মুল্লা আলী আল-ক্বারী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

মুল্লা আলী আল-ক্বারী যার পূর্ণ নাম - নুরুদ্দিন আবুল হাসান আলী বিন সুলতান মুহাম্মদ আল-হারাবী আল-ক্বারী (আরবি : نور الدين أبو الحسن علي بن سلطان محمد الهروي القاري - মৃত্যু : ১৬০৫/১৬০৬ খ্রি:), একজন ইসলামি পন্ডিত ছিলেন । তিনি হানাফি-মন্ডলীদের মধ্যে ইলমে দ্বীনের বিভিন্ন শাখায় যেমন - হাদীস, ফিকহ, কুরআনের ভাষ্য, ভাষা, ইতিহাস এবং তাসাউফের ইমামদের অন্যতম বলে বিবেচিত হন ।[১] তিনি একজন হাফিজে কুরআন (কুরআনুল কারীমের মুখস্থকারী) । আল-কুরআনের একজন প্রসিদ্ধ সুভাষী প্রাজ্ঞ আবৃত্তিকার ( ক্বারী ) ছিলেন । আরবীতে সবচেয়ে সুপরিচিত একজন লেখক ছিলেন । একজন বিখ্যাত ক্যালিগ্রাফারও ছিলেন তিনি । বিখ্যাত এই মানুষটি - সংক্ষেপে মুল্লা আলী আল-ক্বারী (আরবি : ملا علي القاري) বা মুল্লা আলী ক্বারী নামে প্রসিদ্ধ ।

জন্ম[সম্পাদনা]

মুল্লা আলী ক্বারী-এর একাধিক জীবনী সংক্রান্ত তথ্যে জন্ম তারিখ অনুল্লেখ থাকলেও তার জন্মস্থান সম্পর্কে জানা যায় যে , তার জন্মগত দেশ ছিল খোরাসান-এর হেরাত শহরে । আর এই খুরাসানের বর্তমান নাম হল আফগানিস্তান । অতএব বলা যায় উত্তর-পশ্চিম আফগানিস্তানের হারিরুদ নদীর উপর অবস্থিত শহর 'হেরত' প্রদেশের রাজধানী হেরাত শহরে তিনি জন্মগ্রহণ করেছিলেন ।

শিক্ষার্জন[সম্পাদনা]

স্বীয় জন্মস্থানেই তিনি তাঁর প্রাথমিক ইসলামী শিক্ষা লাভ করেছিলেন । এরপরে জ্ঞানার্জনের জন্য তিনি মক্কাতুল মুকাররমাহ ভ্রমণ করেন এবং পন্ডিত শায়খ আহমদ ইবনে হাজার আল-হাইতামি মক্কির অধীনে অধ্যয়ন করেন এবং তিনি শেষ পর্যন্ত মক্কাতুল মুকাররমায় থাকার সিদ্ধান্ত নেন । সেখানে তিনি অধ্যায়নের মধ্য দিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে ব্যুতপত্তি অর্জন করেন ।

কুরআনিক ক্যালিগ্রাফি[সম্পাদনা]

মুল্লা আলী ক্বারী সুন্দর হস্তাক্ষারের অধিকারী ছিলেন । তার হাতের লেখা সুন্দর ছিল । এই বৈশিষ্ট্যের জন্য চর্চা আর অধ্যবসায়ের ফলে তিনি একজন স্মরণযোগ্য ক্যালিগ্রাফার হয়ে ওঠেন । তার এ ক্যালিগ্রাফি ছিল কুরআন ভিত্তিক অর্থাৎ এ ছিল 'কুরআনিক ক্যালিগ্রাফি' । এতে খ্যাতি অর্জন করেন । তার এ ক্যালিগ্রাফির মাধ্যমে নিজের জন্য জীবিকা নির্বাহ করতেন । যা দিয়ে অসচ্চলদেরকেও তিনি সাহায্য সহযোগিতা করতেন ।

রচনাবলি[সম্পাদনা]

আল্লামা মোল্লা আলী ক্বারী বিভিন্ন খণ্ডে মিশকাতুল মাসাবিহ-এর ব্যখ্যাগ্রন্থ আল-মিরকাত, রচনা করেন । তিনি ইমাম কাজী আয়াজ-এর বিখ্যাত আশ শিফা গ্রন্থটির ভাষ্য লিখেন ।[২] এছাড়া ইমাম তিরমিজির শামাইল-এর উপরও ভাষ্য লিখেছিলেন তিনি ।[৩][৪] তাঁর সর্বাধিক জনপ্রিয় রচনা হ'ল হিজবুল আজম নামে কুরআন ও হাদিস থেকে সংগৃহীত দুআ সমুহের একটি সংকলন বই ।[৫] এটি সপ্তাহে প্রতিটি দিনের জন্য একটি করে অধ্যায় দিয়ে সাজিয়ে মোট সাতটি অধ্যায়ে বিভক্ত করে সন্নিবেশিত করা হয়েছে । তার এই দুআর বইটি মাঝে মধ্যে দালাইলুল খাইরাত-এর সাথে সংযোজিত পাওয়া যায় ।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

তিনি ১০১৪ হিজরির শাওয়াল মাসে পবিত্র মক্কা নগরীতে মৃত্যু বরণ করেন । তাকে 'জান্নাতুল মুয়াল্লা'র মধ্যে দাফন করা হয় । মুল্লা আলী ক্বারীর মৃত্যু সংবাদ মিশরের উলামায়ে কেরামদের কাছে যখন পৌছে, তখন তারা আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাঙ্গনে তার গায়েবানা জানাযা পড়েন । তার এই গায়েবানা জানাযায় প্রায় চার হাজারের মত লোক অংশ গ্রহণ করেন ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. https://kitaabun.com/shopping3/mullah-qari-m-109.html?osCsid=p26jfkb5hvjqjiqa48ivsq9ea1
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; sharhshifa (ইংরেজি) নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; sunnah (ইংরেজি) নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  4. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; tohfat (ইংরেজি) নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  5. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; hizb (ইংরেজি) নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি

উদ্ধৃতি ত্রুটি: <references>-এ সংজ্ঞায়িত "sharhshifa" নামসহ <ref> ট্যাগ পূর্ববর্তী লেখায় ব্যবহৃত হয়নি।
উদ্ধৃতি ত্রুটি: <references>-এ সংজ্ঞায়িত "tohfat" নামসহ <ref> ট্যাগ পূর্ববর্তী লেখায় ব্যবহৃত হয়নি।
উদ্ধৃতি ত্রুটি: <references>-এ সংজ্ঞায়িত "sunnah" নামসহ <ref> ট্যাগ পূর্ববর্তী লেখায় ব্যবহৃত হয়নি।

উদ্ধৃতি ত্রুটি: <references>-এ সংজ্ঞায়িত "hizb" নামসহ <ref> ট্যাগ পূর্ববর্তী লেখায় ব্যবহৃত হয়নি।