মোসাদ্দেক আলী ফালু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মোহাম্মদ মোসাদ্দেক আলী ফালু
মোসাদ্দেক আলী ফালু
Mosaddek Ali Falu Photo.jpg
জন্ম
ফালু

(1960-04-07) ৭ এপ্রিল ১৯৬০ (বয়স ৬০) [১]
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্ববাংলাদেশ
শিক্ষাস্নাতক (সম্মান)
মাতৃশিক্ষায়তনঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাশিল্প উদ্যোক্তা
কর্মজীবন২০০১-২০০৬
পরিচিতির কারণগণমাধ্যম ব্যবাসায়ী
আদি নিবাসঢাকা
উপাধিচেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, এনটিভি (বাংলাদেশ)
দাম্পত্য সঙ্গীমাহবুবা সুলতানা
সন্তানরোজা আলী (কন্যা)
পিতা-মাতাআলহাজ্জ আবদুল মান্না (পিতা)
রেমন বিবি (মা)
ওয়েবসাইটwww.mosaddakali.com

মোহাম্মদ মোসাদ্দেক আলী ফালু (জন্ম ৭ এপ্রিল ১৯৬০) [১] একজন বাংলাদেশী উদ্যোক্তা এবং একজন রাজনীতিবিদ [২] যিনি বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য ছিলেন। [৩] তিনি ২০০১ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত সে সময়ের বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। [৪] নতুন ও অত্যন্ত সম্ভাব্য শিল্প খাতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী স্থানীয় সরকার ও বেসরকারি খাতের উন্নয়নের জন্য বিশেষ সম্পর্ক ও অংশীদারত্ব গড়ে তোলার জন্য তিনি অবদান রেখেছেন এবং স্থানীয় শিল্পে নতুন পণ্য ও সেবা চালু করার সময় তিনি বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাড়িয়েছিলেন। ফালু ২০০৩ সালে, বাংলাদেশের প্রথম অটোমেশন ভিত্তিক বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন স্টেশন ইন্টারন্যাশনাল টেলিভিশন চ্যানেল লিমিটেড (এনটিভি) চালু করে । তিনি আরও একটি বেসরকারি স্যাটেলাইট চ্যানেল আরটিভি এবং বাংলা দৈনিক পত্রিকা দৈনিক আমার দেশ প্রতিষ্ঠা করেন । তিনি টেলিভিশন চ্যানেল মালিকদের (এসটিসিও) সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। [৫]

প্রাথমিক জীবন এবং শিক্ষা[সম্পাদনা]

ফালু ৭ এপ্রিল ১৯৬০ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা আলহাজ আব্দুল মান্নান ছিলেন একজন ব্যবসায়ী ও সমাজকর্মী এবং মাতা মিসেস রামন বিবির একজন গৃহিনী। ছয় ভাই-বোনের মধ্যে মোসাদ্দক আলী ফালু ছিলেন সবার ছোট। তিনি মাহবুব সুলতানার বিয়ে করেন। দাম্পত্য জীবনে তার এক মেয়ে রয়েছে। যার নাম রোজা আলী। তিনি ডন জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয় (যা ১৯৭১ সালের যুদ্ধের সময় বন্ধ ছিল) এ তার স্কুল জীবন শুরু করেন এবং তারপর তিনি শাহজাহানপুর রেলওয়ে কলোনী উচ্চ বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করেন। তিনি ১৯৮০ সালে ঢাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।

রাজনৈতিক পেশা[সম্পাদনা]

আলী ১৯৭৯ সালে রাজনীতিতে যোগ দেন এবং ১৯৮০ এর দশকে এরশাদ বিরোধী-স্বৈরাচার আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। তিনি (১৯৯১ থেকে ১৯৯৬) প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত সচিব ছিলেন। [৬] খালেদা জিয়া ১৯৯০ সালের গণআন্দোলনের নেতৃত্ব দেন, যার ফলে এইচ এম এরশাদ [৭] পতন ঘটে এবং তিনি দেশের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হন। ১৯৯১ সালে নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার জন্য তার দল ক্ষমতায় আসে। [৮] ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আলী বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক সচিব এবং সংসদ বিরোধী দলের নেতা ছিলেন। বিএনপির নেতৃত্বাধীন চার দলীয় জোট যখন ২ অক্টোবর, ২০০১ সালের সাধারণ নির্বাচনে দুই তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছিল [৯] এবং খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ করেছিলেন,[১০] আলীকে তার রাজনৈতিক সচিব নিয়োগ করা হয়, তিনি যে পদে ছিলেন তার ২০০৪ সালে ঢাকায় একটি উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য তিনি পদত্যাগ করেন। পরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতিত্বে ফারুকে ভাইস প্রেসিডেন্ট মনোনিত করা হয়। [১১] যদিও তিনি ওই পদ থেকে পদত্যাগ করেন [১২], তার নাম এখনো কেন্দ্রীয় কমিটিতে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে রয়েছে। খালেদা জিয়া ও ফালু কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার পর তত্ত্বাবধায়ক সরকার শেষ হয়ে গেলে ফালু খালেদা জিয়ার ঘনিষ্ঠ সহযোগী ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের পঞ্চম জাতীয় কাউন্সিলের পর এখন ২২ সদস্য বিশিষ্ট [১৩] উপদেষ্টা পরিষদে নির্বাচিত হন[১৪][১৫][১৬]

সংসদ সদস্য[সম্পাদনা]

ফালু ঢাকা -১০ (রমনা-তেজগাঁও) উপনির্বাচনে প্রার্থী হিসাবে বিএনপি মনোনীত বিএনপি, এবং তিনি নির্বাচনে জয়ী হন [১৭] । ৩ জুলাই, ২০০৪ তারিখে তৎকালীন স্পিকার জমির উদ্দীন সরকারের সংসদ সদস্য (এমপি) হিসাবে শপথ গ্রহণ করেন এবং এমপি হিসেবে সংসদে সক্রিয় হন। খালেদা জিয়ার জোটবদ্ধ নির্বাচনী কৌশলের আলোকে [১৮] ফালুকে ২০০৪ উপ-নির্বাচনে এর থেকে প্রতিদ্বন্দিতা করতে অনুমতি দেয়া হয়। ঢাকা-১০ আসনে যখন বিএনপি সাংসদ এম এ মান্নান যখন দলত্যাগ করে বিকল্প ধারা বাংলাদেশ চলে যান। তখন আসনটি শূন্য হয় এবং ফালু এতে নির্বাচিত হন। [১৯]

শিল্প উদ্যোক্তা[সম্পাদনা]

ফালু ১৯৮০-এর দশকের মাঝামাঝি ব্রাদারহুড এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড প্রতিষ্ঠা করেন। এখন তিনি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেডের সদস্য, এমএইচ সিকিউরিটিজ লিমিটেডের নিজস্ব সিকিউরিটিজ কোম্পানির চেয়ারম্যান [২০] । তার পরবর্তী বিনিয়োগগুলিতে সিরামিক, ইস্পাত ফ্যাব্রিকেশন উত্পাদন সংস্থা এবং স্বাস্থ্যসেবা গ্রাহক পণ্য উৎপাদন সংস্থা নির্মাণের জন্য চীনের সঙ্গে একটি যৌথ উদ্যোগ অন্তর্ভুক্ত। বর্তমানে তিনি ঢাকা-সাংহাই সিরামিক্স লিমিটেডের চেয়ারম্যান। তিনি রোজা প্রোপার্টিসের চেয়ারম্যান, রোজা অ্যাগ্রো লিমিটেডের চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন ইন্সুরেন্স কোম্পানি লি। এর রোজা পরিচালক, রাকেইন ডেভেলপমেন্ট কো। (বিডি) লিমিটেডের পরিচালক, এসএম আবসন লিমিটেডের পরিচালক, আশলাও হাউজিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের পরিচালক।, স্টার পোরসেলাইন লিমিটেডের পরিচালক [২১] এবং রোজা ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক লিমিটেডের চেয়ারম্যান ড। । কক্স টুডে লিমিটেডের প্রাক্তন চেয়ারম্যান, ব্রাদারহুড এন্টারপ্রাইজ লিমিটেডের প্রাক্তন চেয়ারম্যান, বিল ট্রেড স্ট্রাকচার লি। এর সাবেক চেয়ারম্যান, ব্রাদারহুড সিকিউরিটিজ লিমিটেডের প্রাক্তন চেয়ারম্যান, বিল ট্রেড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেডের সাবেক চেয়ারম্যান ও বিল্ড ট্রেড কালার কোট লিমিটেডের প্রাক্তন চেয়ারম্যান। । তিনি ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেড (আইএফআইসি ব্যাংক) এর সাবেক চেয়ারম্যান ছিলেন।

গণমাধ্যম ব্যবসা[সম্পাদনা]

এনটিভি[সম্পাদনা]

আলীর পাশাপাশি এনটিভির 1২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেকের কাটিয়া কাটিয়ে দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা

ফালু বাংলা ভাষার চ্যানেল ইন্টারন্যাশনাল টেলিভিশন চ্যানেল লিমিটেড (এনটিভি)-এর চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ৩ জুলাই ২০০৩ এ প্রথম ঢাকা ভিত্তিক বেসরকারি সেক্টর চ্যানেলে আর্ট টেকনোলজির সাথে এনটিভি যুক্ত হয়। [১] এনটিভির মিশন বিবৃতিতে এনটিভি জানিয়েছে, এটি 'সাময়ের সাথ আগামির পথে' (বর্তমানের স্রোতের পাশাপাশি ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যাওয়া) স্লোগানটির সাথে কাজ করে এবং "বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতি" সমর্থন করে। এটি বলে যে এটি পুরুষ ও মহিলাদের মৌলিক সমতা এবং নাগরিকদের আচরণে রাষ্ট্রের বৈষম্যমূলক ভূমিকা পালন করে এবং এভাবে "নৈতিক সাংবাদিকতা" অনুসরণ করার চেষ্টা করে। নিরপেক্ষ ও ব্যাপক সংবাদ ও বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান প্রদান করে এনটিভি নিজেই বাংলাদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় বাংলা ভাষার টিভি চ্যানেলগুলির একটি হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এটি সব প্ল্যাটফর্মের মধ্যে - টিভি, ইন্টারনেট এবং মোবাইল ভার্সনে সম্প্রচার হয়। প্রথম বাংলাদেশী চ্যানেল হিসেবে এনটিভি ২০১১ সালে সম্প্রচার ব্যবস্থাপনার জন্য "অসামান্য অবদানের" জন্য একটি আইএসও ৯০০১-২০০৮ সনদ অর্জন করে। এনটিভির চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসবে ফালু ২০০৪ সালে আমেরিকা , ২০০৫ সালে কানাডা, ২০১০ সালে যুক্তরাজ্যইউরোপ, ২০১৪ সালে এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত ২০১৪ সালে সিডনিতে তার অফিস চালু করে। । এনটিভি বিশ্বব্যাপী সম্প্রচার টিভি চ্যানেল। খবর, মতামত, ছবি, ভিডিও, টক শো, নাটক, সংগীত প্রোগ্রাম, রিয়ালিটি শো এবং ফ্যাশন শো যা এনটিভির দ্বারা প্রচারিত হয়। এনটিভি এনটিভি অনলাইন ওয়েবসাইটে পাওয়া যায় [২২]ইউটিউব, দ্বিতীয়বারের জন্য 'ইউটিউব সিলভার প্লে বাটন' ট্রফি দিয়ে এটি এনটিভি অনলাইনকে সম্মানিত করে। এনটিভি অনলাইন প্রথম এবং একমাত্র বাংলাদেশি ডিজিটাল আউটলেট যা ইউটিউব থেকে সম্মানিত পুরস্কার পেয়েছে। [২৩] বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএএ) দেশে এবং বিদেশে জনপ্রিয় হওয়ার জন্য বাংলাদেশের সেরা অনলাইন পোর্টাল হিসেবে এনটিভি অনলাইনকে ভূষিত করেছে। [২৪]

আরটিভি[সম্পাদনা]

ফালু ডিসেম্বর ২০০৫ তার দ্বিতীয় টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভি চালু করেন। তিনি বাংলাদেশে প্রথম ২৪ ঘণ্টার সম্প্রচার টিভি চ্যানেল, আরটিভির সাবেক চেয়ারম্যান। [২৫]

আমার দেশ[সম্পাদনা]

ফালু ২০০৪ সালে দৈনিক আমার দেশ পত্রিকা চালু করেন। তিনি দৈনিক আমার দেশের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ছিলেন। পত্রিকাটির বর্তমান প্রকাশনা বন্ধ আছে [২৬]

লেখক[সম্পাদনা]

ফালু একজন লেখক হিসেবে ৭টি বই লিখেছেন এগুলো হলো:

সামাজিক কর্ম[সম্পাদনা]

ফালু ঢাকা ক্লাব, উত্তরা ক্লাব, কুর্মিটোলা গল্ফ ক্লাব, অল কমিউনিটি ক্লাব, জাতীয় প্রেসক্লাব (বাংলাদেশ) [২৭], বারিধারা সমাবর্তন ক্লাব এবং ঢাকা নৌকা ক্লাবের সদস্য। তিনি ২৩ বছর ধরে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। [২৮] মোসাদ্দক আলী ফাউন্ডেশন নামে তার প্রতিষ্ঠিত একটি নিয়ন্ত্রক সংস্থা রয়েছে। এর নিয়ন্ত্রণে আবদুস সোবহান মাদ্রাসা ও এতিমদের জন্যে রামন বিবি মহিলা মাদ্রাসা ও আবদুল মান্নান ডিগ্রি কলেজ, সাভার, ঢাকা; শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্র (মাদার অ্যান্ড চাইল্ড হেলথ সেন্টার) সাভার, ঢাকা; এবং মাহবুবা চাইল্ড কেয়ার সাভার, ঢাকা রয়েছে। এগুলোর প্রতিষ্ঠাতা ফালু।

সমালোচনা[সম্পাদনা]

জানুয়ারী ২০০৭ সালে ইয়াজউদ্দীন আহমেদের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পদত্যাগের পর এবং সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনের পর ফালু দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া প্রথম ব্যক্তিদের মধ্যে ছিলেন - তিনি ৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ এ গ্রেফতার হন। [২][৪][২৯] অনেক রাজনীতিবিদ গ্রেফতার হলে তাকে আটক করা হয়। রিপোর্টারস ব্যান্ডারস তার রিপোর্টে তার নাম উল্লেখ করেছে যা দুর্নীতি বিরোধী দুর্নীতির পরে "অন্যায় গ্রেপ্তারের অভিযোগ" প্রকাশ করেছে। [৩০] তারপরে সরকারের ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে অপব্যবহারের অভিযোগ আনা হয় এবং মামলায় পাঁচ বছর জেল হয়। হাইকোর্ট তার আটক অবৈধ ঘোষণা করে এবং তাকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয় [৩১] হাইকোর্ট ফালুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা স্থগিত। সুপ্রিম কোর্ট হাইকোর্টের রায়কে ত্রাণ দমনের অভিযোগ থেকে বাদ দিয়েছিল। ২০০৭ ও ২০০৮ এর মধ্যে তিনি [২] আতঙ্কের ভিত্তিতে দোষী প্রতিষ্ঠান [২][৪] ছিলেন। [২] রিলিফ স্ক্যাম মামলায় ফালুকে বিতাড়িত করে হাইকোর্ট! [৩২] ২০১১ সালের শেয়ারবাজারের ঘুষের তদন্ত কমিটি তাদের স্বার্থে ক্ষয়ক্ষতির অভিযোগে জড়িত ২০ জন ব্যক্তির মধ্যে ফালুকে অভিযুক্ত করা হয় [৩৩][৩৪] তদন্ত কমিটির চেয়ারম্যান খন্দকার ইব্রাহিম খালেদ অভিযোগ অস্বীকার করেন। রিপোর্ট অনুযায়ী ফালুর বিরুদ্ধে বিশেষ প্রমাণ পাওয়া যায়। [৩৩] তদন্ত কমিটি ফালুকে চিকনিকের জন্য ব্যবহৃত একাধিক ওমনিবাস অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করার জন্য খুঁজে পেয়েছে। [৩৫] তবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন যে রাষ্ট্রটি আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযুক্তদের নাম প্রকাশ করবে না এবং আরও তদন্ত ছাড়াই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেবে না। [৩৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Profile of Top Management"। International Television Channel Ltd. (NTV)। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  2. "Falu stripped of division for hospital meet"The Daily Star। ৮ ডিসেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  3. "List of Members of 8th Parliament of Bangladesh Jatiyo Sangsad" (PDF)। Bangladesh Parliament। ১২ আগস্ট ২০১৩ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  4. Affairs, National Democratic Institute for International (১১ ফেব্রুয়ারি ২০০৭)। "NDI Election Watch Bangladesh" (PDF)। National Democratic Institute for International Affairs: 2। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০১৬ 
  5. "Association of Television Channel Owners (ATCO)"www.bd-directory.com 
  6. BBC
  7. The New York Times
  8. IPU.org
  9. "BNP Bangladesh"। ২০১৭-১০-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২১ 
  10. The Hindu
  11. The Daily Observer
  12. Dhaka Tribune
  13. Suman, Rakib Hasnet (১৪ আগস্ট ২০১০)। "Falu seeks to quit his job"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  14. "NEW COMMITTEE"। Bangladesh Nationalist Party। ১০ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  15. "History of Bangladesh Nationalist Party"। real nationalist। ১ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  16. "Khaleda says juma prayers at Al-Masjid al-Haram"bdnews24.com। ১ এপ্রিল ২০১১। ২ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  17. "Alliance picks Falu, Momin for by-polls"। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০০৪ 
  18. "Thomas termed Khaleda lazy, Tarique notorious"The Daily Sun। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  19. "Constitution of the People's Republic of Bangladesh" (PDF)। International Relations and Security Network। ৪ নভেম্বর ১৯৭২: Article 70। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০১৬ 
  20. "MAH Securities Ltd."www.dsebd.org 
  21. "Star Porcelain Pvt. Ltd."Dhaka Chamber of Commerce and Industry (DCCI)। ৮ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০১৯ 
  22. "NTV Online"ntvonline.com 
  23. "YouTube rewards NTV again"। NTV Online। সংগ্রহের তারিখ ৪ অক্টোবর ২০১৭ 
  24. "অনলাইন মিডিয়া এখন বাস্তবতা: ইকবাল সোবহান"। bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৮ অক্টোবর ২০১৭ 
  25. "Uphold national heritage, culture President tells RTV launching programme"। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  26. "Bangladesh newspaper closed down"। The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১০ 
  27. "Permanent member list"National Press Club (Bangladesh)। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  28. "MSC to go limited"। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  29. "Bangladesh politicians sent to jail for a month"। DAWN। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  30. "Concerns over unfair arrests after anti-corruption drive"। Reporters Without Borders। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৩, ২০০৭ 
  31. "Falu freed on bail"। bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২২, ২০০৮ 
  32. "HC upholds Falu's acquittal in relief scam case"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৪-১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৭-১৮ 
  33. Karim, Anwarul (৮ এপ্রিল ২০১১)। "Probe report mentions 20 masterminds of stock-market scam"Banglanews24.com। ১৮ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১১ 
  34. "Further probe needed before action: Muhith"The Daily New Age। ৯ এপ্রিল ২০১১। ২৫ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১১ 
  35. Rejaul Karim Byron; Md Fazlur Rahman (৯ এপ্রিল ২০১১)। "Finger pointed at 60 individuals"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১১