রোজা নামিসেস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রোজা নামিসেস
জন্ম (1958-04-20) ২০ এপ্রিল ১৯৫৮ (বয়স ৬৪)
পুরাতন অবস্থান - উইন্ডহোক, খোমাস অঞ্চল
নাগরিকত্বনামিবিয়ান
মাতৃশিক্ষায়তনদক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাকর্মী

ভিসোলা রোজালিন্ডা "রোজা" নামিসেস (জন্ম ১৯৫৮) একজন নামিবিয়ান রাজনীতিবিদ, মানবাধিকার কর্মী এবং/খোমেনিন জনগণের শাসক প্রধান। [১] তাঁর ডাকনাম " নামিবিয়ার রোজা লুক্সেমবার্গ "। [২] তিনি সাবেক সংসদ সদস্য এবং নামিবিয়ার ডেমোক্রাতস কংগ্রেসের (সিওডি) প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও সাবেক মহাসচিব। তিনি লিঙ্গ সমস্যা, মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং নামিবিয়ায় নারী ও শিশুদের প্রতি সহিংসতার উপর একটি বিশিষ্ট কণ্ঠস্বর, তিনি নারী সংহতি নামিবিয়ার পরিচালক এবং দোলাম আবাসিক শিশু যত্ন কেন্দ্রে, দুর্বল শিশুদের ডে-কেয়ার সেন্টারে কাজ করেন।

প্রাথমিক জীবন ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

রোজা নামিসের জন্ম ১৯৫৮ সালের ২০ই এপ্রিল[৩] নামিবিয়ার রাজধানী উইন্দহোকের ওল্ড লোকেশনে। একজন অ্যাঙ্গোলন পিতা ও দমরা মায়ের নয় সন্তানের মধ্যে একজনের হিসাবে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ১৫ বছর বয়স পর্যন্ত তাঁর বাবার কাছে বেড়ে ওঠেন এবং উইন্ডহোকের অগাস্টিনিয়াম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। স্নাতক শেষ করার পর তিনি প্রথমে পরিচ্ছন্নতাকর্মী, তারপর নার্সিং সহকারী হিসাবে কাজ করেন এবং সমান্তরালভাবে তিনি সুকেস কলেজের সাথে একটি চিঠিপত্রের কোর্সের মাধ্যমে ম্যাট্রিক সম্পন্ন করেন।[৪]

তার রাজনৈতিক সক্রিয়তা প্রথমে তাকে কারাগারে নিয়ে যায় এবং তারপর তাঁকে নির্বাসনে নিয়ে যায়,[২] এই পরিস্থিতি তাঁকে তাঁর শিক্ষা অর্জন বন্ধ করতে বাধ্য করে। শুধুমাত্র ১৯৯০ সালে নামিবিয়া স্বাধীন হওয়ার পরে তিনি পড়াশোনা চালিয়ে যান। তিনি ইউএনআইএসএ থেকে প্রাপ্তবয়স্ক ও প্রাথমিক শিক্ষায় ডিপ্লোমা ও লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লিঙ্গ উন্নয়ন ও পরিকল্পনায় ডিপ্লোমা অর্জন করেন। তিনি আরও মহিলাদের ম্যানেজমেন্টে ডিপ্লোমা করেন, কিছু প্যারালিগাল শিক্ষা অর্জন করেন এবং কাউন্সেলিং ও সুবিধার দক্ষতা অর্জন করেন।[৪]

রাজনৈতিক পেশা[সম্পাদনা]

রোজা ১৯৮০-এর দশকের গোড়ার দিকে তৎকালীন অবৈধ সোয়াপো পার্টিতে যোগ দেন। তিনি সভার আয়োজন করেন, নতুন সদস্যদের যুক্ত করেন এবং প্রচারমূলক সামগ্রী বিতরণ করেন। তিনি এর পরে ধরা পড়েন এবং দুই মাস নির্জন কারাগারে কাটিয়েছিলেন, কিন্তু তিনি শীঘ্রই তাঁর কর্মকাণ্ডে ফিরে আসেন। [৫] ১৯৮৫ সালে [৫] এক জন শ্বেতাঙ্গ ডাক্তারের সাথে জনসমক্ষে হাত ধরতে দেখা যাওয়ার পরে, তিনি বর্ণবাদী বিচ্ছিন্নতা সম্পর্কিত বর্ণবাদী আইন লঙ্ঘন করী হিসাবে হাসপাতালের চাকরি হারান।[২] তিনি তাঁর রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের জন্য দ্বিতীয়বারের জন্য ১৪ মাস জেল খাটেন।[৫]

সক্রিয়তা[সম্পাদনা]

রোজা রাজনীতির শুরু করা ও পরিত্যাগ করার মধ্যবর্তী সময়ে একজন কর্মী ও লবিস্ট হিসাবে কাজ করেছেন। তাঁর প্রথম আনুষ্ঠানিক ভূমিকা হল - আইনি সহায়তা কেন্দ্রে ১৯৯০-এর দশকের গোড়ার দিকে কাজ করা, তিনি সোয়াপো ছাড়ার পর চাকরি গ্রহণ করেন। তিনি সেখানে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা খুঁজে পেতে ও মোকাবেলা করতে সাহায্য করেছিলেন, তাঁর কাছে এটি একটি পদক্ষেপ ছিল, যা তিনি "প্রতিশোধ" হিসাবে বর্ণনা করেছিলেন। [৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. https://www.namibian.com.na/177603/archive-read/Khomanin-group-elects-Namises--as-chief
  2. Dregger, Leila (৬ মার্চ ২০১৪)। "Ich liebe die Welt!"Die Wochenzeitung (German ভাষায়)। 
  3. "Namises Visolela Rosalinda"Parliament of Namibia। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০১৬ 
  4. Nghidengwa, Marianne (১৮ ডিসেম্বর ২০১২)। "Rosa Namises: Human Rights Activist with a passion"Confidente। ১০ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  5. von Wietersheim, Erika (২০০১)। "Namibia: Rosa Namises kämpft für Gerechtigkeit" (German ভাষায়): 85।