মুহম্মদ নূরুল্লাহ্

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মুহম্মদ নূরুল্লাহ্
পেশাঅধ্যাপক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
নিয়োগকারীরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
পরিচিতির কারণমনোবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপাচার্য
উপাধিরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য
মেয়াদ২৬.০২.০৯ – ২৫.০২.১৩

অধ্যাপক মুহম্মদ নূরুল্লাহ্ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০০৯ থেকে ২০১৩ পর্যন্ত চার বৎসর উপ-উপাচার্য[১] হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৯৪৯ সালে কিশোরগঞ্জ জেলার চরটেকী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

শিক্ষা জীবন[সম্পাদনা]

তিনি চরটেকী প্রাথমিক স্কুল, পাকুন্দিয়া মডেল হাইস্কুল, আনন্দমোহন কলেজ, ময়মনসিংহ ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে তার অধ্যয়নের বিষয় ছিল মনোবিজ্ঞান। এম,এসসি পরীক্ষায় তিনি প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করেন।

কর্ম জীবন[সম্পাদনা]

১৯৭৪ এর জুলাই মাসে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ স্টাডিজ-এ গবেষণা সহকারী হিসাবে তার কর্মজীবন শুরু। ১৯৭৬ এর মার্চ মাসে তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগে প্রভাষক পদে যোগদান করেন। ৪০ বৎসরের অধিক সময় ঐ বিভাগে শিক্ষকতার পর ২০১৬ সালের জুন মাসে প্রফেসর হিসাবে পূর্ণ অবসর গ্রহণ করেন। তিনি দুইবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য ও একবার সিন্ডিকেট সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তাছাড়া এক মেয়াদের জন্য তিনি বাংলাদেশ মনোবিজ্ঞান সমিতির সাধারণ সম্পাদকও নির্বাচিত হয়েছিলেন।

গবেষণা ও প্রকাশনা[সম্পাদনা]

লেখালেখিতেও তার ঝোঁক ছিল। মনোবিজ্ঞান বিষয়ে একক গ্রন্থকার হিসেবে তার একটি পাঠ্যপুস্তক (ফলিত মনোবিজ্ঞান) ও যৌথ গ্রন্থকার হিসেবে দুইটি (পরীক্ষাগারে মনোবিজ্ঞান ও মনোসমীক্ষণ অভিধা) পাঠ্যপুস্তক প্রকাশিত হয়েছে।[২] তাছাড়া সাহিত্য, মনোবিজ্ঞান, রাজনীতি ও সমাজভাবনা ইত্যাদি বিষয়ে তার বহু প্রবন্ধ পত্র-পত্রিকা ও সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. List of former Pro Vice-Chancellor, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট।
  2. প্রফেসর মুহম্মদ নূরুল্লাহ এর বই সমূহ, রকমারি.কম।