মোহাম্মদ মানজারুল ইসলাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
মানজারুল ইসলাম
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম মোহাম্মদ মানজারুল ইসলাম
জন্ম (১৯৭৯-১১-০৭) ৭ নভেম্বর ১৯৭৯ (বয়স ৩৮)
খুলনা, খুলনা জেলা, বাংলাদেশ
ডাকনাম মনজু
ব্যাটিংয়ের ধরন বা-হাতি ব্যাটসম্যান
বোলিংয়ের ধরন বা–হাতি ফাস্ট–মিডিয়াম
ভূমিকা বোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৩)
১৯ এপ্রিল ২০০১ বনাম জিম্বাবুয়ে
শেষ টেস্ট ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০০৪ বনাম জিম্বাবুয়ে
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৪৪)
১৬ মার্চ ১৯৯৯ বনাম পাকিস্তান
শেষ ওডিআই ১৭ এপ্রিল ২০০৩ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছর দল
২০০০/০১–২০০৭/০৮ খুলনা বিভাগ
২০০৮/০৯–বর্তমান ঢাকা ওয়ারিয়র্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টৈস্ট ওডিআই এফসি লিস্ট এ
ম্যাচ সংখ্যা ১৭ ৩৪ ৫১ ৭৭
রানের সংখ্যা ৮১ ৫৩ ৩৮৬ ১৪৮
ব্যাটিং গড় ৩.৬৮ ৫.৮৮ ৭.০১ ৬.৭২
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ২১ ১৩ ৪৯* ১৭
বল করেছে ২৯৭০ ১৫৯১ ৭৫২৮ ৩৫৭৭
উইকেট ২৮ ২৪ ৯১ ৭৭
বোলিং গড় ৫৭.৩২ ৫৩.৫০ ৪০.১৫ ৩২.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট n/a -
সেরা বোলিং ৬/৮১ ৩/৩৭ ৬/২৭ ৪/৪১
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৪/– ৮/– ১৭/– ২৩/–
উৎস: ক্রিকেট আর্কাইভ, ১৩ মার্চ ২০০৯

মোহাম্মদ মানজারুল ইসলাম (মাঝে মাঝে মঞ্জুরুল) ইসলাম (জন্ম: নভেম্বর ৭, ১৯৭৯) হলেন একজন বাংলাদেশী ক্রিকেটার যিনি ১৯৯৯ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত ১৭টি টেস্ট ক্রিকেট এবং ৩৪টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন । তিনি একজন বাহাতি সিম বোলার।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

মানজারুল ইসলাম জিম্বাবুয়ে বিরুদ্ধে বুলাওয়েতে এপ্রিল ২০০১ সালে তার টেস্ট অভিষেক ম্যাচে ৮১ রানে ৬ উইকেট নিয়ে তার সেরা ইনিংস পরিসংখ্যান গড়েন।[১] তিনি ১৯৯৯ এবং ২০০৩ সালের উভয় বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন।

২০০৯ সালে তিনি নতুন দল "ঢাকা ওয়ারিয়র্স" এর হয়ে Indian Cricket League (ICL)-এ অংশগ্রহণ করার জন্য বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেট ত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নেন;[২] এজন্য তাকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ১০ বছরের জন্য বাংলাদেশের সরকারি ক্রিকেট ম্যাচ খেলা থেকে নিষিদ্ধ করে।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "1st Test: Zimbabwe v Bangladesh at Bulawayo, Apr 19-22, 2001"espncricinfo। সংগৃহীত ২০১১-১২-১৩ 
  2. Nagraj Gollapudi (১৬ সেপ্টেম্বর ২০০৮)। "Bashar leads Bangladesh exodus"Cricinfo। সংগৃহীত ২০০৯-০৩-১৩ 
  3. Ajay S Shankar (১৭ সেপ্টেম্বর ২০০৮)। "Bangladesh bans ICL recruits for 10 years"Cricinfo। সংগৃহীত ২০০৯-০৩-১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]