বিষয়বস্তুতে চলুন

লবণোৎপাদক ভূগঠনপ্রক্রিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

[লবণোতপাদক ভূগঠনপ্রক্রিয়া' বা সল্ট টেকটোনিক্স, বা তার অধ্যয়ন, হ্যালাইটের একটি স্তরযুক্ত শিলার ক্রমের মধ্যে বাষ্পীভবনের উল্লেখযোগ্য বেধের জ্যামিতি এবং তার প্রক্রিয়াগুলির সাথে সম্পর্কিত। লবণের কম ঘনত্ব, যা মাটির তলায় চাপা পড়ার পরেও বৃদ্ধি পায় না এবং এর কম শক্তি এই উভয় কারণেই এই ভূগঠনপ্রক্রিয়াটি চলে।

বিশ্বজুড়ে ১২০ টিরও বেশি পলল অববাহিকায় লবণের কাঠামো (লবণের অবিকৃত স্তরগুলি বাদে) পাওয়া গেছে।[১]

নিষ্ক্রিয় লবণের কাঠামো

[সম্পাদনা]

কোনও বাহ্যিক ভূসংস্থান প্রভাব ছাড়াই মহাকর্ষীয় অস্থিতিশীলতার কারণে অব্যাহত পলল জমার সময় কাঠামোটি গঠিত হতে পারে। খাঁটি হ্যালাইটের ঘনত্ব ২১৬০ কেজি / মি। প্রাথমিকভাবে জমা হওয়া পললের ঘনত্ব সাধারণত কম থাকে, প্রায় ২০০০ কেজি / মি, তবে আরো পলল জমা এবং সেগুলি ঘন সন্নিবেশিত হওয়ায় তাদের ঘনত্ব বেড়ে গিয়ে ২৫০০ কেজি / মি হয়ে যায়। এই ঘনত্ব লবণের ঘনত্বের থেকে বেশি।[২] যখন পরপর জমা স্তরগুলি ঘন হয়ে যায়, দুর্বল লবণের স্তর বিকৃত হতে শুরু করে এবং রায়লেহ – টেলর অস্থিরতার একটি বিশেষ ধরনের ফলে স্তরের মধ্যে শৈলশিরা এবং অবনতির সৃষ্টি হয়। অবনতি অংশে আরও পলল জমা হতে থাকলে লবণ শৈলশিরার দিকে সরে যেতে থাকে। আরও পরে, শৈলশিরার সংযোগস্থলগুলিতে ডায়াপির (গম্বুজযুক্ত শিলা) তৈরি হতে শুরু করে, শৈলশিরা অঞ্চলে আরো লবণ চলে আসার কারণে তাদের বৃদ্ধি হতে থাকে, লবণের সরবরাহ শেষ না হওয়া অবধি এটি চলতে থাকে। এই প্রক্রিয়ার পরবর্তী পর্যায়ে ডায়াপির শীর্ষটি ভূপৃষ্ঠে বা তার কাছাকাছি থাকে। যত লবণ নিচে চাপা পড়ে ডায়াপির তত ওপর দিকে ওঠে, এবং কখনও কখনও এই প্রক্রিয়াকে নিচে থেকে গড়া বলা হয়। জার্মানিতে অ্যাসে ২ খনি এবং গর্লেবেনের লবণের গম্বুজ সম্পূর্ণরূপে নিষ্ক্রিয় লবণের কাঠামোর একটি উদাহরণ।

একটি লবণের স্তর অতিরিক্ত ভার সম্পন্ন পললের নিচে চাপা পড়েও সব সময় এই ধরনের কাঠামো তৈরি হয়না। এটি তুলনামূলকভাবে উচ্চ শক্তিসম্পন্ন অতিরিক্ত ভারের কারণে হতে পারে বা লবণের স্তরের মধ্যে মধ্যে পলল স্তরের উপস্থিতি, যা ঘনত্ব ও শক্তি দুটিই বাড়িয়ে তোলে, তার কারণে হতে পারে।

সক্রিয় লবণের কাঠামো

[সম্পাদনা]

সক্রিয় ভূত্বক সংস্থান লবণের কাঠামোগত বৃদ্ধির সম্ভাবনা বাড়িয়ে তোলে। প্রসারধর্মী ভূত্বক সংস্থানের ক্ষেত্রে, বিচ্যুতি অতিরিক্ত ভারের শক্তি হ্রাস করে এবং কাঠামোকে পাতলা করে।[৩] ধাক্কা ভূসংস্থান ঘটা একটি অঞ্চলে, অতিরিক্ত ভারযুক্ত স্তরের ধ্বসে যাবার ফলে অ্যান্টিক্লাইনের অন্তস্থলে লবণের পরিমাণ বাড়তে পারে, যেমন দেখা গেছে জগ্রোস পর্বতমালায় লবণের গম্বুজের ক্ষেত্রে এবং এল গর্ডো ডায়াপিরে (কোয়াহুইলা ভাঁজ-ও-ধাক্কা বলয়, উত্তর পূর্ব মেক্সিকো)।[৪]


লবণের স্তরের মধ্যে চাপ যথেষ্ট পরিমাণে বেড়ে গেলে এটি তার ওপরের অতিরিক্ত ভারকে কে চাপ দিয়ে ওপরে উঠে আসতে সক্ষম হতে পারে, এটি বলপ্রয়োগকারী ডায়াপিরিজম হিসাবে পরিচিত। অনেক লবণের ডায়াপিরে সক্রিয় এবং নিষ্ক্রিয় উভয় ধরনের লবণ চলাচলের উপাদান থাকতে পারে। একটি সক্রিয় লবণের কাঠামো তার অতিরিক্ত বোঝার মধ্যে ছিদ্র করে দিতে পারে এবং তারপরে সম্পূর্ণরূপে নিষ্কৃয় লবণের ডায়াপির হিসাবে বিকাশ চালিয়ে যেতে পারে।

বিক্রিয়াশীল লবণের কাঠামো

[সম্পাদনা]

নিষ্কৃয় লবণের কাঠামোগত বিকাশের জন্য লবণ স্তরের প্রয়োজনীয় শর্তাদি নেই এমন ক্ষেত্রেও, ভাঁজ এবং বিচ্যুতি সৃষ্টি করে লবণ তুলনামূলকভাবে নিম্নচাপ অঞ্চলে সরে যেতে পারে। এই জাতীয় কাঠামোকে বিক্রিয়াশীল বলা হয়।

আরও দেখুন

[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. Roberts, D.G. and Bally, A.W (editors) (২০১২)। Regional Geology and Tectonics: Phanerozoic Passive Margins, Cratonic Basins and Global Tectonic Maps – Volume 1। Amsterdam: Elsevier। পৃষ্ঠা 20–21। আইএসবিএন 978-0-444-56357-6 
  2. McGeary. D and C. C. Plummer (1994) Physical Geology: Earth revealed, Wm . C. Brown Publishers, Dubuque, p.475-476 আইএসবিএন ০-৬৯৭-১২৬৮৭-০
  3. Vendeville, B. C. and M. P. A. Jackson (1992b). The rise of diapirs during thin-skinned extension. Marine and Petroleum Geology, 9: 331-353
  4. Millán‐Garrido, H. (২০০৪)। "Geometry and kinematics of compressional growth structures and diapirs in the La Popa basin of northeast Mexico: Insights from sequential restoration of a regional cross section and three‐dimensional analysis"। Tectonics23 (5)। ডিওআই:10.1029/2003TC001540 

বহিঃসংযোগ

[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Geologic Principles টেমপ্লেট:Salt topics

ভূতাত্ত্বিক প্রক্রিয়া