মিজানুল হক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ডক্টর

মিজানুল হক
কিশোরগঞ্জ-২ আসনের সাবেক সাংসদ
কাজের মেয়াদ
১৯৯১ – ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬
পূর্বসূরীমুজিবুল হক চুন্নু
উত্তরসূরীকবির উদ্দিন আহমেদ
কাজের মেয়াদ
জুন ১৯৯৬ – অক্টোবর ২০০১
পূর্বসূরীকবির উদ্দিন আহমেদ
উত্তরসূরীওসমান ফারুক
ব্যক্তিগত বিবরণ
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ

ড. মিজানুল হক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতিবিদ এবং এবং কিশোরগঞ্জ-২ (ইটনা, করিমগঞ্জ ও [তারাইল]) আসনের সাবেক সাংসদ। তিনি ১৯৯১ ও জুন ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।[১][২][৩]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

ড. মিজানুল কিশোরগঞ্জ জেলায় জন্মগ্রহণ করেন।

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

মিজানুল হক আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাবেক সদস্য। তিনি কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা, মিঠামইনঅষ্টগ্রাম) আসন থেকে ১৯৯১ সালের পঞ্চম ও জুন ১৯৯৬ সালের সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মোট দুইবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। সপ্তম জাতীয় সংসদে তিনি অনুমিত হিসাব কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন।[৪]

২০০১ সালের অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির ড. ওসমান ফারুকের কাছে একই আসনে পরাজিত হন। ২০১৪ সালের নির্বাচনে ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে কিশোরগঞ্জ-৩ (করিমগঞ্জ-তাড়াইল) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মহাজোট মনোনীত জাতীয় পার্টির মুজিবুল হক চুন্নুর কাছে পরাজিত হন তিনি।[৫][৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "৫ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "৭ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "মিজানুল হক"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-১৬ 
  4. "আ. লীগ থেকে সাবেক এমপি ড. মিজানের পদত্যাগ | কালের কণ্ঠ"Kalerkantho। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-১৬ 
  5. Dhakatimes24.com। "কিশোরগঞ্জে সাবেক তিন রাষ্ট্রপতিপুত্র বৈধ প্রার্থী"Dhakatimes News। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-১৬ 
  6. "কিশোরগঞ্জের ৬ আসনে লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি"kishoreganjnews.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-১৬