মালিনী অবস্থী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মালিনী অবস্থী
Malini Awasthi bharat-s-tiwari-photography-IMG 6347 February 14, 2018.jpg
প্রাথমিক তথ্য
জন্ম (1967-02-11) ১১ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৭ (বয়স ৫৪)
কনৌজ, উত্তরপ্রদেশ, ভারত
উদ্ভবলখনউ, উত্তরপ্রদেশ, ভারত
ধরনভারতীয় লোকসঙ্গীত
পেশালোকসঙ্গীত শিল্পী
কার্যকাল৩১ বছর

মালিনী অবস্থী (জন্ম ১১ই ফেব্রুয়ারি ১৯৬৭) একজন ভারতীয় লোকসঙ্গীত শিল্পী।[১][২] তিনি হিন্দি এবং অবধি ভাষা , বুন্দেলখণ্ডী এবং ভোজপুরি ভাষায় গান করেন। তিনি ঠুংরী এবং কাজরি সঙ্গীতও পরিবেশন করেন।[৩] ২০১৬ সালে তিনি ভারত সরকারের নাগরিক সম্মান পদ্মশ্রীতে ভূষিত হয়েছিলেন।[৪]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

মালিনী অবস্থী উত্তরপ্রদেশের কনৌজ শহরে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি লখনৌ শহরের ভাটখণ্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হিন্দুস্তানী শাস্ত্রীয় সংগীতে স্নাতকোত্তর করেছেন এবং এই বিষয়ে তিনি স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত।[৫] এছাড়াও, তিনি লখনৌ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আধুনিক ইতিহাসে স্নাতকোত্তর করে স্বর্ণপদক অর্জন করেছিলেন, তাঁর বিশেষ বিষয় ছিল মধ্যযুগীয় এবং আধুনিক ভারতীয় স্থাপত্য। তিনি কিংবদন্তি হিন্দুস্তান ধ্রুপদী গায়ক, পদ্মবিভূষণ বিদুষী গিরিজা দেবীর বেনারস ঘরানার গাঁট বাঁধা (আনুষ্ঠানিকভাবে গুরু ও শিষ্যের মধ্যে শিক্ষাদান ও গ্রহণের সম্বন্ধ স্থাপন) ছাত্রী। তিনি বরিষ্ঠ আইএএস অফিসার অবনীশ অবস্থীর সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। অবনীশ ইউপি বিভাগের ১৯৮৭ সালের পদাধিকারী এবং তিনি বর্তমানে উত্তর প্রদেশ সরকারের মুখ্য সচিব হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

পেশাগত জীবন[সম্পাদনা]

জনপ্রিয় শাস্ত্রীয় সংগীতের উৎসব, জাহান-এ-খুস্রুর নিয়মিত শিল্পী মালিনী অবস্থী।[৬] তাঁর কণ্ঠস্বর উচ্চ ত্ত তীক্ষ্ণ স্বরবিশিষ্ট এবং থারে রাহিও ও বাঁকে শ্যাম ঠুংরীটি তাঁর কন্ঠে জনপ্রিয়। তিনি দূরদর্শনে এনডিটিভি 'ইম্যাজিন' পরিবেশিত জুনুন অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন। উত্তরপ্রদেশে ২০১২ এবং ২০১৪ সালের নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন তাঁকে মুখপাত্র হিসাবে নিযুক্ত করেছিলেন।[৭]

তিনি ২০১৫ সালের ছবি দম লাগা কে হায়শাতে অনু মালিকের সংগীত পরিচালনায় "সুন্দর সুশীল" গানটি গেয়েছিলেন।

শিক্ষাগত সম্মান এবং ফেলোশিপ[সম্পাদনা]

তিনি বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ে ভারত অধ্যয়ন কেন্দ্রের শতবার্ষিকী পদের অধ্যাপক।[৮]

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সম্পাদন[সম্পাদনা]

জাতীয়[সম্পাদনা]

উত্তর প্রদেশের ঠুংরী-উৎসব এবং রাগ-রঙ-উৎসব, তাজ-মহোৎসব, গঙ্গা-মহোৎসব, লখনউ-উৎসব, বুধ-মহোৎসব, রামায়ণ-মেলা, কাজরী-মেলা, কবীর-উৎসব ইত্যাদি অনুষ্ঠানে তিনি অংশ নিয়েছেন। শ্রুতি-মণ্ডল-সমারোহ, কুম্ভাল-গর্দ্ধ-উৎসব, রাজস্থানের জয়পুরে তীজ-উৎসব তাঁর পরিবেশিত সঙ্গীতে সমাহিত হয়েছে। পাঞ্জাব ও হরিয়ানায় সুরজকুন্ড-হস্তশিল্প-মেলা এবং পিনজোরের ঐতিহ্য-উৎসবে তাঁকে পাওয়া গেছে।

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

২০১৭ সালে ত্রিনিদাদে প্রবাসী দিবসে তিনি অনুষ্ঠান করেছিলেন।[৯] ২০১৫ সালে মরিশাসে ভারত উৎসবে তিনি অংশ নিয়েছিলেন।[১০] ২০১১ সালে ফিজিতে আইসিসিআর এর ৪০ তম বর্ষপূর্তি উদযাপনে তিনি আমন্ত্রিত ছিলেন।[১১] ২০০৪ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রর হিউস্টনে, স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে তিনি অংশ নিয়েছিলেন। ২০০৭ সালে পাকিস্তানে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিনি সঙ্গীত পরিবেশনা করেছিলেন। [১২] ২০১১ সালে, লন্ডনে দক্ষিণ ব্যাংকের কেন্দ্রের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিনি যোগ দিয়েছিলেন।[১৩] ক্রমান্বয়ে ২০০২, ২০০৩, ২০১৫ এবং ২০১৬ সালে নেদারল্যান্ডে ভারতীয় উৎসব উদযাপনে তিনি অংশ নিয়েছিলেন।[১৪] ২০০০, ২০০৪, ২০১৬ সালে মরিশাসে বিশ্ব ভোজপুরী সম্মেলনে তিনি সঙ্গীত পরিবেশন করেছেন। ২০১৬ সালে ফিলাডেলফিয়া এবং লস অ্যাঞ্জেলেসে সাংস্কৃতিক সংগীতানুষ্ঠানে তিনি ছিলেন।

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

তিনি যে যে চলচ্চিত্রে সঙ্গীত পরিবেশন করেছেন সেগুলি হল জয় হো ছট মাইয়া - শৈলেন্দ্র সিংয়ের সঙ্গে যৌথভাবে, ভোলে শিব # শঙ্কর, বম বম বোলে, এজেন্ট বিনোদ, দম লাগা কে হায়শা, ভগন কে রেখন কী - ইশক (২০১৩ চলচ্চিত্র), চারফুটিয়া ছোকরে (২০১৪ চলচ্চিত্র)।

২০১৬ সালের ২৮ শে মার্চ, রাষ্ট্রপতি, প্রণব মুখোপাধ্যায় নয়াদিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে একটি বেসামরিক বিনিয়োগ অনুষ্ঠানে শ্রীমতী মালিনী অবস্থীকে পদ্মশ্রী পুরস্কার প্রদান করছেন।

পুরস্কার[সম্পাদনা]

২০১৬ সালে পদ্মশ্রী পুরস্কার,[১৫] ২০০৬ সালে উত্তরপ্রদেশ সরকারের যশ ভারতী পুরস্কার,[১৬] উত্তর প্রদেশ সংগীত নাটক একাডেমি ফেলোশিপ, জাতীয় সংগীত নাটক একাডেমি পুরস্কার।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Malini Awasthi mesmerises audience"। ২০১২-০৭-০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১৭ =
  2. "It's the villages where folk music is disappearing faster"The Times Of India। ২০১১-০৯-১৯। 
  3. "Body Text Thumri, Kajri mark final day of music festival"The Times Of India। ২০১১-০৯-১১। ২০১২-০৯-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১৭ 
  4. "Padma Awards 2016"। Press Information Bureau, Government of India। ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  5. "Low at Bhatkhande"The Times Of India। ২০০৯-০৯-০৯। ২০১২-০৭-০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১৭ 
  6. Tripathi, Shailaja (২০১০-০২-২৫)। "Hues of Hori"The Hindu। Chennai, India। 
  7. "Election Commission 'sveeps' polls in first phase"The Times Of India। ২০১২-০২-০৯। 
  8. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২৮ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  9. https://www.hcipos.gov.in/event.php
  10. "Malini Awasthi Enthrals The Audience"Mauritius Times। ২১ ডিসেম্বর ২০১৫। 
  11. http://www.eternalmewar.in/media/newsletter/templates/2019/nl212/mmfaa2019/index.htm
  12. http://www.newindianexpress.com/thesundaystandard/2019/jun/09/berlin-calling-for-malini-awasthi-1987935.html
  13. https://www.telegraph.co.uk/culture/music/worldfolkandjazz/8437627/Mystical-moment-please-switch-off-your-iPhone.html
  14. https://www.shethepeople.tv/news/sonal-mansingh-malini-awasthi-akademi-awardees
  15. https://www.bhaskar.com/news/UP-GOR-malini-awasthi-got-padma-shri-award-5285404-PHO.html
  16. https://www.hindustantimes.com/india/yash-bharti-to-13-personalities/story-6qSdMSJNYsBOjtntVAK6dO.html

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]