রাহা মুহারক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রাহা মুহারক
রাহা মুহারক

This file is a candidate for speedy deletion. It may be deleted after Friday, 23 June 2017. টেমপ্লেট:Deletable image-caption/category
স্থানীয় নাম
رها محرق
জন্ম
১৯৮৬ (বয়স ৩২–৩৩)
জাতীয়তাসৌদি
পেশাশিল্প পরিচালক
পরিচিতির কারণপ্রথম সৌদি নারী যিনি এভারেস্ট জয় করেছেন
ওয়েবসাইটrahamoharrak.com

রাহা মুহারক (আরবি: رها محرق‎‎; জন্ম ১৯৮৬) সর্বকনিষ্ঠ আরব এবং প্রথম সৌদি নারী হিসেবে এভারেস্টের চূড়ায় আরোহণ করার কৃতিত্ব লাভ করেন।[১] পূর্বে তিনি কিলিমাঞ্জারো, ভিনসন স্তূপপর্বত, এলব্রুস পর্বত, অ্যাকনকাগুয়া পর্বত, কালা পাথার, ওরিসাবা পর্বত এবং ইস্তাসিওয়াটাল জয় করেছেন।[২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

হাসান মুহারকের [৩] তিন সন্তানের মধ্যে সবচেয়ে কনিষ্ঠতম মুহারক সৌদি আরবের জেদ্দাতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি শারজাহ শহরের আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভিসুয়াল কমনিকেসান্সে কে স্নাতক হন।[৪]

বর্তমানে তিনি নারী লিডারশিপের বিশেষত্ব নিয়ে সিনার্জি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুবাই ক্যাম্পাসে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করছেন। তিনি এখন দুবাইতে বসবাস করেন।[১][৫] যেখানে তিনি একজন গ্রাফিক ডিজাইনার। [৬] তিনি সৌদি আরবের কিছুটা ঐতিহ্যবাহী পরিবার [৬] থেকে এসেছেন, যেটি হিউম্যান রাইটস ওয়াচের মতে, বিশ্বের একমাত্র জাতি যেগুলি সরকারি স্কুলে খেলাধুলার ক্ষেত্রে অংশগ্রহণকারীদের সক্রিয়ভাবে নিরুৎসাহিত করে। [৩] সিএনএন এর মতে, তিনি বলেছিলেন, তার পরিবার কে রাজি করানো এবং তার পর্বতমালার আরোহণ করা দুটোই তার কাছে একই রকমের চ্যালেঞ্জ ছিল।"[৬]

মাউন্ট এভারেস্ট জয়[সম্পাদনা]

মুহারকের এভারেস্টের জন্য কঠোর পরিশ্রম করেন। ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে, তিনি চিলির শীর্ষ চূড়া, অ্যাকনকাগুয়া পর্বতে পৌঁছান এবং ২০১৩ সালের এপ্রিলের শুরু থেকে মাউন্ট এভারেস্ট জয় করার প্রস্তুতি নেন।[৬]

তিনি দক্ষিণ কলের শেষ শিবির থেকে সারা রাত ধরে চলার পর, ১৮ মে ২০১৩ সালে, মাউন্ট এভারেস্টের চূড়ায় পৌঁছান যান নেপালের প্রান্ত থেকে[৭], সেখানে পৌঁছানোর পর, আরও ৩৪ জন অন্যান্য পর্বতারোহী এবং ২৯ জন গাইড তার সাথে যোগদান করে। [৮] তার চার সদস্যের অভিযানের দল, "আরবস উইথ আলটিটুড",[৯] সেই দলে, কাতারের রাজ পরিবার থেকে প্রথম কাতারি, মোহাম্মদ আল থানি এবং প্রথম প্যালেস্টাইনী, রাইড জিন্দা ছিলেন। তারা মাউন্ট এভারেস্টের শীর্ষে পৌঁছানোর চেষ্টা করার জন্য এক মিলিয়ন ডলার প্রস্তাবিত মূল্য নেপালের শিক্ষার জন্য ব্যয় করবেন।[১০][১১] মুহারকের কৃতিত্ব অর্জনের পর, তার অভিযানের দলটি টুইট করে, "প্রথম সৌদি মহিলা মাউন্ট এভারেস্ট জয় করার জন্য, ব্রাভো রাহা মুহারক। আমাদের সামরিক অভিবাদন।" [৬]

তার নিজের কৃতিত্ব সম্পর্কে বলতে গেলে, তিনি বলেন: "আমি সত্যিই প্রথম হওয়া অতটা গুরুত্ব দিছিনা, যতদিন না কেউ অনুপ্রাণিত হয়ে দ্বিতীয় হচ্ছে।" [১][১২][১৩][১৪][১৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Saudi woman makes history by reaching Everest summit"BBC News। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  2. "Raha puts Saudi, UAE on top of the world"Khaleej Times। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  3. "Saudi woman tops Everest as country warms to women in sports"Hurriyet Daily News। ১৯ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-২১ 
  4. "Saudi woman conquers Everest"The Hindu। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  5. "First Saudi woman climbs to top of Everest"Al Jazeera। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  6. "First Saudi woman summits Mount Everest"CNN। ২০ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-২১ 
  7. "25-Year-Old Saudi Arabian Woman Makes History By Reaching Everest Summit"Business Insider। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  8. "Height of adventure: Saudi woman conquers Everest"Arab News। ১৯ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-২১ 
  9. "Saudi Arabian woman in historic Mount Everest climb"The Guardian। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  10. "First Saudi woman makes it to Mount Everest"Al Arabiya। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  11. "Raha Moharrak, the First Arab Woman to reach Everest Summit"Dainik Jagran। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  12. "Raha Moharrak makes history as the first Saudi Arabian woman to summit Mt. Everest"Global Post। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  13. "Saudi woman Raha Moharrak becomes the youngest Arab to conquer Everest"Gulf News। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  14. "Raha Moharrak Becomes First Saudi Arabian Woman To Climb Mount Everest"The Huffington Post। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-১৮ 
  15. "First Saudi Woman Scales Mount Everest"New York Times। ১৮ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-২১