রেজিন ভেলাস্কেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রেজিন ভেলাস্কেজ
QueenRegine.jpg
২০০৮ সালে রেজিন ভেলাস্কেজ
জন্ম
রেজিনা এনকার্নাসিয়ন আনসং ভেলাস্কেজ

(1970-04-22) ২২ এপ্রিল ১৯৭০ (বয়স ৪৯)
বাসস্থানকেসোন, ফিলিপাইন
পেশা
কার্যকাল১৯৮৬–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীওগি আলকাসিদ (বি. ২০১০)
সন্তান
স্বাক্ষর
Reginevelasquezautograph.png

রেজিনা এনকার্নাসিয়ন আনসং ভেলাস্কেজ, (/ˈrɛdʒin ˈvɛlæskɛz/; জন্ম: ২২ এপ্রিল, ১৯৭০)[১] হলেন একজন ফিলিপিনো গায়িকা, অভিনেত্রী এবং রেকর্ড প্রযোজক। তিনি তার স্টেজ নাম রেজিন ভেলাস্কেজ-এর জন্য অধিক পরিচিত। ১৯৮০-এর দশকে তিনি "আং বাগং কামপাইয়ন" এবং ১৯৮৯ সালে এশিয়া প্যাসিফিক সিঙ্গিং কনটেস্ট উভয় প্রতিযোগিতা জয়লাভ করে সকলের মাঝে অধিক জনপ্রিয়তা অর্জন করেন; উক্ত প্রতিযোগিতায় তিনি ফিলিপাইন দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। ভেলাস্কেজ তার নিজের নামে তার প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন, সেই অ্যালবাম থেকে "কুং মীবাবলিক কো লং" গানটির মাধ্যমে তিনি খ্যাতি অর্জন করেন। উক্ত অ্যালবামটি ফিলিপাইনের তৎকালীন দুটি সেরা একক সংগীত অ্যালবামে পরিণত হয় এবং এটি বাণিজ্যিকভাবে সফল অ্যালবামগুলোর মধ্যে একটি হয়ে উঠে, যা তাকে একজন সক্ষম "ওপিএম শিল্পী" হিসেবে প্রতিষ্ঠালাভ করতে সাহায্য করেছে।

রেজিন ভেলাস্কেজ ১৯৯৪ সালে পলিগ্রাম রেকর্ডসের সঙ্গে একটি রেকর্ডিং চুক্তি স্বাক্ষর করেন এবং পরবর্তীতে "লিসেন উইথআউট প্রিজাস্টিস"-এর প্রকাশের মাধ্যমে দক্ষিণ পূর্ব এবং পূর্ব এশীয় অঞ্চলের একজন ভবিষ্যৎ শিল্পী হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেন। অ্যালবামটি তার গাওয়া উক্ত অঞ্চলের মধ্যে শ্রেষ্ঠ বিক্রিত অ্যালবাম হিসেবে পরিণত হয়। ১৯৯০-এর দশকে তার সবচেয়ে সফল একক সংগীত ভিডিও এবং তার সাথে আরেকটি সঙ্গতিপূর্ণ সংগীত ভিডিও প্রকাশ করেন যেটি পরবর্তীতে এমটিভি এশিয়া দ্বারা "দশকের সেরা ভিডিও" হিসেবে ভূষিত হয়। ১৯৯৭ সালে পলিগ্রাম রেকর্ডসের সাথে তার বিচ্ছেদের পর, রেজিন ভেলাস্কেজের মধ্যে তার সঙ্গীত এবং পাবলিক ইমেজের জন্য সৃজনশীল নিয়ন্ত্রণের অভাব উদ্ধৃত হয়। অতঃপর পরের বছর রেজিন ভেলাস্কেজ ভিভা রেকর্ডসের সঙ্গে একটি রেকর্ড চুক্তি স্বাক্ষর করেন। ফিলিপাইনে তার সঙ্গীত কর্মজীবন পুনরায় শুরু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার পর, তিনি "আর২কে" (১৯৯৯)-এর একজন নির্বাহী প্রযোজক হওয়ার মাধ্যমে সৃজনশীল স্বাধীনতা অর্জন করেন। এই অ্যালবামটি ফিলিপাইনে একজন নারী শিল্পীর বিক্রিত সেরা অ্যালবাম এবং ১৯৯৯ থেকে ২০০০ সালের মধ্যে তার অঞ্চলের জন্য সেরা বিক্রিত স্থানীয় অ্যালবামে পরিণত হয়।

একটি উল্লেখযোগ্য সফল সময়ের পরে, রেজিন ভেলাস্কেজ "ওয়ান্টেড পারফেক্ট মাদার" (১৯৯৬)-এর চলচ্চিত্রে "সীসা" নামক প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। তিনি রোমান্টিক কমেডি চলচ্চিত্রগুলোতে প্রধান নারী ভূমিকা পালন করেন, যেগুলো বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছিল। সেই সকল চলচ্চিত্রের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো: "কালিয়াঙ্গন কো'য় আইকাও" (২০০০) এবং "পঙ্গাকো আইকাও ল্যাং" (২০০১)। "পঙ্গাকো আইকাও ল্যাং" চলচ্চিত্রটি উক্ত বছরের অর্থাৎ ২০০১ সালের "সর্বোচ্চ উপার্জনকারী চলচ্চিত্র"-এ পরিণত হয়। এছাড়াও তিনি বেশ কয়েকটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানেও উপস্থিত হয়েছিলেন, যার মধ্যে "মালালা মো কায়া" (২০০২), "ফরএভার ইন মাই হার্ট" (২০০৪), "ডিভা" (২০১০) এবং "পুর সেনোরিটা" (২০১৬) উল্লেখযোগ্য। তিনি প্রথমবারের মতো একটি মানসিক প্রতিবন্ধী নারীর চরিত্রে অভিনয় করে একটি টেলিভিশন সিরিজের একটি পর্বে অভিনয় করেন। পরবর্তীতে টেলিভিশনে তার অসাধারণ অভিনয়ের ফলস্বরূপ তিনি প্রথমবারের মতো সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জয়লাভ করতে সক্ষম হন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Valisno, Jeffrey (১৬ নভেম্বর ২০১২)। "Fairy tale"। Business World Online। ২৭ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]