ম্যাট হেন্ডারসন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ম্যাট হেন্ডারসন
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম(১৮৯৫-০৮-০২)২ আগস্ট ১৮৯৫
অকল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড
মৃত্যু১৭ জুন ১৯৭০(1970-06-17) (বয়স ৭৪)
লোয়ার হাট, ওয়েলিংটন, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনবামহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ )
১০ জানুয়ারি ১৯৩০ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪১
রানের সংখ্যা ৪৯৫
ব্যাটিং গড় ৮.০০ ১৪.১৪
১০০/৫০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৪৭
বল করেছে ৯০ ৬৬৪৯
উইকেট ১০৭
বোলিং গড় ৩২.০০ ২৯.৯০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/৩৮ ৬/৭০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/- ১২/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২২ জুন ২০১৯

ম্যাথু হেন্ডারসন (ইংরেজি: Matt Henderson; জন্ম: ২ আগস্ট, ১৮৯৫ - মৃত্যু: ১৭ জুন, ১৯৭০) অকল্যাণ্ডে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা নিউজিল্যান্ডীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৩০ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটে ওয়েলিংটন দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে কার্যকরী ব্যাটিংশৈলী উপস্থাপন করেছিলেন ম্যাট হেন্ডারসন

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯২১-২২ মৌসুম থেকে ১৯৩১-৩২ মৌসুম পর্যন্ত ম্যাট হেন্ডারসনের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ১৯২৭ থেকে ১৯৩২ সময়কালে ওয়েলিংটনের পক্ষে প্রতিনিধিত্বমূলক খেলায় অংশ নিতেন। ১৯২১-২২ মৌসুমে ওয়েলিংটনের সদস্যরূপে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে ম্যাট হেন্ডারসনের অকল্যাণ্ডের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত নিজস্ব দ্বিতীয় খেলায় ৫/৬৬ লাভ করেন।[১] ১৯২৬-২৭ মৌসুমে দুই খেলায় অংশ নিয়ে ১৭.৭৫ গড়ে ১২ উইকেট দখল করেন।[২] তন্মধ্যে, অকল্যান্ডের বিপক্ষে ৬/৭০ লাভ করেছিলেন তিনি।[৩]

১৯২৭ সালে টম লরি’র নেতৃত্বাধীন নিউজিল্যান্ড দলের সদস্যরূপে ইংল্যান্ড গমন করেন। তবে, ঐ সফরে কোন টেস্ট খেলা ছিল না। ঐ সফরে ২৪.২১ গড়ে ৩৩টি প্রথম-শ্রেণীর উইকেট পান। তন্মধ্যে, সিভিল সার্ভিসের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সেরা ৫/২৭ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েন।[৪] এছাড়াও, লিচেস্টারশায়ারের বিপক্ষে ৫/৭৬ পেয়েছিলেন।[৫] উইজডেনের ভাষ্যমতে, তার বোলিং অনেকাংশেই ছন্নছাড়া ছিল।[৬]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করার সুযোগ লাভ করেছিলেন ম্যাট হেন্ডারসন। ১০ জানুয়ারি, ১৯৩০ তারিখে ক্রাইস্টচার্চে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার।

জানুয়ারি, ১৯৩০ সালে হ্যারল্ড জিলিগানের নেতৃত্বে ইংরেজ দল নিউজিল্যান্ড গমন করে। এ সফরেই নিউজিল্যান্ড দল তাদের ইতিহাসের প্রথম টেস্টে অংশ নেয়। ৩৪ বছর বয়সে ক্রাইস্টচার্চে নিজস্ব একমাত্র টেস্টে অংশ নিয়েছিলেন ম্যাট হেন্ডারসন। প্রথম বলেই এডি ডসনকে আউট করে বিরল কৃতিত্ব প্রদর্শন করেন।[৭] . এরপর ইংরেজ দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী কে. এস. দিলীপসিংজী’র অপর উইকেটটি পান। কিন্তু, নিউজিল্যান্ড দল দুইদিনের পরাজয় স্বীকার করে নেয়। ফলে, ওয়েলিংটনের দলীয় সঙ্গী ও অল-রাউন্ডার এডি ম্যাকলিওডকে তার স্থলাভিষিক্ত করা হয়।

অবসর[সম্পাদনা]

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঐ টেস্ট খেলার পর আর তাকে নিউজিল্যান্ড দলে খেলতে দেখা যায়নি। ১৯৩২ সালে ওয়েলিংটনের পক্ষে আরও তিন খেলায় অংশ নিয়ে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট থেকে অবসর গ্রহণ করেন। ওয়েলিংটন ক্লাব ক্রিকেটে দীর্ঘ সময় ধরে খেলেন। এ পর্যায়ে ২১.৯০ গড়ে ৩৩৩ উইকেট পেয়েছিলেন।[৮]

১৭ জুন, ১৯৭০ তারিখে ৭৫ বছর বয়সে ওয়েলিংটনের লোয়ার হাটে ম্যাট হেন্ডারসনের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]