বিষয়বস্তুতে চলুন

রাজেন্দ্রসিংজি জাদেজা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জেনারেল মহারাজ শ্রী রাজেন্দ্রসিংজি জাদেজা, ডিএসও
কমান্ডার-ইন-চীফ অব দ্যা আর্মি (সেনা সর্বাধিনায়ক)
কাজের মেয়াদ
১৪ জানুয়ারী ১৯৫৩ – ১ এপ্রিল ১৯৫৫
পূর্বসূরীজেনারেল কোদানদেরা মদপ্পা কারিয়াপ্পা
উত্তরসূরীসেনাবাহিনী প্রধান (চীফ অব দ্যা আর্মি স্টাফ)
সেনাবাহিনী প্রধান (চীফ অব দ্যা আর্মি স্টাফ)
কাজের মেয়াদ
১ এপ্রিল ১৯৫৫ – ১৪ মে ১৯৫৫
পূর্বসূরীনতুন কার্যালয়
উত্তরসূরীজেনারেল এসএম শ্রীনাগেশ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম(১৮৯৯-০৬-১৫)১৫ জুন ১৮৯৯
সারোদার, কাথিয়াওয়ার, নবনগর স্টেট, গুজরাত
মৃত্যু১ জানুয়ারি ১৯৬৪(1964-01-01) (বয়স ৬৪)
দাম্পত্য সঙ্গীমায়া কুনওয়ারবা
পুরস্কার ডিসটিংগুইশড সার্ভিস অর্ডার
সামরিক পরিষেবা
আনুগত্য ব্রিটিশ ভারত
 ভারত
শাখা ব্রিটিশ ভারতীয় সেনাবাহিনী
 ভারতীয় সেনাবাহিনী
কাজের মেয়াদ১৯২১-১৯৫৫
পদ জেনারেল
ইউনিট২য় ল্যান্সার্স (গার্ডনার্স হর্স)
কমান্ডসেনাবাহিনী প্রধান
কমান্ডার-ইন-চীফ অব দ্যা আর্মি
সাউদার্ন কমান্ড
ইস্টার্ন কমান্ড
ওয়েস্টার্ন কমান্ড (তখন নাম ছিলো 'দিল্লী এবং পূর্ব পাঞ্জাব কমান্ড')
২য় ল্যান্সার্স (গার্ডনার্স হর্স)
যুদ্ধদ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ
ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ ১৯৪৭

জেনারেল মহারাজ শ্রী রাজেন্দ্রসিংজি জাদেজা (১৫ জুন ১৮৯৯ - ১ জানুয়ারী ১৯৬৪) ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রথম প্রধান (চীফ অব দ্যা আর্মি স্টাফ) ছিলেন, তিনি ছিলেন জেনারেল কোদানদেরা মদপ্পা কারিয়াপ্পা'র পর দ্বিতীয় ভারতীয় যিনি ভারতীয় সেনাবাহিনীর সর্বোচ্চ পদে আসীন হন, তার সর্বোচ্চ পদটি ইংরেজি কমান্ডার-ইন-চীফ থেকে চীফ অব দ্যা আর্মি স্টাফ করা হয়।

সেনা জীবন

[সম্পাদনা]

১৯২১ সালে তিনি ব্রিটেনের রয়েল মিলিটারি কলেজ স্যান্ডহার্স্ট থেকে সেকেন্ড লেফটেন্যান্ট হিসেবে কমিশন পান একজন অনিয়মিত অফিসার হিসেবে। এক বছর তিনি কিংস রয়্যাল রাইফেল কোরের ৩য় ব্যাটেলিয়নে ছিলেন এবং পরে ২য় রাজকীয় ল্যান্সার্সে বদলী হয়েছিলেন। একজন 'কিংস কমিশন্ড ইন্ডিয়ান অফিসার' হিসেবে জাদেজা ব্রিটিশ ভারতীয় সেনাবাহিনীতে অনেক গুরুত্পূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত হয়েছিলেন এবং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ দক্ষতা দেখিয়েছিলেন।

জাদেজা ছিলেন প্রথম ভারতীয় যিনি যুক্তরাষ্ট্রে মিলিটারি এ্যাটাশে হিসেবে ১৯৪৫-৪৬ সালে দায়িত্ব পালন করেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ

[সম্পাদনা]

১৯৪১ সালে রাজেন্দ্রসিংজি জাদেজাকে ২য় ল্যান্সার্সের একটি স্কোয়াড্রন অধিনায়ক হিসেবে ভূমধ্যসাগর-মধ্যপ্রাচ্য থিয়েটার'এ পাঠানো হয়। তার এই স্কোয়াড্রনটি ৩য় ভারতীয় মোটর ব্রিগেডের অধীনে ছিলো। জাদেজা এই যুদ্ধে তার অবদানের স্বরূপ 'ডিসটিংগুইশড সার্ভিস অর্ডার' পদক লাভ করেছিলেন এবং ভারতীয় সেনা কর্মকর্তাদের মধ্যে তিনিই সর্বপ্রথম এই পদকপ্রাপ্ত হন ১৯৪১ সালে।[১]

স্বাধীন ভারত

[সম্পাদনা]

১৯৪৬ সালে জাদেজা ব্রিগেডিয়ার হন, ১৯৪৭ এ মেজর-জেনারেল এবং ১৯৪৮ সালে লেঃ জেনারেল পদে উন্নীত হন। তিনি সফলভাবে 'দিল্লী এন্ড ইস্ট পাঞ্জাব কমান্ড' এর জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (১৯৪৭-৪৮); জেনারেল অফিসার কমান্ডিং-ইন-চীফ অব ইস্টার্ন কমান্ড (১৯৪৮) এবং সাউদার্ন কমান্ডের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং-ইন-চীফ (১৯৪৮-১৯৫৩) এর দায়িত্ব পালন করেন।

কোদানদেরা মদপ্পা ক্যারিয়াপ্পার পরে জাদেজাই ছিলেন সবচেয়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা; ক্যারিয়াপ্পা অবসরে গমন করলে জেনারেল জাদেজা ১৪ জানুয়ারী ১৯৫৩ তারিখে কমান্ডার-ইন-চীফ অব দ্যা ইন্ডিয়ান আর্মি নিযুক্ত হন। ১৯৫৫ সালের ১ এপ্রিল 'কমান্ডার-ইন-চীফ অব দ্যা আর্মি' পদটি 'চীফ অব দ্যা আর্মি স্টাফ' নামে পরিবর্তিত হয়ে যায়; ঠিক এই অনুযায়ীই জেনারেল রাজেন্দ্রসিংজি ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রথম প্রধান বিবেচিত হন। ১৯৫৫ সালের ১৪ই মে পর্যন্ত জেনারেল রাজেন্দ্রসিংজি সেনাপ্রধানের দায়িত্বে ছিলেন এবং তিনি জেনারেল এস এম শ্রীনাগেশ দ্বারা স্থলাভিষিক্ত হন। জেনারেল রাজেন্দ্রসিংজি ১৯৬৪ সালের ১ জানুয়ারী মারা যান।

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. London Gazette 9 September 1941

বহিঃসযোগ

[সম্পাদনা]