রোল্যান্ড বিউমন্ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রোল্যান্ড বিউমন্ট
রোল্যান্ড বিউমন্ট.jpg
আনুমানিক ১৯১২ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে রোল্যান্ড বিউমন্ট
ক্রিকেট তথ্য
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক২৭ মে ১৯১২ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট১ জানুয়ারি ১৯১৪ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৩২
রানের সংখ্যা ৭০ ১,০৮৬
ব্যাটিং গড় ৭.৭৭ ২৫.২৫
১০০/৫০ ০/০ ১/৫
সর্বোচ্চ রান ৩১ ১২১
বল করেছে ১২
উইকেট
বোলিং গড় - -
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/০ ১১/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৩০ জানুয়ারি ২০১৮

রোল্যান্ড বিউমন্ট (ইংরেজি: Rolland Beaumont; জন্ম: ৪ ফেব্রুয়ারি, ১৮৮৪ - মৃত্যু: ২৫ মে, ১৯৫৮) নাটাল প্রদেশের নিউক্যাসল এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে নাটাল দলের প্রতিনিধিত্ব করে গেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি মাঝারিসারির ব্যাটসম্যানের দায়িত্ব পালন করতেন। সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে পাঁচ টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ ঘটে তার। এছাড়াও ডানহাতে বোলিংয়ে সবিশেষ দক্ষতা দেখিয়েছেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

দক্ষিণ আফ্রিকার হিলটন কলেজের ছাত্র ছিলেন। মাঝারিসারির ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলার পাশাপাশি সুন্দর ফিল্ডিংয়ে সকলের মনোযোগ আকর্ষণ করেন। ১৯০৮ থেকে ১৯১৪ সময়কালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নেন। ৩২টি প্রথম-শ্রেণীর খেলার অধিকাংশই ১৯১২ সালে গ্রীষ্মের ভেজা আবহাওয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকার সদস্যরূপে ইংল্যান্ড সফরে খেলেছিলেন রোল্যান্ড বিউমন্ট।

ওয়ান্ডারার্সের পক্ষে সর্বপ্রথম গুরুত্বপূর্ণ খেলায় অবদান রাখেন। জোহেন্সবার্গভিত্তিক ক্লাবটি এস.জে. স্নুকএ.ডব্লিউ. নোর্সের ন্যায় তারকা খেলোয়াড় সমৃদ্ধ দক্ষিণ আফ্রিকার বাদ-বাকী একাদশের সাথে ড্র করতে সক্ষমতা দেখায়। এছাড়াও তিনি ট্রান্সভালের পক্ষে ছয়বার এবং দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট দলের সদস্যরূপে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ টেস্টে অংশ নেন। চাপমুক্ত অবস্থায় ব্যাটিং করেন যা তার সহজাত প্রবৃত্তি ছিল। কিন্তু অনেকগুলো খেলায় স্বীয় প্রতিভার স্বাক্ষর রাখতে ব্যর্থ হয়েছেন।

একমাত্র প্রথম-শ্রেণীর সেঞ্চুরিটি করেন ১২১ রানের। নভেম্বর, ১৯১৩ সালে জোহেন্সবার্গে ট্রান্সভালের অধিনায়কত্বকালীন দুইদিনের খেলায় পি.ডব্লিউ. শেরওয়েল একাদশের বিপক্ষে এ সাফল্য পান।[১] তবে বাদ-বাকী প্রথম-শ্রেণীর খেলাগুলোয় কেবলমাত্র ছয়বার পঞ্চাশ বা তদূর্ধ্ব রান সংগ্রহ করতে পেরেছেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে পাঁচ টেস্টে অংশ নিতে পেরেছেন। ২৭ মে, ১৯১২ তারিখে টেস্ট অভিষেক ঘটে রোল্যান্ড বিউমন্টের। টেস্টে তিনি সর্বোচ্চ রান করেন ৩১। ১৯১২ সালের ত্রি-দেশীয় প্রতিযোগিতায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওল্ড ট্রাফোর্ডে এ সংগ্রহটি করতে পেরেছিলেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

১৯২০-এর দশকে ত্রিনিদাদে তৈল প্রতিষ্ঠান তদারকী করতেন। উপার্জিত লভ্যাংশ থেকে বিউমন্ট কাপে ব্যয় করেন। ঐ প্রতিযোগিতায় উত্তর ত্রিনিদাদ বনাম দক্ষিণ ত্রিনিদাদের মধ্যকার খেলাটি ১৯২৫-২৬ মৌসুমের শুরুতে আয়োজন করা হয়।[২]

২৫ মে, ১৯৫৮ তারিখে ৭৪ বছর বয়সে ডারবানের বিরিয়া এলাকায় তার দেহাবসান ঘটে। কিন্তু, তার মৃত্যুর কোন সংবাদ উইজডেনে প্রকাশিত হয়নি।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Transvaal v PW Sherwell's XI 1913-14"CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৪ অক্টোবর ২০১৬ 
  2. Wisden 1972, p. 978.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]


গ্রন্থপঞ্জী[সম্পাদনা]

  • World Cricketers - A Biographical Dictionary by Christopher Martin-Jenkins, published by Oxford University Press (1996)
  • The Wisden Book of Test Cricket, Volume 1 (1877-1977) compiled and edited by Bill Frindall, published by Headline Book Publishing (1995)
  • Who's Who of Cricketers by Philip Bailey, Philip Thorn & Peter Wynne-Thomas, published by Hamlyn (1993)