যাঁতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

যাঁতি বা জাঁতি এক প্রকার সরল যন্ত্র, সাধারণত সুপারি কাটার কাজে ব্যবহৃত হয়। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে এর প্রচলন দেখা যায়।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] বাংলাদেশে এলাকাভেদে এর বিভিন্ন নাম প্রচলিত, যেমন: সিলেট অঞ্চলে এর নাম ছুৎরা (সুত্‌রা), ঢাকায় এর নাম স্রোতা বা শ্রোতা। যান্ত্রিক কার্যক্রমের বিচারে যাঁতি অনেকটা কাপড় কাটার কাচির মতো কাজ করে। এর দুটো অংশ থাকে, একটি অংশ ধারালো, এবং অপর অংশটি ভোঁতা। সাধারণত ধারালো অংশটি উপরে থাকে, আর ভোঁতা অংশটি নিচে। উভয় অংশই একেবারে প্রান্তে একটি ছোট লোহার পেরেক-জাতীয় গঁজাল দিয়ে আটকানো থাকে। যে প্রান্তে অংশদ্বয় আটকানো থাকে, তার অন্য প্রান্তে সাধারণত হাত বসানোর উপযোগী করে গোলাকৃতি হাতল থাকে। সুপারি বা এজাতীয় বস্তু উভয় অংশের মাঝখানে রেখে হাতলে চাপ প্রয়োগ করা হয় এবং ধারালো অংশটি ঐ বস্তুকে কেটে ফেলে। অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে ব্যক্তিবিশেষে এই কাটার ধরণে পার্থক্য হয়। কেউ কেউ বস্তুকে খুব ছোট করে কাটতে পারেন, কেউ যাঁতি ব্যবহারে দক্ষ নন। যাঁতি সাধারণত লোহা দিয়ে তৈরি হয়, এছাড়া পিতল দিয়েও যাঁতি তৈরি হতে দেখা যায়। ইদানিং সংকর ধাতুর যাঁতিও তৈরি হয়ে থাকে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]