লাহমাজুন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লাহমাজুন
Lahmacun.jpg
সালাদসহ লাহমাজুন
প্রকারপ্রধান
উৎপত্তিস্থলমধ্যপ্রাচ্য[১][২]
পরিবেশনগরম
প্রধান উপকরণমাংসের কিমা, সবজি ও ভেষজ তৃণলতা
লাহমাজুনের উপরে প্রায়ই সবজি স্থাপন করা হয় ও তারপর সেটিকে মুড়িয়ে পরিবেশন করা হয়।

লাহমাজুন (তুর্কী: Lahmacun) এক ধরনের রান্নার পদ যা গোলাকৃতি, পাতলা ময়দার তালের উপরে (গরুর বা ভেড়ার) মাংসের কিমা, কুচি করে কাটা সবজি ও ভেষজ তৃণলতা যেমন পেঁয়াজ, রসুন, টমেটো, লাল ঘণ্টা মরিচ, পার্সলি এবং মসলা যেমন ঝাল মরিচ, পাপরিকা ও দারুচিনি গুঁড়া স্থাপন করে বদ্ধ উনুনে সেঁকে প্রস্তত করা হয়।[১] প্রায়ই অন্যান্য সবজি যেমন নোনতা জলে ভেজানো শসা, টমেটো, ঘণ্টা মরিচ, পেঁয়াজ, লেটুস, পার্সলি, ঝলসানো বেগুন, ইত্যাদিকে লাহমাজুন দিয়ে মুড়িয়ে পরিবেশন করা হয়।[৩][৪][৫][৬]

কদাচিৎ লাহমাজুনকে "তুর্কি পিৎজা", "আর্মেনীয় পিৎজা", ইত্যাদি কাছাকাছি নামে ডাকা হতে পারে।[২][৭] কিন্তু মধ্যপ্রাচ্যে এটিকে কখনোই পিৎজা বলা হয় না, কেননা এটির উৎস ইতালীয় রন্ধনশৈলী নয়। এটিতে পিৎজার মতো পনির ব্যবহার করা হয় না[৮] এবং এর শক্ত মচমচে ভিত্তিস্তরটি পিৎজার চেয়ে অপেক্ষাকৃত পাতলা।[৯]

লাহমাজুন আর্মেনিয়া[৮] (যেখানে এটিকে লামাজো নামেও ডাকা হয়.[১০][১১]), তুরস্ক, লেবানন, সিরিয়া (সিরিয়াতে একে "লাহম বি আজিন" নামে ডাকা হয়) এবং ইসরায়েলে জনপ্রিয়।[১২][১৩])[১০] এছাড়া বিশ্বব্যাপী আর্মেনীয়, তুর্কি[৮]আরব অভিবাসীদের সম্প্রদায়েও এটি খুবই জনপ্রিয় একটি পদ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Alkan, Sena (১৯ নভেম্বর ২০১৬)। "A delicious, fresh experience: try lahmacun"Daily Sabah। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জানুয়ারি ২০২০The true origin of lahmacun is a mystery... 
  2. "'Armenian Pizza' Is the Comfort Food You Didn't Know You Were Missing (Recipe)"Smithsonian Magazine। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জানুয়ারি ২০২০No one knows for certain whether lahmacun’s roots lie in Armenia, Turkey, or elsewhere in the Middle East. “The race to find where these ancient foods originated is not fruitful territory,” cautioned Naomi Duguid, author of Taste of Persia: A Cook's Travels Through Armenia, Azerbaijan, Georgia, Iran, and Kurdistan. After all, meat-enhanced flatbreads are ubiquitous throughout the region... 
  3. Ghillie Basan (১৯৯৭)। Classic Turkish Cookery। Tauris Parke Books। পৃষ্ঠা 95। আইএসবিএন 1-86064-011-7 
  4. Allen Webb (২০১২)। Teaching the Literature of Today's Middle East। Routledge। পৃষ্ঠা 70–। আইএসবিএন 978-1-136-83714-2 
  5. Sally Butcher (২০১২)। Veggiestan: A Vegetable Lover's Tour of the Middle East। Anova Books। পৃষ্ঠা 128–। আইএসবিএন 978-1-909108-22-6 [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. Jeff Hertzberg, M.D.; Zoë François (২০১১)। Artisan Pizza and Flatbread in Five Minutes a Day। St. Martin's Press। পৃষ্ঠা 216–218। আইএসবিএন 978-1-4299-9050-9 
  7. "Turkish flatbread lahmacun - just don't call it pizza"South China Morning Post। ৪ এপ্রিল ২০১৫। 
  8. Carol Helstosky (২০০৮)। Pizza: A Global History। London: Reaktion Books। পৃষ্ঠা 59–। আইএসবিএন 978-1-86189-630-8 
  9. The Routledge Handbook of Mobilities। Routledge। ১০ জানুয়ারি ২০১৪। আইএসবিএন 9781317934127। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জানুয়ারি ২০২০ 
  10. McKernan, Bethan (২৭ অক্টোবর ২০১৬)। "A 'pizza war' has broken out between Turkey and Armenia"The Independent। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  11. "Lahmacun Kimin?"kapsamhaber.com/ (তুর্কী ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১২-১০ 
  12. Marks, Gil (১৯৯৯)। The World of Jewish Cooking। New York: Simon and Schuster। পৃষ্ঠা 37। আইএসবিএন 978-0-684-83559-4 
  13. Dmitriev, Kirill; Hauser, Julia; Orfali, Bilal (২০১৯-০৯-২৪)। Insatiable Appetite: Food as Cultural Signifier in the Middle East and BeyondBrillআইএসবিএন 978-90-04-40955-2