার উত্তরের প্রতিবেশী হল লাতভিয়া। দেশ দুটির মধ্যে ৪৫৩ কিলোমিটার প্রসারিত একটি সীমানা বর্তমান। বেলারুশের সাথে লিথুয়ানিয়ার পূর্ব সীমানা দীর্ঘতর, ৫০২ কিলোমিটার লম্বা। দক্ষিণে পোল্যান্ডের সীমানা তুলনামূলকভাবে সংক্ষিপ্ত, মাত্র ৯১ কিলোমিটার, তবে আন্তর্জাতিক যানবাহনের কারণে এটি খুব ব্যস্ত থাকে। রাশিয়ার সাথেও লিথুয়ানিয়ার ২২৭ কিলোমিটার সীমানা রয়েছে। লিথুয়ানিয়া সংলগ্ন রাশিয়ার অঞ্চলটি কালিনিনগ্রাদ ওব্লাস্ট, যা কালিনিনগ্রাদ শহর সহ সাবেক জার্মান-পূর্ব প্রসিয়ার উত্তরের অংশ। লিথুয়ানিয়ায় বাল্টিক সমুদ্রের ১০৮ কিলোমিটার উপকূল রয়েছে, এখানে ক্লেইপেডায় বরফমুক্ত বন্দর আছে। বাল্টিক উপকূলের বালুকাময় সৈকত এবং পাইন বন হাজার হাজার ছুটি উপভোগকারীদের আকর্ষণ করে।

ভূসংস্থান এবং নিকাশী[সম্পাদনা]

লিথুয়ানিয়া উত্তর ইউরোপীয় সমভূমির প্রান্তে অবস্থিত। এর ভূদৃশ্যটি শেষ বরফ যুগের হিমাচ্ছাদন দ্বারা গঠিত হয়েছিল, যা প্রায় ২৫,০০০-২২,০০০ বছর বিপির (বর্তমানের পূর্বে) ঘটনা। লিথুয়ানিয়ার ভূখণ্ডটি মাঝারি নিম্নভূমি এবং উচ্চভূমির একটি পরিক্রমণ। এখানকার সর্বোচ্চ উচ্চতা সমুদ্রতল থেকে ২৯৭.৮৪ মিটার উপরে, প্রজাতন্ত্রের পূর্ব অংশে। একে সামোগিটিয়ার পশ্চিম অঞ্চলের উচ্চভূমি থেকে পৃথক করেছে দক্ষিণ-পশ্চিম এবং মধ্য অঞ্চলের উর্বর সমভূমি। এখানে ২৮৩৩ টি ১০,০০০ বর্গমিটার ক্ষেত্রফলের চেয়ে বড় হ্রদ এবং ১৬০০ ছোট জলাশয় আছে। বেশিরভাগ হ্রদ দেশের পূর্ব অংশে দেখতে পাওয়া যায়। লিথুয়ানিয়ায় দশ কিলোমিটারেরও বেশি দীর্ঘ ৭৫৮টি নদী রয়েছে। বৃহত্তম নদী হল নেমুনাস (মোট দৈর্ঘ্য ৯১৭ কিমি), যেটি বেলারুশ থেকে উৎপন্ন। অন্যান্য বৃহত্তর জলপথগুলি হল নেরিস (৫১০ কিলোমিটার), ভেন্টা (৩৪৬ কিমি) এবং সেসুপ (২৯৮ কিমি) নদী। তবে, লিথুয়ানিয়ার নদীসমূহের মাত্র ৬০০ কিলোমিটার নাব্য।

একসময় ঘন বনাঞ্চল থাকলেও, বর্তমানে লিথুয়ানিয়ার মাত্র ৩২.৮ শতাংশ অঞ্চল[২] বনভূমি সমন্বিত — প্রাথমিকভাবে পাইন, স্প্রুস এবং বার্চের বন। অ্যাশ এবং ওক খুব দুষ্প্রাপ্য। বনগুলিতে মাশরুম এবং বেরির পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের গাছ রয়েছে।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. "Country overview and assessment The economics of climate change adaptation in EU coastal areas- Lithuania" (PDF)http://ec.europa.eu/maritimeaffairs/। European Commission Policy Research Corporation। পৃষ্ঠা 1, 2। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৫  |ওয়েবসাইট= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  2. http://www.kontrastai.lt/?p=15825[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Lithuania topics টেমপ্লেট:Geography of Europe