রঘুনাথ মুর্মু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(রঘুনাথ মুর্মূ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
রঘুনাথ মুর্মূ
মির্মূ'র প্রস্তর মূর্তি, উপজাতি উন্নয়ন সমাজের (OTDS) ভুবনেশ্বর দপ্তর, ওড়িশা
মির্মূ'র প্রস্তর মূর্তি, উপজাতি উন্নয়ন সমাজের (OTDS) ভুবনেশ্বর দপ্তর, ওড়িশা
জন্ম(১৯০৫-০৫-০৫)৫ মে ১৯০৫
ময়ুরভঞ্জ জেলা, ওড়িশা, ভারত
মৃত্যু১ ফেব্রুয়ারি ১৯৮২(1982-02-01) (বয়স ৭৬)
পেশাভাবাদর্শী, নাট্যকার, ও লেখক
জাতীয়তাভারতীয়
বিষয়লেখক ও ভাষাতত্ত্ববিদ

পণ্ডিত রঘুনাথ মুর্মূ (5 মে, ১৯০৫, ডহরাডিহি, ময়ূরভঞ্জ, ওড়িশা – ১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৮২[১]) একজন ভাষাতত্ত্ববিদ, লেখক, নাট্যকার ও সাঁওতালি ভাষায় ব্যবহৃত "অলচিকি" লিপির উদ্ভাবক ছিলেন।[২][৩][৪]

জীবন সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

পণ্ডিত রঘুনাথ মুৰ্মু

মুর্মূ ১৯০৫ সালের ১৬ মে এক পূর্ণিমা তিথিতে ভারতের ওড়িশা রাজ্যের ময়ুরভঞ্জ জেলার রায়রঙ্গপুর থানার অন্তর্গত ডহরাডিহি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাবার নাম সিদো(নন্দলাল) মুর্মু ও মাতার নাম সলমা(সুমি) হাঁসদা। তিনি ১৯২৫ সালে অলচিকি লিপি উদ্ভবনের পর সেই লিপিতেই সাঁওতালি ভাষায় বিভিন্ন নাটক, কবিতা ও বই লেখেন। ১৯৭৭ সালে ঝাড়গ্রামের বেতাকুন্দরিডিহিতে তিনি একটি সাঁওতালি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা করেন।[৫][৬] রাঁচির ধুমকুরিয়া কর্তৃক তার আদিবাসী সাহিত্যে অবদানের জন্য তাকে ডি. লিট উপাধি প্রদান করা হয়। চারুলাল মুখোপাধ্যায় মুর্মূকে একজন ধার্মিক এবং আরেকজন আদিবাসী লেখক মার্টিন ওঁরাও তার দি সান্থাল - এ ট্রাইব ইন সার্চ অব দি গ্রেট ট্রাডিশন গ্রন্থে তাকে সাঁওতালদের মহান শিক্ষক হিসেবে উল্লেখ করেন। সেই থেকে তিনি আদিবাসীদের কাছে গুরু গোমকে[৭] (অর্থাৎ "মহান শিক্ষক") নামে খ্যাতি অর্জন করেন। রঘুনাথ মুর্মূ ১৯৮১ সালের ১লা ফেব্রুয়ারি পরলোক গমন করেন।[৮]

উল্লেখ্য রচনা[সম্পাদনা]

  • বিদু চাঁদান(নাটক)
  • দাড়ে গে ধন(নাটক)
  • খেরওয়ার বীর(নাটক)
  • সিদো কানহু সান্তাড় হুল(নাটক)
  • হড় সেরেঞ (কাব্য)
  • হিতল(কাব্য)
  • বাহা সেরেঞ (কাব্য)
  • এলখা পতব

পুরস্কার[সম্পাদনা]

  • ওড়িশা সাহিত্য অ্যাকাডেমি সংবর্ধনা[৭] (১৯৭৮)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Pandit Raghunath Murmu"anagrasarkalyan.gov.in (ইংরেজি ভাষায়)। ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৬ 
  2. Published Book ALANG GAR
  3. http://orissa.gov.in/e-magazine/Orissareview/2010/August/engpdf/47-49.pdf
  4. http://orissa.gov.in/e-magazine/Orissareview/2011/aug/engpdf/51-52.pdf
  5. "সাঁওতালি বিশ্ববিদ্যালয়" (ইংরেজি ভাষায়)। ২০ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৬ 
  6. ସମ୍ବାଦ ୧୯/୦୪/୨୦୧୩ ପୃଷ୍ଠା ୪ରେ ପ୍ରକାଶିତ ଖବର, ଅଲଚିକି ସ୍ରଷ୍ଟାଙ୍କ ସ୍ମୃତିରକ୍ଷା : ଓଡ଼ିଶାଠାରୁ ପଶ୍ଚିମବଙ୍ଗ ଆଗରେ
  7. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০২০ 
  8. "ସାନ୍ତାଳୀ ଭାଷାର ପ୍ରଜ୍ଞାପୁରୁଷ"ସମ୍ବାଦ ୦୧/୦୨/୨୦୧୬ ଭୁବନେଶ୍ଵର ସଂସ୍କରଣ ପୃଷ୍ଠା ୪ (ওড়িয়া ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]