রাশাদ সাদিগভ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রাশাদ সাদিগভ
Rashad Sadygov8.JPG
২০১৫ সালে রাশাদ সাদিগভ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম রাশাদ অগলু সাদিগভ
জন্ম (1982-06-16) ১৬ জুন ১৯৮২ (বয়স ৩৭)
জন্ম স্থান বাকু, আজারবাইজান সোভিয়েত
সমাজতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র
উচ্চতা ১.৮১ মি (৫ ফু ১১ ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান সেন্টার ব্যাক
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব কারাবাগ
জার্সি নম্বর ১৪
যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন
১৯৯২–১৯৯৯ শারুর ফুটবল ক্লাব
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
২০০০–২০০১ তুরান তভুজ (০)
২০০১–২০০২ নেফতচি বাকু ২৪ (০)
২০০২–২০০৩ ফুলাদ ২০ (০)
২০০৩–২০০৫ নেফতচি বাকু ৬১ (১)
২০০৫–২০০৬ ক্যায়সেরিসপর ১০ (০)
২০০৬–২০০৮ নেফতচি বাকু ৪০ (৭)
২০০৮–২০০৯ কোকায়েসপর ১৬ (০)
২০০৯–২০১০ কারাবাগ ২০ (১)
২০১০ এস্কিসেহিরসপর (০)
২০১১– কারাবাগ ১৪৭ (৭)
জাতীয় দল
১৯৯৯–২০০০ আজারবাইজান অনূর্ধ্ব ১৮ (০)
২০০০–২০০১ আজারবাইজান অনূর্ধ্ব ২১ (০)
২০০১–২০১৭ আজারবাইজান[১] ১১১ (৫)
দলসমূহ পরিচালিত
২০১৬– কারাবাগ অনূর্ধ্ব ১৯
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং ১৯ আগস্ট ২০১৭ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

রাশাদ সাদিগভ (আজারবাইজানি: Rəşad Sadıqov; জন্ম: ১৬ জুন, ১৯৮২) হচ্ছেন আজারবাইজান এর একজন ফুটবলার, যিনি বর্তমানে কারাবাগ এর অধিনায়ক হিসেবে খেলেন।

রাশাদ সাদিগভ ১১১ খেলোয়াড়ের সঙ্গে আজারবাইজান জাতীয় দলের ইতিহাসে সর্বাধিক ম্যাচ খেলা খেলোয়াড় এবং ২০০৭ থেকে ২০১৭ সালের শেষ পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর সময় পর্যন্ত তিনি দলের নেতৃত্ব প্রদান করেছেন। রাশাদ সাদিগভ ব্যাপকভাবে স্বাধীন আজারবাইজান ইতিহাসে শক্তিশালী খেলোয়াড়দের একজন হিসাবে স্বীকৃত পেয়েছেন। তিনি ছয় বার জাতীয় লিগ শিরোপা জিতেছেন এবং পাঁচবার সেরা ফুটবলার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

রাশাদ সাদিগভ মাত্র ১০ বছর বয়সে ভ্যাজিফ পাশায়েভ যুব ফুটবল ক্রীড়া বিদ্যালয় এ তার ফুটবল খেলা শুরু করেন।[২] তিনি শারুর ক্লাব, এয়ার ফোর্স দল এবং রিয়েল বাকু ক্লাবের জন্য ফুটবল খেলায় সময় ব্যয় করেন, এই সকল ক্লাব বাকু এর অন্তর্গত।[২]

ক্লাব ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

২০১৩–১৪ মৌসুমে রাশাদ সাদিগভ এর শার্ট

২০০০ সালে, রাশাদ সাদিগভ পিএফসি তুরান তভুজ এর সঙ্গে তার প্রথম পেশাদারী চুক্তি স্বাক্ষর করে, কিন্তু সেখানে মাত্র নয়টি গেম খেলেছে। সেই সময়ে, তিনি আজারবাইজানের অনূর্ধ্ব ২১ ফুটবল দলের জন্যও খেলেছিলেন। ২০০০-০১ মৌসুমের শেষে ডিফেন্ডারকে পিএফসি নেফতচি বাকু তার দল কাছে হস্তান্তর করে দেয়।

তিনি ২০০২ সালে ইরানের প্রিমিয়ার ফুটবল লীগ এর দল ফুলাদ ফুটবল ক্লাব এর সাথে পেশাদারী চুক্তি স্বাক্ষর করেন। আবার পিএফসি নেফতচি বাকু এ ফিরে আসার পর, রাশাদ সাদিগভ জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ এবং কাপ জেতেন এবং চ্যাম্পিয়ন্স লীগের প্রথম চূড়ান্ত চ্যাম্পিয়নশিপকে কালো ও সাদা দিয়ে পাশ করার জন্য সফল হন। তিনি পিএফসি নেফতচি বাকু এর জন্য ইউরোপীয় কাপে ৮ টি গেম খেলেছেন (২টি উয়েফা কাপে, ২টি উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ এ এবং ৪টি উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ এর বাছাইপর্বে)।

২০০৫–০৬ সালে তিনি ক্যায়সেরিসপর এর জন্য খেলতে তুরস্ক ভ্রমণ করেন। ২০০৬ সালের জানুয়ারিতে তিনি তৃতীয় বারের মতো পিএফসি নেফতচি বাকু এ ফিরে আসেন।[৩] তিনি ২০০৬–০৭ মৌসুমের শুরুতে একবার খেলেছিলেন, কিন্তু পিএফসি নেফতচি বাকু থেকে চলে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। রাশাদ সাদিগভ লক্ষ্য করেনি যে আজারবাইজান এর ফুটবল ফেডারেশন অ্যাসোসিয়েশন স্থানান্তর উইন্ডোর নির্দিষ্ট সময়সীমা পরিবর্তন করেছে, তাই তিনি তার ফিটনেস ধরে রাখতে বাস্কেটবল খেলতে শুরু করেন।[৪]

২৩ শে জানুয়ারি ২০০৯ তারিখে, রাশাদ সাদিগভ ডিসেম্বর ২০০৮ এ প্রধান কোচ হ্যানস-জর্গেন গেড এর দ্বারা পিএফসি নেফতচি বাকু থেকে বেরিয়ে আসার পর ছয় মাসের চুক্তিতে তুর্কি সুপার লীগ এর ক্লাব কোকায়েসপর এ যোগ দেন। ২৫ শে জানুয়ারী, ২০০৯ তারিখে, রাশাদ সাদিগভ হ্যাকটোপে এর বিরুদ্ধে ৪–০ জয়ের মাধ্যমে কোকায়েসপর এর হয়ে তার আত্মপ্রকাশ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "National Teams → appearances of Rəşad Sadıqov"। Eu-Football.info। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুন ২০১৪ 
  2. День рождения капитана сборной Азербайджана Рашада Садыхова (রুশ)
  3. "Neftchi scoop gold for Azerbaijan"। UEFA.com। ২০০৬-০১-৩০। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৪-২১ 
  4. "Sadygov kicks football into touch"। ১৪ মার্চ ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ নভেম্বর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]