মোটরযান চালনা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
যাত্রীসহ একজন মোটরযান চালক একটি মোটরগাড়ি চালাচ্ছেন

মোটরযান চালনা (ইংরেজি: Driving) বলতে মোটরগাড়ি, মোটরসাইকেল, ট্রাক, বাস, ইত্যাদি মোটরচালিত যানবাহন নিয়ন্ত্রিতভাবে পরিচালনা করে এক স্থান থেকে আরেক স্থানে নিয়ে যাওয়াকে বোঝায়। যে কেউ মোটরযান চালনা করতে পারে না, কিছু শর্তপূরণ করলে ও পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে মোটরযান চালনার অনুমতি পাওয়া যায়। মোটরযান চালকেরা তাদের স্থানীয় সড়ক ও যানচলাচল আইনকানুন মেনে চলতে বাধ্য থাকেন।

শারীরিক সক্ষমতা[সম্পাদনা]

একজন মোটরযান চালককে অবশ্যই যানটির গতির দিক নিয়ন্ত্রণ, গতিবেগ বাড়ানো ও কমানোর জন্য যথাযথ শারীরিক দক্ষতা থাকতে হবে। এগুলি হল: [১]

  • মোটরযানটির ইঞ্জিন চালু করা।
  • যানটির ট্রান্সমিশন ব্যবস্থাটিকে সঠিক গিয়ারে সংস্থাপন করা
  • মোটরযানে বিভিন্ন পাদানি বা পেডালে পা দিয়ে নিচের দিকে চাপ দিয়ে যানের বেগ বৃদ্ধি ও হ্রাস করা
    • যদি যানটিতে হস্তচালিত ট্রান্সমিশন থাকে, তাহলে ক্লাচ পেডাল নিয়ন্ত্রণ করা
  • স্টিয়ারিং চাকা ঘুরিয়ে যানটির চলার দিক নিয়ন্ত্রণ করা
  • ব্রেক পেডালে চাপ দিয়ে গাড়িকে মন্থর করা বা থামানো।
  • অন্যান্য সহায়ক সরঞ্জাম যেমন দিকনির্দেশী বাতি, সামনের বাতি বা হেডলাইট, নিশ্চল অবস্থার ব্রেক এবং সামনের বায়ুপ্রবাহরোধী কাচের পরিষ্কারক, ইত্যাদি পরিচালনা করা।
  • বিপদের জন্য সতর্কভাবে আশেপাশের পরিবেশ পর্যবেক্ষণ করা।

আইন অমান্যকরণ ও ফলাফল[সম্পাদনা]

অপরিপক্ক দায়িত্বজ্ঞানহীন মোটরযান চালকেরা প্রায়শই যেসব যানচলাচল আইন অমান্য বা ভঙ্গ করেন, তাদের মধ্যে আছে অনুমোদিত গতিসীমার চেয়ে বেশি দ্রুত মোটরযান চালনা, রাস্তার অন্য যানবাহনকে নিয়ম মেনে জায়গা না ছেড়ে দেওয়া এবং মদ্যপ অবস্থায় মোটরযান চালনা। এই প্রতিটি ক্ষেত্রেই গুরুতরভাবে আহত এমনকি নিহত হওয়ার ঝুঁকি থাকে। এছাড়া ঘুম ঘুম চোখে চালালে, পাল্লা দিয়ে চালালে, অবিবেচকের মত চালালে, চালনার সময় মুঠোফোনে কথা বললে এবং মুঠোফোনে ক্ষুদে বার্তা আদানপ্রদান করলে দুর্ঘটনার ঝুঁকি অত্যন্ত বেড়ে যায়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Getting moving"। Driving Test Advice। ২০০৯-০৩-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা।