মুহাম্মাদ আল-খারাশী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মুহাম্মাদ আল-খারাশী
محمد الخرشي
Kharashy.jpg
১ম আল-আজহারের প্রধান ইমাম
অফিসে
১৬৭৯ – ১৬৯০
উত্তরসূরীইব্রাহীম আল-বারমাউই
ব্যক্তিগত
ধর্মইসলাম
আখ্যাসুন্নি
ব্যবহারশাস্ত্রমালিকি
প্রধান আগ্রহ
শিক্ষাআল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়

ইমাম শেখ আবু-আবদুল্লাহ মুহাম্মদ বিন জামাল আল-দিন আবদুল্লাহ বিন আলী আল-খারশি আল-মালিকি (ঐতিহাসিক নাম মুহাম্মদ আল-খারাশি) হলেন একজন মিশরীয় ধর্মযাজক, লেখক এবং ইসলামিক পণ্ডিত যিনি কায়রোর আল-আজহার মসজিদের প্রথম প্রধান ইমাম ছিলেন বলে জানা যায়।[১][২]

আল-খারশিকে একজন নেতৃস্থানীয় মুসলিম পণ্ডিত হিসেবে বিবেচনা করা হয়, যিনি বিশ্ব জুড়ে, আরব এবং আফ্রিকার অন্যান্য ইসলামিক রাজ্যে তাঁর সময়ে সুপরিচিত ছিলেন।

জীবনী[সম্পাদনা]

প্রাথমিক জীবন এবং শিক্ষা[সম্পাদনা]

আল-খারশি ১০১০ হিজরীতে (১৬১০ খ্রিস্টাব্দ) জন্মগ্রহণ করেন এবং কায়রোতে বসবাস করেন। তাকে আল-খারাশি (আল-খারাশী নামেও পরিচিত) বলা হত, কারণ তিনি বুহাইরা গভর্নরেটের আবু-খারাশ গ্রাম থেকে এসেছিলেন।

আল-খারশি তার পিতা জামাল আল-দীন আবদুল্লাহ বিন আলী আল-খারশিসহ একদল পণ্ডিত ও ব্যক্তিত্ব দ্বারা শিক্ষিত হন, যিনি আল-খারশিকে বিজ্ঞানের প্রতি ভালবাসা এবং জ্ঞানের আকাঙ্ক্ষা জাগিয়ে তুলেছিলেন। আল-খারশিকে আল-আজহুরি, ইউসুফ আল-ঘালায়শি, আব্দুল মুতি আল-বসির এবং ইয়াসিন আল-শামীও নির্দেশ দিয়েছিলেন।

আল-খারর্শি সেই সময়ে প্রতিষ্ঠিত আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ে বিজ্ঞান অধ্যয়ন করেছিলেন, যেমনঃ হাদিস, একেশ্বরবাদ, রহস্যবাদ, আইনশাস্ত্র, ধর্মতত্ত্ব, ব্যাকরণ, রূপতত্ত্ব, উপস্থাপনা, অর্থ এবং বিবৃতি, বাদি', সাহিত্য, ইতিহাস এবং নবীর জীবনী, এবং যুক্তি, সময়ের বিজ্ঞানও অধ্যয়ন করেছিলেন।

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

আল-খারর্শিকে বিনয়ী, সতী, ভদ্র এবং উদার বলে বর্ণনা করা হয়েছিল। তিনি তার শিক্ষার্থীদের সাথে পড়াতে এবং ধৈর্য ধরতে আগ্রহী ছিলেন। তিনি রোজা ও প্রার্থনায় অনেক সময় ব্যয় করেছিলেন এবং তার বস্তুগত সুস্থতা নিয়ে চিন্তিত ছিলেন না। আল-খারশি যখন বিদেশী গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কাছ থেকে উপহার পেতেন, তখন তিনি সেগুলো অন্যদের বিতরণ করার জন্য তার বন্ধুদের কাছে পৌঁছে দিতেন।

প্রথম-ইমাম[সম্পাদনা]

বর্ণনাগুলি প্রায় সর্বসম্মতভাবে একমত যে আল-খারর্শি প্রথম শেখ আল-আজহারের পদ গ্রহণ করেছিলেন।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

আল-খারশি রবিবার ৯৩ বছর বয়সে ১১০১ হিজরী - ১৬৯০ খ্রিস্টাব্দে বছরে জ্বিলহজ্জ মাসের ২৭তম দিনে মারা যান। ১১০১ খ্রিস্টাব্দে তাকে সেখানে সমাধিস্থ করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The Grand Imams of Al-Azhar (Shuyukhul Azhar) — As-Sunnah Foundation of America"sunnah.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১০-২৪ 
  2. ":: The Grand Imams of Al-Azhar :: Shuyukhul Azhar ( شيوخ الأزهر )"www.abqarie.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১০-২৪ 
  • "Former Grand Imams – Perkemas" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১০-২৪ 
  • "ذاكرة الأزهر"web.archive.org। ২০১৬-০৮-০৬। Archived from the original on ২০১৬-০৮-০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১০-২৪ 
  • "Muḥammad Al-Kharashī (1090 AH/1679 CE-1101 AH/1690 CE)"Al-Azhar Portal (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১০-২৪