মুহাম্মাদ ইনাম-উল হক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মুহাম্মাদ ইনাম-উল হক
মুহাম্মাদ ইনাম-উল হক, ইবি উপাচার্য.jpg
মুহাম্মাদ ইনাম-উল হক
৪র্থ উপাচার্য, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ
কাজের মেয়াদ
৯ মে ১৯৯৫ – ২ সেপ্টেম্বর ১৯৯৭
পূর্বসূরীমুহাম্মাদ আব্দুল হামিদ
উত্তরসূরীকায়েস উদ্দিন
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম৩০ জানুয়ারি ১৯৩৯
সীতাকুণ্ড উপজেলা, চট্টগ্রাম জেলা
মৃত্যু৬ জুন ২০১৫(2015-06-06) (বয়স ৭৬)
জাতীয়তাবাংলাদেশী
সন্তানমুসা, তারেক, মোসান্না
আত্মীয়স্বজনখায়ের-উল বাশার (ভাই, চবি বাংলা অধ্যাপক)
প্রাক্তন শিক্ষার্থীচট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
পেশালেখক, ইতিহাসবিদ, ইবি উপাচার্য

মুহাম্মাদ ইনাম-উল হক (৩০ জানুয়ারি, ১৯৩৯ - ৬ জুন, ২০১৫) একজন বাংলাদেশী শিক্ষাবিদ, ইতিহাসবিদ এবং লেখক যিনি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ উপাচার্য ছিলেন।[১][২] তিনি ৯ মে ১৯৯৫ থেকে ২ সেপ্টেম্বর ১৯৯৭ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেছিলেন।[৩] তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ছিলেন।[৪]

প্রাথমিক জীবন এবং শিক্ষা[সম্পাদনা]

ইনাম-উল হক ১৯৩৯ সালের ৩০ জানুয়ারি চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুণ্ড উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের গুপ্তখালী গ্রামে একটি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মাওলানা নুরুল আবসার ছিলেন ফেনী সরকারি কলেজের আরবি বিভাগের অধ্যাপক, তিনিমুনতাখাব আল-আরাবী বইটি ইংরেজিতে অনুবাদ করেন।[৫] ইনাম হক ১৯৭৩ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন।[৩]

প্রারম্ভিক কর্মজীবন[সম্পাদনা]

ইনাম-উল হক ১৯৮০ সালে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে অধ্যাপক হিসেবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদানের আগে রংপুর কারমাইকেল কলেজ, চট্টগ্রাম কলেজ এবং চট্টগ্রাম সরকারি সিটি কলেজে [৫] বিভাগের প্রভোস্ট, প্রক্টর এবং চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এবং দীর্ঘদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোরের কমান্ডার ছিলেন।

উপাচার্য পদ[সম্পাদনা]

ইনাম-উল হক ১৯৯৫ সালের ৯ মে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিযুক্ত হন। তিনি কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল, তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল এবং প্রয়োগকৃত রসায়ন ও রাসায়নিক প্রকৌশল নামে তিনটি প্রকৌশল বিভাগ স্থাপন করেন। তিনি ১৯৯৬ সালে রশিদ আহমেদের ডিজাইনকৃত মুক্ত বাংলা ভাস্কর্য উদ্বোধন করেন।[৬][৭][৮][৯] তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভের পর তিনি ২ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৭ সালে উপাচার্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন।[১]

পরবর্তী কর্মজীবন[সম্পাদনা]

ইনাম ১৯৯৬-৯৭ সাল পর্যন্ত জাতীয় শিক্ষা কমিশনের সদস্য ছিলেন। এরপর ২০০৭ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক পদে ফিরে আসেন।[৩] এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ ইতিহাস পরিষদ, এশিয়াটিক সোসাইটি, বাংলা একাডেমী এবং কলকাতার পশ্চিমবঙ্গ ইতিহাস পরিষদের আজীবন সদস্য ছিলেন। তিনি সীতাকুণ্ড সমিতি-চট্টগ্রামের উপদেষ্টাও ছিলেন।[৩]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

তিনি ৭৬ বছর বয়সে ২০১৫ সালের ৬ জুন রাতে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। তার মৃত্যুতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে তার রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।[১০]

আমেরিকান বায়োগ্রাফিক্যাল ইনস্টিটিউট তাদের ইন্টারন্যাশনাল ডিরেক্টরি অফ ডিস্টিংগুইশড লিডারশিপের ৭ম, ৮ম এবং ৯ম সংস্করণে তার জীবনী প্রকাশ করেছে।[৫]

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালে আটটি গবেষণামূলক বই এবং অনেক প্রবন্ধ প্রকাশ করেছেন। [৫] তিনি বাংলা, ইংরেজি, আরবি, ফার্সি ও উর্দু ভাষায় পারদর্শী ছিলেন।

বই[সম্পাদনা]

  • বাংলা:
  1. বাংলার ইতিহাস: ভারতে ব্রিটিশ শাসনের সূচনা (বাংলা: বাংলার ইতিহাস: ভারতে রাজ্যের সুচনাপর্ব)। [৪]আইএসবিএন ৯৮৪-০৭-৪৭৪০-১
  2. ভারতে মুসলিম শাসনের ইতিহাস (Bengali: ভারতে ভারতে মুসলিম শাসনের ইতিহাস) [১১]আইএসবিএন ৯৮৪-৫৬০-২০৩-৭
  3. সম্রাট জহিরুদ্দিন মুহম্মদ বাবর (বাংলা: সম্রাট জহির এমপি [১২]আইএসবিএন ৯৮৪-৫৬০-২০৪-৫
  4. সম্রাট মুহিউদ্দীন মুহাম্মদ আওরঙ্গজেব-আলমগীর বাহাদুর (1618-1707) (বাংলা: সম্রাট মুহিউদ্দীন মুহাম্মদ আওরঙ্গজেব-আলমগীর বাহাদুর) [১৩]আইএসবিএন ৯৮৪-৫৬০-২৭১-১
  5. মুসলমান এবং ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলন (বাংলা: ভারতে আমাদের ও স্বাধীনতা আন্দোলন)
  6. মধ্যপ্রাচ্য অতীত ও বর্তমান ( ইয়াহিয়া আরমাজানি বই অনুবাদ করুন) (বাংলা নাম: মধ্যপ্রাচ্য অতীত ও বর্তমান) [১৪]আইএসবিএন ৯৮৪-৫৬০-১২২-৭
  7. আধুনিক তুরস্ক এবং মধ্যপ্রাচ্যের ইতিহাস (বাংলা: মধ্যপ্রাচ্য ও মধ্যপ্রাচ্যের ইতিহাস ) [১৫]
  8. বাংলাদেশের মিঠা পানির ছোট মাছ (বাংলা: জলাভূমি মিঠা পানির ছোট মাছ)[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]
  • ইংরেজি:
  1. ইসলামে সমাজ ও সংস্কৃতি (সংকলিত বই)
  2. ভারত-পাকিস্তানে মুসলিম শাসনের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস।

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

  • কলকাতা সুতানুটি এবং গোবিন্দপুরের বিক্রয় দলিল: ব্রিটিশদের অবস্থানের বিশ্লেষণ। [৫]
  • বাংলা আওরঙ্গজেবের রাজত্বের শেষের দিকে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Engineer, Nazmus Shahadat, Senior Software। "Islamic University"iu.ac.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৩ 
  2. এ.বি.এম সাইফুল ইসলাম সিদ্দিকী (২০১২)। "ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়"ইসলাম, সিরাজুল; মিয়া, সাজাহান; খানম, মাহফুজা; আহমেদ, সাব্বীর। বাংলাপিডিয়া: বাংলাদেশের জাতীয় বিশ্বকোষ (২য় সংস্করণ)। ঢাকা, বাংলাদেশ: বাংলাপিডিয়া ট্রাস্ট, বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটিআইএসবিএন 9843205901ওএল 30677644Mওসিএলসি 883871743 
  3. "একটি নক্ষত্র পতন"www.bhorerkagoj.com। ২০১৮-০৯-১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৩ 
  4. "History of Bengal: The beginning of the British rule in India- Enam ul-Haque" 
  5. "Muhammad Enam-Ul Haque by Professor Dr. A.F.M. Khalid Hossain"www.facebook.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৩ 
  6. https://www.risingbd.com। "মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মরণে নির্মিত ইবির মুক্ত বাংলা"RisingBD Online Bangla News Portal (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৩ 
  7. "মুক্তিযুদ্ধের স্মারক ভাস্কর্য 'মুক্তবাংলা' - Jamuna.News"jamuna.news। ২০২১-১২-২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৩ 
  8. "ইবির 'মুক্তবাংলা'র রহস্য"ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৩ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  9. "ইবির নান্দনিক 'মুক্তবাংলা'"nagorikbarta.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৩ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  10. "ড. ইনাম-উল-হক স্মরণে দোয়া মাহফিল"The Daily Nayadiganta। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৪ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  11. "History of Muslim rule in India- Enam ul-Haque" 
  12. "Emperor Zahiruddin Muhammad Babar- Enam-ul Haque" 
  13. "Emperor Muhiuddin Muhammad Aurangzeb-Alamgir Bahadur (1617-1707)- Enam ul-Haque" 
  14. "মধ্যপ্রাচ্য অতীত ও বর্তমান - ড. মোঃ ইনামুল হক,ইয়াহ্‌ইয়া আরমাজানী"www.rokomari.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৩ 
  15. "আধুনিক তুরস্ক ও মধ্যপ্রাচ্যের ইতিহাস - মুহাম্মদ ইনাম-উল-হক"। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৪