রাশেদ রউফ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রাশেদ রউফ
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থেকে বাংলা একাডেমী পুরস্কার গ্রহণ করছেন শিশু সাহিত্যিক রাশেদ রউফ
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থেকে বাংলা একাডেমী পুরস্কার গ্রহণ করছেন শিশু সাহিত্যিক রাশেদ রউফ
জন্ম (1964-01-01) ১ জানুয়ারি ১৯৬৪ (বয়স ৫৭)
চট্টগ্রাম
পেশাসাংবাদিক, শিশু-সাহিত্যিক, কলাম লেখক
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারবাংলা একাডেমী পুরস্কার

রাশেদ রউফ (জন্ম: জানুয়ারী ১, ১৯৬৪) একজন বাংলাদেশী কবি, লেখক, সাহিত্যিকসাংবাদিক। তাঁকে বলা হয় বাংলাদেশের কিশোরকবিতা আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব । বর্তমানে তিনি চট্টগ্রামের দৈনিক আজাদীর সহযোগী সম্পাদক পদে কর্মরত আছেন। শিশু সাহিত্যের জন্য বাংলা একাডেমি পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন এই সাহিত্যিক।[১]

জন্ম ও বেড়ে ওঠা[সম্পাদনা]

রাশেদ রউফ ১ জানুয়ারি ১৯৬৪ সালে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ছনহরা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। সে গ্রামেই বেড়ে উঠেছেন তিনি। তার বাবার নাম নুর সৈয়দ, মায়ের নাম মাবেয়া বেগম। তারা ৬ ভাই ৪ বোন। ভাইদের মধ্যে তিনি বড়।

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

রাশেদ রউফের শিক্ষাজীবন শুরু হয় পটিয়াস্থ ছনহরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।। এরপর ছনহরা ষোড়শী বালা উচ্চ বিদ্যালয়, পটিয়া সরকারি কলেজ হয়ে তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করেন। ১৯৮৬ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণিত বিষয়ে স্নাতক এবং ১৯৮৭ সালে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

শিক্ষা জীবন শেষ করেই রাশেদ রউফ পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন সাংবাদিকতাকে। ১৯৯১ সালে বাংলাদেশের প্রাচীনতম পত্রিকা দৈনিক আজাদীতে বার্তা বিভাগে সহ-সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন। বর্তমানে এ পত্রিকার সহযোগী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।[২]

লেখালেখি শুরু[সম্পাদনা]

স্কুল জীবন থেকেই লেখালেখির সূত্রপাত। ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়াকালীন এক সহপাঠীর কাব্য চর্চায় অনুপ্রাণিত হয়ে তার কবিতা চর্চা শুরু। পরে তার প্রিয় শিক্ষক আশা কিরণ চৌধুরীর অনুপ্রেরণায় লেখালেখিতে নিরবিচ্ছিন্ন যাত্রা। তবে পত্রিকার প্রথম লেখা প্রকাশ ১৯৮০ সালে, যখন তিনি পটিয়া সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

প্রকাশিত গ্রন্থ[সম্পাদনা]

এ পর্যন্ত রাশেদ রউফের প্রায় অর্ধশত বই প্রকাশিত হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে :

কিশোর কাব্যগ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • আকাশের সীমানায় সূর্যের ঠিকানায় (১৯৯১),[৩]
  • আগল ভাঙা পাগল হাওয়া (১৯৯৬),
  • বিকেল মানে ছুটি (১৯৯৬),
  • ধানের গানে প্রাণের বাঁশি (১৯৯৮),
  • যাওয়ার পথে হাওয়ার রেলে (১৯৯৯),
  • ছুটির মজা কেমন মজা (২০০০),
  • আয়রে খোকন ঘরে আয় (২০০২),
  • নির্বাচিত কিশোর কবিতা (২০০৪),
  • ছবির মতো দেশ (২০০৮),
  • আনন্দ সাম্পান (২০০৯),
  • পরীর নূপুর (২০১২),
  • তোমার জন্যে সোনার বাংলা (২০১৬),
  • ছুটিমাখা সকালে (২০১৯)
  • শ্রেষ্ঠ কিশোরকবিতা (২০১৯)
  • যখন আমি ছোট্ট ছিলাম (২০২০)।

প্রবন্ধ-গবেষণাগ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • ছন্দ পরিচয় (১৯৯৬, ১৯৯৮,২০০০),
  • ছড়া জাদুকর সুকুমার বড়ুয়া (১৯৯৯),
  • ছড়াশিল্পী লুৎফর রহমান রিটন (২০০০),
  • বাংলাদেশের ছড়া : রূপ ও রূপকার (২০০৭),
  • রবীন্দ্রনাথ : ছোটোদের আপন (২০১২),
  • আলোয় ভুবন ভরা ( ২০১৬)
  • বাংলাদেশের শিশুসাহিত্য : ছন্দোময় সোনালি রেখা (২০১৬),
  • বাংলাদেশের কিশোরকবিতা : অগ্রগতি ও গতিপ্রকৃতি (২০১৭)
  • শিশুসাহিত্য ও আমাদের দায়বদ্ধতা (২০১৯)
  • বাংলা ছন্দের সহজ পাঠ (২০২০)
  • প্রথম অনলাইন বইমেলা : লেখক সারথি (২০২১)

জীবনী[সম্পাদনা]

  • মোহাম্মদ খালেদ (২০১৬)
  • বিজ্ঞানী খুদরাত এ খুদা (২০১৯)
  • স্যার জগদীশচন্দ্র বসু (২০২০)।

কাব্যগ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • তোমার জন্য সকাল আমার তোমার জন্য রাত (১৯৯৭)
  • এসো পঞ্চাশে এসো মন চাষে (২০১৩)


ছড়াগ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • সমকালীন ছড়া (১৯৯৭),
  • অন্ত্যমিলসমগ্র : ১ (২০১৬)
  • এটাও চাই, ওটাও চাই (২০২০)

কিশোর গল্প ও উপন্যাসগ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • কাকবন্ধু ও ভূতের গল্প (২০০৬),
  • পরীর ভুবন (২০০৯),
  • পরি কি সত্যি সত্যি ঘরে এসেছিল (২০১৫),
  • রূপ অরূপের আলো (২০১৭),
  • আমাদের ইশকুলে পরীক্ষা নেই (২০১৭),
  • মিষ্টি পাখি দুষ্ট পাখি (২০১৭),
  • ছুটির দিনে (২০১৭),
  • পাখির সাথে আনন্দমেলায় (২০১৭)
  • বাবারা কি মায়ের মতো হয় (২০১৯)
  • বাবা, আমি তোমাকে ভালোবাসি (২০১৯)
  • বন্ধু চিরকাল (২০২০)
  • আয়মান ও মাছের গল্প (২০২১)

ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুবিষয়ক গ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • মুক্তিযুদ্ধের ছড়া ও কবিতা (১৯৯৭),
  • স্বাধীনতার প্রিয় কবিতা (২০০০)
  • ভাষা-আন্দোলন মুক্তিযুদ্ধ-স্বাধীনতা ও দেশের কবিতা (২০১৪),
  • খোলা আকাশের দিন (২০১৭),
  • তীর্থভূমি (২০১৭),
  • কী শোভা কী ছায়া গো (২০১৭),
  • বীরের স্বপ্ন (২০১৮)
  • বঙ্গবন্ধু তুমি অজর অমর (২০১৯)

বড়দের গল্পগ্রন্থ[সম্পাদনা]

প্রেম-অপ্রেমের গল্প (২০১৮)

লিটল ম্যাগাজিন সম্পাদনা[সম্পাদনা]

১৯৮৪ সাল থেকে বিভিন্ন সময় বেশ কয়েকটি লিটল ম্যাগাজিন সম্পাদনা করেন। তন্মধ্যে ছিল সাহিত্য সাময়িকী ‘প্রেরণা’, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কবিতা সংকলন ‘দাবাইয়া রাখতে পারবা না’, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সামগ্রিক সংকলন ‘বাঙালি’, ছোটদের সাময়িকী ‘শিশুমেলা’ প্রভৃতি। প্রায় বিশ বছর ধরে সম্পাদনা করেন ছোটদের পত্রিকা ‘দুরন্ত’। একসময় তাঁর সম্পাদনায় বের হতো ‘সাপ্তাহিক ছড়াসাহিত্য’ নামে ছড়ার একটি পত্রিকা। এছাড়া তিনি এখন সম্পাদনা করেন ‘শিশুসাহিত্য’ নামে একটি লিটল ম্যাগ।

সম্পাদিত গ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • অথৈ (১৯৯৩)
  • দুরন্ত (১৯৯৫)
  • চাঁদের কপালে চাঁদ (১৯৯৫)
  • মুক্তিযুদ্ধের ছড়া ও কবিতা (১৯৯৭)
  • বাংলাদেশের ছড়া (২০০১)
  • লেখক কোষ : চট্টগ্রাম (২০০২)
  • শিল্পী কোষ : চট্টগ্রাম (২০০৩)
  • এম আর আমিন স্মারক গ্রন্থ (২০০৪)
  • মাহবুবুল হক সম্মাননা স্মারক (২০০৮)
  • ও আমার কিশোরবেলা (২০১৩)
  • বাংলাদেশের কিশোরকবিতা : আলোর ঝলক (২০১৬)

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

  • বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার (২০১৬)
  • চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন সাহিত্য পুরস্কার ২০১৬
  • চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সেরা লেখক পুরস্কার ২০১৬
  • শিল্পকলা একাডেমি পদক ২০১৬
  • অগ্রণী ব্যাংক শিশু একাডেমী শিশুসাহিত্য পুরস্কার, (২০১২)
  • ছোটদের কাগজ শিশুসাহিত্য পুরস্কার ১৯৯৮
  • পালক এ্যাওয়ার্ড ১৯৯৮
  • কিডস শিশুসাহিত্য পুরস্কার ১৯৯৯
  • অর্চি শিশুসাহিত্য পুরস্কার ২০০০
  • বাংলা সাহিত্য পদক ২০০৫
  • বোধন আবৃত্তি স্কুল সম্মাননা ২০০৬
  • বাপী শাহরিয়ার স্মৃতি পুরস্কার ২০০৬
  • এম নুরুল কাদের শিশুসাহিত্য পুরস্কার (দুইবার)
  • বাংলার মাটি বাংলার জল পদক
  • গ্রেটার চিটাগং রোটারি ক্লাব সম্মাননা ২০১৫
  • অবসর সাহিত্য পুরস্কার ২০১৭
  • প্রতীকী ছড়া সাহিত্য পুরস্কার ২০১৭
  • আবু হাসান শাহীন স্মৃতি পুরস্কার ২০১৮,
  • ঝুমঝুমি শিশুসাহিত্য পুরস্কার ২০১৮,
  • জেসমিন ফাউন্ডেশন অ্যাওয়ার্ড ২০১৯
  • পদ্মবীণা ফাউন্ডেশন পদক ২০২১ প্রভৃতি।

সাংগঠনিক তৎপরতা[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের প্রথম জাতীয় ছড়া উৎসব (১৯৮৯), প্রথম কিশোরকবিতা সম্মেলন (১৯৮৯), প্রথম শিশুসাহিত্য উৎসব (২০০৭) ও প্রথম স্বাধীনতার বইমেলার (২০০০)-এর অন্যতম উদ্যোক্তা তিনি। সাহিত্য সংস্কৃতি ইতিহাস ঐতিহ্য বিষয়ক প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম একাডেমি ও বাংলাদেশ শিশুসাহিত্য একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা সংগঠক। ৪ বছর ধরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।[২]

উৎসর্গ[সম্পাদনা]

রাশেদ রউফকে গ্রন্থ উৎসর্গ করেছেন, রবণ্য সাহিত্যিক বৃন্দ-

কবি আসাদ চৌধুরী, সুব্রত বড়ুয়া, বিপ্রদাশ বড়ুয়া, সুকুমার বড়ুয়া, মাহবুবুল হক, রফিকুল হক দাদু ভাই, আলী ইমাম, আখতার হুসেন, লুৎফর রহমান রিটনআমীরুল ইসলাম, সুজন বড়ুয়া, রফিকুর রশিদ, আহসান মালেক, আশরাফুল আলম পিন্টু, আলম তালুকদার, ড. আনোয়ারা আলম, মুস্তাফা মাসুদ, তহুরীন সবুর ডালিয়া, রহীম শাহ, মোস্তাফা হুসাইন, দীপু মাহমুদ, নেছার আহমদ, সীরু বাঙ্গালী, হাসনাত আমজাদ, স ম শামসুল আলম, দীপক বড়ুয়া, উৎপল কান্তি বড়ুয়া, এমরান চৌধুরী, শিবু কান্তি দাশ, মোস্তাক রায়হান, খালেদ শরফুদ্দিন, আকতার হোসাইন, আজিজ রহমান, অমিত বড়ুয়া, ফরিদা ইয়াসমিন সুমি, আবুল কালাম বেলাল, অরুণ শীল, মালেক মাহমুদ, রমজান আলী মামুন, জুবাইর জসীম, সুসেন কান্তি দাশ, ওবাইদুল সমীর, ফরিদা ইয়াসমিন সুমি, রহমান হাবীব, ইসমাইল জসীম, মিজানুর রহমান শামীম, আকাশ আহমেদ, আমানউদ্দীন আব্দুল্লাহ, আলী আসকর, শামীম খান যুবরাজ, আখতারুল ইসলাম, আব্দুল মতিন রিপন, লিটন কুমার চৌধুরী, কোহিনুর আকতার, চন্দ্র শীলা ছন্দা, গোফরান উদ্দীন টিটু, রুনা তাসমিন, সৈয়দা সেলিমা আকতার, বাসুদেব খস্তগীত, আনোয়ারুল হক নুরী, সনজিত দে, নানটু কুমার দাশ, সাইমন নজরুল, কানিজ ফাতেমা, এয়াকুব সৈয়দ, মিলন বণিক, সাইদুল আরেফিন, জাকির হোসেন কামাল, নজরুল জাহান, ডা. কল্যাণ বড়ুয়া, কাঞ্চনা চক্রবর্তী, হুমায়ুন আবিদ, কাজী মোহাম্মদ শাহজাহান, সাজিব চৌধুরী।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বাংলা একাডেমি পুরস্কার পেলেন রাশেদ রউফ"। মোহাম্মদ আব্দুল মালেক। দৈনিক আজাদী। ২০১৭-০১-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০১৭ 
  2. "Product Description"www.rokomari.com 
  3. "বাংলা একাডেমি পুরস্কার পেলেন রাশেদ রউফ"। dainikazadi। ২০১৭-০১-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০১-২৪