মালাক্কা (শহর)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মালাক্কা শহর
Bandar Melaka
Stadthuys, Malacca
Stadthuys, Malacca
মালাক্কা শহরের অফিসিয়াল সীলমোহর
সীলমোহর
নাম: Bandar Raya Bersejarah
(ইংরেজি: Historical city)
মালাক্কা শহর মালয়েশিয়া-এ অবস্থিত
মালাক্কা শহর
মালাক্কা শহর
Location in Malaysia
স্থানাঙ্ক: ২°১১′২০″ উত্তর ১০২°২৩′৪″ পূর্ব / ২.১৮৮৮৯° উত্তর ১০২.৩৮৪৪৪° পূর্ব / 2.18889; 102.38444
Country  মালয়েশিয়া
State Malacca
Establishment 1396
Granted city status 2003
সরকার
 • Mayor Yusof Bin Jantan
আয়তন
 • মোট ৩০৩ কিমি (১১৪.৭ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (2007)[১]
 • মোট ৪,৫৫,৩০০
 • ঘনত্ব ১৫০২.৬৪/কিমি (৩৮৯১.৮/বর্গমাইল)
সময় অঞ্চল MST (ইউটিসি+8)
 • Summer (ডিএসটি) Not observed (ইউটিসি)
ওয়েবসাইট http://www.mbmb.gov.my/

মালাক্কা মালয়েশিয়ার শহর ও সমুদ্রবন্দর এবং মালাক্কা অঙ্গরাজ্যের রাজধানী। শহরটি মালয় উপদ্বীপের দক্ষিণ-পূর্ব উপকূলে, ভারত মহাসাগর ও দক্ষিণ চীন সাগরকে সংযোগকারী মালাক্কা প্রণালীর তীরে অবস্থিত। আনুমানিক ১৪০৩ খ্রিস্টাব্দে মালয়ের জনৈক পলাতক রাজা এই শহরটি প্রতিষ্ঠা করেন। অচিরেই এটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার একটি সমৃদ্ধ বাণিজ্যকেন্দ্রে পরিণত হয়। পালতোলা জাহাজের যুগের সময় মালাক্কা শহর ছিল মালয় উপদ্বীপের সবচেয়ে ব্যস্ত বন্দরগুলির একটি। কিন্তু মালাক্কা পোতাশ্রয়টি আধুনিক সমুদ্রগামী জাহাজগুলির জন্য উপযুক্ত নয় বলে বর্তমানে বন্দরের কর্মকাণ্ড উপকূলীয় বাণিজ্যের মধ্যেই সীমিত।

১৫শ শতকে মালাক্কার রাজারা মালয় উপদ্বীপের অধিকাংশ এবং সুমাত্রা দ্বীপের উপর নিয়ন্ত্রণ স্থাপন করেন। মালাক্কার মধ্য দিয়েই মালয় অঞ্চলে ইসলামের প্রচার ও প্রসার ঘটে। নৌপর্যটক আফঁসু দি আলবুকের্কির (Afonso de Albuquerque) নেতৃত্বে পর্তুগিজেরা ১৫১১ খ্রিস্টাব্দে এই শহর দখল করে। পর্তুগিজ শাসনের সময় সেন্ট ফ্রান্সিস জেভিয়ার এখানে খ্রিস্টধর্ম প্রচার করেন। ১৬৪১ সালে ওলন্দাজরা শহরটি দখল করে। তখন থেকে ১৮২৪ সাল পর্যন্ত শহরটি ওলন্দাজদের নিয়ন্ত্রণে ছিল, তবে মাঝে ১৭৯৫-১৮০২ এবং ১৮১১-১৮১৮, এই দুই সময়ে এটি ব্রিটিশদের অধীনে ছিল। ১৮২৪ সালের পর সুমাত্রা দ্বীপের বেনকুলেন (বর্তমান বেংকুলু) শহরের বিনিময়ে যুক্তরাজ্যে ওলন্দাজদের কাছ থেকে নিয়ে নেয়। সিঙ্গাপুরের উন্নতির সাথে সাথে মালাক্কা শহরের অবনতি ঘটতে থাকে। ১৮২৬ থেকে ১৯৪৬ সাল পর্যন্ত মালাক্কা শাসনের কাজ পেনাং ও সিঙ্গাপুরের সাথে একত্রে পরিচালিত হত।

বর্তমানে এখানে সাড়ে চার লক্ষ লোকের বাস।