মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি
Blue one world trade tower .jpg
নিউ ইয়র্ক সিটি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আর্থিক কেন্দ্র[১]
মুদ্রামার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডলার (মার্কিন ডলার) হ্রাস ডলার সূচক
১ অক্টোবর ২০২০ - ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১
বাণিজ্যিক সংস্থা
ডাব্লুটিও, ওইসিডি এবং অন্যান্য
দেশের স্তর
পরিসংখ্যান
জিডিপিহ্রাস $২০.৮ ট্রিলিয়ন (২০২০ এর পূর্ববর্তী)[৪]
জিডিপি ক্রম
জিডিপি প্রবৃদ্ধি
  • ৩.০% (২০১৮) ২.২% (২০১৯)
  • −৪.৩% (২০২০e) ৩.১% (২০২১e)[৪]
মাথাপিছু জিডিপি
হ্রাস $৬৩,০৫১ (২০২০ est.)[৪]
মাথাপিছু জিডিপি ক্রম
খাত অনুযায়ী জিডিপি
বিষয় অনুযায়ী জিডিপি
  • গৃহস্থালী খরচ: ৬৮.৪%
  • সরকারি খরচ: ১৭.৩%
  • স্থায়ী মূলধায় বিনিয়োগ: ১৭.২%
  • উদ্ভাবনগুলিতে বিনিয়োগ: ০.১%
  • পণ্য ও পরিষেবার রফতানি: ১২.১%
  • পণ্য এবং পরিষেবার আমদানি: −১৫%
  • (২০১৭ est.)[৫]
  • ১.৫% (২০২০ est.)[৪]
  • ১.৭% (অগাস্ট ২০১৯)[৬]
দারিদ্র্যসীমার নিচে অবস্থিত জনসংখ্যা
  • ধনাত্মক হ্রাস ১০.৫% (২০১৯)[৭]
  • ধনাত্মক হ্রাস ৩৪.০ million (২০১৯)[৭]
শ্রমশক্তি
  • বৃদ্ধি ১৬০.৯ মিলিয়ন (অক্টোবর ২০২০)[১২]
  • বৃদ্ধি ৫৭.৪% কর্মসংস্থান হার (অক্টোবর ২০২০))[১২]
পেশা অনুযায়ী শ্রমশক্তি
বেকারত্ব
  • ধনাত্মক হ্রাস ৬.৯% (অক্টোবর ২০২০)[১২]
  • ধনাত্মক হ্রাস ১৩.৯% যুব বেকার (২০২০ অক্টোবর; ১৬ থেকে ১৯ বছর বয়সী)[১২]
  • ধনাত্মক হ্রাস ১১.১ মিলিয়নবেকার (October 2020)[১২]
গড় বেতন
$৬৩,০৯৩ (২০১৮)[১৪]
মধ্যক বেতন
বৃদ্ধি $936 weekly (Q4, 2019)[১৫]
প্রধান শিল্পসমূহ
বৃদ্ধি 6th (very easy, 2020)[১৬]
External
রপ্তানিহ্রাস $১.৬৪ ট্রিলিয়ন (২০১৯)[১৭]
রপ্তানি পণ্য
প্রধান রপ্তানি অংশীদার
আমদানিহ্রাস $2.49 trillion (2019)[১৭]
আমদানি পণ্য
প্রধান আমদানি অংশীদার
এফডিআই স্টক
  • বৃদ্ধি $৪.০৮ ট্রিলিয়ন (৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ est.)[২০]
  • বৃদ্ধি Abroad: $5.711 trillion (31 December 2017 est.)[২০]
হ্রাস −$৪৪৯.১ বিলিয়ন (২০১৭ est.)[২০]
নেতিবাচক বৃদ্ধি $26.7 trillion (August 2020)[২১] note: approximately 4/5ths of US external debt is denominated in US dollars[২০]
সরকারি অর্থসংস্থান
নেতিবাচক বৃদ্ধি 107.71% of GDP (Q1 2020)[২২]
রাজস্ব$3.3 trillion (2018)[২৩][২৪]
ব্যয়$4.1 trillion (2018)[২৪]
অর্থনৈতিক সহযোগিতাdonor: ODA, $35.26 billion (2017)[২৫]


বৈদেশিক মুদ্রার ভাণ্ডার
$41.8 billion (Aug 2020)[৩১]
মূল উপাত্ত সূত্র: সিআইএ ওয়ার্ল্ড ফ্যাক্টবুক
মুদ্রা অনুল্লেখিত থাকলে তা মার্কিন ডলার এককে রয়েছে বলে ধরে নিতে হবে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি একটি মিশ্র অর্থনীতি সহ একটি অত্যন্ত উন্নত দেশ[৩২][৩৩] এটি নামমাত্র জিডিপিমোট সম্পদ অনুযায়ী বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতি এবং ক্রয় শক্তি সমতা (পিপিপি) অনুযায়ী দ্বিতীয় বৃহত্তম।[৩৪] এটির মাথাপিছু জিডিপি (নামমাত্র) বিশ্বের অষ্টম সর্বোচ্চ এবং ২০১৯ সালে মাথাপিছু জিডিপিতে (পিপিপি) দশম সর্বোচ্চ।[৩৫] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্বের সবচেয়ে প্রযুক্তিগতভাবে শক্তিশালী অর্থনীতি রয়েছে এবং এর সংস্থাগুলি প্রযুক্তিগত অগ্রগতিতে, বিশেষত কম্পিউটার, ফার্মাসিউটিক্যালসচিকিৎসা বিজ্ঞান, মহাকাশ এবং সামরিক সরঞ্জামগুলিতে সামনের দিকে বা নিকটে রয়েছে রয়েছে।[৩৬] মার্কিন ডলার হল আন্তর্জাতিক লেনদেনগুলিতে সর্বাধিক ব্যবহৃত মুদ্রা এবং এটি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় রিজার্ভ মুদ্রা, এর অর্থনীতি তার সামরিক, পেট্রোডলার ব্যবস্থা ও এর সাথে যুক্ত ইউরোডলার এবং যুক্তরাষ্ট্রে বৃহৎ ট্রেজারি মার্কেট দ্বারা সমর্থিত।[৩৭][৩৮] বেশ কয়েকটি দেশ এটিকে তাদের সরকারি মুদ্রা হিসাবে ব্যবহার করে এবং অন্যদের মধ্যে এটি ডি-ফ্যাক্টো মুদ্রা[৩৯][৪০] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম বাণিজ্য অংশীদার হল চীন, কানাডা, মেক্সিকো, জাপান, জার্মানি, দক্ষিণ কোরিয়া, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ভারত এবং তাইওয়ান[৪১] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের বৃহত্তম আমদানিকারক এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম রফতানিকারক[৪২] এনএএফটিএ, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, ইসরায়েল সহ বিভিন্ন দেশের সাথে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি রয়েছে এবং আরও কয়েকটি দেশের সাথে কার্যকর বা আলোচনার অধীনে রয়েছে।[৪৩]

দেশটির অর্থনীতি প্রচুর প্রাকৃতিক সম্পদ, একটি উন্নত অবকাঠামো এবং উচ্চ উৎপাদনশীলতা দ্বারা প্রসার হয়।[৪৪] এটির প্রাকৃতিক সম্পদের সপ্তম সর্বাধিক সর্বোচ্চ মোট প্রাক্কলিত মূল্য রয়েছে, যার ২০১৫ সালের অন্তর্গঠিত মূল্য ৪৫ মিলিয়ন ডলার। ওইসিডি সদস্য দেশগুলির মধ্যে আমেরিকানদের সর্বোচ্চ গড় পারিবারিক ও কর্মচারী আয় রয়েছে[৪৫] এবং ২০১০ সালে তারা চতুর্থ সর্বোচ্চ মধ্যম পরিবারের আয়ের পরিমাণ অর্জন করেছে[৪৬], যা ২০০৭ সালের তুলনায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ থেকে নিচে।[৪৭][৪৮] ১৮৯০ সালের থেকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে উৎপাদনশীল অর্থনীতিতে ছিল।[৪৯] এটি বিশ্বের পেট্রোলিয়াম এবং প্রাকৃতিক গ্যাসের বৃহত্তম উৎপাদনকারী।[৫০] এটি ২০১৬ সালে বিশ্বের বৃহত্তম বাণিজ্যকারী দেশ,[৫১] পাশাপাশি দ্বিতীয় বৃহত্তম নির্মাতা, বৈশ্বিক উৎপাদন আয়ের এক পঞ্চমাংশের প্রতিনিধিত্ব করে।[৫২] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কেবল শুধুমাত্র পণ্যগুলির বৃহত্তম অভ্যন্তরীণ বাজার রয়েছে তাই নয়, পরিষেবাগুলির বাণিজ্যেও আধিপত্য রয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মোট বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল $৪.২ ট্রিলিয়ন।[৫৩] বিশ্বের ৫০০ টি বৃহত্তম সংস্থার মধ্যে ১২১ টির সদর দফতর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছে।[৫৪] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্বের মধ্যে সর্বাধিক সংখ্যক বিলিয়নেয়া রয়েছে, যাদের মোট সম্পদের পরিমাণ $৩.০ ট্রিলিয়ন।[৫৫][৫৬] ২০২০ সালের আগস্ট মাসে মার্কিন বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলির সম্পদের পরিমাণ ছিল $২০ ট্রিলিয়ন।[৫৭] ইউএস গ্লোবাল সম্পদ ব্যবস্থাপনার অধীনে $৩০ ট্রিলিয়নের বেশি সম্পত্তি ছিল।[৫৮][৫৯]

নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জ এবং ন্যাসড্যাক বাজার মূলধনবাণিজ্যের পরিমাণের অনুসারে বিশ্বের বৃহত্তম স্টক এক্সচেঞ্জ[৬০][৬১] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিদেশী বিনিয়োগের মোট পরিমাণ প্রায় $৪.০ ট্রিলিয়ন[৬২], বিদেশী দেশে মার্কিন বিনিয়োগের মোট পরিমাণ $৫.৬ট্রিলিয়ন ডলারেরও বেশি।[৬৩] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি ভেঞ্চার ক্যাপিটাল[৬৪] এবং গ্লোবাল রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট ফান্ডিংয়ের আন্তর্জাতিক র‌্যাঙ্কিংয়ে প্রথম অবস্থানে রয়েছে।[৬৫] গ্রাহক ব্যয় ২০১৮ সালে মার্কিন অর্থনীতির ৬৮% নিয়ে গঠিত,[৬৬] যদিও এর আয়ের শ্রম অংশটি ২০১৭ সালে ৪৩% ছিল।[৬৭] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্বের বৃহত্তম ভোক্তা বাজার রয়েছে।[৬৮] দেশটির শ্রমবাজার বিশ্বজুড়ে অভিবাসীদের আকৃষ্ট করেছে এবং এর নেট অভিবাসন হার বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ।[৬৯] ব্যবসায়ে স্বাচ্ছন্দ্যতার সূচক, বিশ্বব্যাপী প্রতিযোগিতা প্রতিবেদন এবং অন্যান্য গবেষণার হিসাবে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় অর্থনীতিগুলির মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অন্যতম।[৭০]

২০০৭ সালের ডিসেম্বর মাস থেকে ২০০৯ সালের জুন মাস পর্যন্ত স্থায়ী হিসাবে সংজ্ঞায়িত মহা মন্দার সময় আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি একটি মারাত্মক অর্থনৈতিক মন্দা অনুভব করে। তবে, বাস্তব জিডিপি ২০১১ সালের মধ্যে তার পূর্ব-সঙ্কট (২০০৭ সালের শেষের দিকে) সময়ের জিডিপি-এর শীর্ষে,[৭১] কিউ ২, ২০১২ সালের মধ্যে গৃহস্থালীর সম্পদ,[৭২] ২০১৪ সালে মে মাসের[৭৩] বেসরকারী বেতনভিত্তিক চাকরি এবং ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর মধ্যে বেকারত্বের হারে ফিরে আসে।[৭৪] এই তারিখগুলি অনুসরণ করে এই প্রতিটি পরিবর্তক উত্তর-মন্দা নথিভুক্ত অঞ্চলে অব্যাহত রেখেছে, ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসের মধ্যে নথিভুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের পুনরুদ্ধারটি দ্বিতীয় দীর্ঘতম হয়ে উঠে।[৭৫] ২০২০ সালের প্রথম দুই প্রান্তিকে[৭৬] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে মন্দায় প্রবেশ করে। এই করোনাভাইরাস মন্দাকে মহামন্দার থেকও তীব্র বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দা এবং মহামন্দার চেয়ে "আরও খারাপ" হিসাবে ব্যাপকভাবে বর্ণনা করা হয়।[৭৭][৭৮][৭৯][৮০] যুক্তরাষ্ট্র ২০১৭ সালে ১৫৬ টি দেশের মধ্যে আয়ের বৈষম্যে ক্ষেত্রে ৪১ম সর্বোচ্চ[৮১] এবং অন্যান্য পাশ্চাত্য দেশগুলির তুলনায় সর্বোচ্চ।[৮২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The Global Financial Centres iIndex 18" (PDF)। Long Finance। সেপ্টেম্বর ২০১৫। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০২০ 
  2. "World Economic Outlook Database, April 2019"IMF.orgInternational Monetary Fund। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  3. "World Bank Country and Lending Groups"datahelpdesk.worldbank.orgWorld Bank। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  4. "World Economic Outlook Database, October 2020"IMF.org। International Monetary Fund। সংগ্রহের তারিখ ১৮ অক্টোবর ২০২০ 
  5. "Field Listing: GDP – Composition, by Sector of Origin"Central Intelligence Agency World FactbookCentral Intelligence Agency। মার্চ ৫, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ৩, ২০১৮ 
  6. "Consumer Price Index – August 2019"। CNBC। 
  7. "Income and Poverty in the United States: 2019"United States Census Bureau। সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৫, ২০২০ 
  8. "Income Distribution Measures and Percent Change Using Money Income and Equivalence-Adjusted Income" (PDF)census.gov। United States Census Bureau। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৫, ২০২০ 
  9. "The Distribution of Household Income, 2017" (PDF)cbo.govCongressional Budget Office। অক্টোবর ২, ২০২০। পৃষ্ঠা 31, 32। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১৯, ২০২০ 
  10. "Human Development Index (HDI)"hdr.undp.orgHDRO (Human Development Report Office) United Nations Development Programme। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  11. "Inequality-adjusted HDI (IHDI)"hdr.undp.orgUNDP। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০২০ 
  12. "Employment status of the civilian population by sex and age"BLS.govBureau of Labor Statistics। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৪, ২০২০ 
  13. "Employment by major industry sector"। Bureau of Labor Statistics। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৫, ২০১৮ 
  14. "Usual Weekly Earnings of Wage and Salary Workers First Quarter 2017"Bureau of Labor Statistics। U.S. Department of Labor। জুলাই ১৭, ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  15. "Usual Weekly Earnings Summary"www.bls.gov। Bureau of Labor Statistics। জানুয়ারি ১৭, ২০২০। 
  16. "Ease of Doing Business in United States"। Doingbusiness.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১১-২১ 
  17. "U.S. trade in goods with World, Seasonally Adjusted"United States Census Bureau। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৮ 
  18. "Exports of goods by principal end-use category" (PDF)Census Bureau 
  19. "Imports of goods by principal end-use category" (PDF)Census Bureau 
  20. "The World Factbook"CIA.govCentral Intelligence Agency। জুন ৮, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ১৭, ২০১৯ 
  21. "Treasury TIC Data"। U.S. Department of the Treasury। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-০৯ 
  22. Federal Reserve Bank of St. Louis; U.S. Office of Management and Budget (১ জানুয়ারি ১৯৬৬)। "Federal Debt: Total Public Debt as Percent of Gross Domestic Product"FRED, Federal Reserve Bank of St. Louis 
  23. "US Government Finances: Revenue, Deficit, Debt, Spending since 1792" 
  24. "The Budget and Economic Outlook: 2017 to 2027"Congressional Budget Office 
  25. "Development aid rises again in 2016 but flows to poorest countries dip"OECD। ২০১৭-০৪-১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৯-২৫ 
  26. "Sovereigns rating list"। Standard & Poor's। জুন ১৮, ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ২০, ২০১১ 
  27. Rogers, Simon; Sedghi, Ami (এপ্রিল ১৫, ২০১১)। "How Fitch, Moody's and S&P rate each country's credit rating"The Guardian। London। সংগ্রহের তারিখ মে ২৮, ২০১১ 
  28. Riley, Charles (আগস্ট ২, ২০১১)। "Moody's affirms Aaa rating, lowers outlook"। CNN। 
  29. "Fitch Affirms United States at 'AAA'; Outlook Stable"Fitch Ratings 
  30. "Scope affirms the USA's credit rating of AA with Stable Outlook"Scope Ratings 
  31. "U.S. International Reserve Position"Treasury.gov। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জানু ২০১৯ 
  32. "U.S. Economy – Basic Conditions & Resources"। U.S. Diplomatic Mission to Germany। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ২৪, ২০১১The United States is said to have a mixed economy because privately owned businesses and government both play important roles. 
  33. "Outline of the U.S. Economy – How the U.S. Economy Works"। U.S. Embassy Information Resource Center। জানুয়ারি ১৪, ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ২৪, ২০১১As a result, the American economy is perhaps better described as a "mixed" economy, with government playing an important role along with private enterprise. Although Americans often disagree about exactly where to draw the line between their beliefs in both free enterprise and government management, the mixed economy they have developed has been remarkably successful. 
  34. "Report for Selected Country Groups and Subjects (PPP valuation of country GDP)" (ইংরেজি ভাষায়)। IMF। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  35. "World Economic Outlook Database, April 2019"IMF.orgInternational Monetary Fund। সংগ্রহের তারিখ ৯ এপ্রিল ২০১৯ 
  36. "United States reference resource"The World Factbook Central Intelligence Agency। ৮ জুন ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০১৯ 
  37. "The Implementation of Monetary Policy – The Federal Reserve in the International Sphere" (PDF)। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ২৪, ২০১০ 
  38. Zaw Thiha Tun (জুলাই ২৯, ২০১৫)। "How Petrodollars Affect The U.S. Dollar"। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১৪, ২০১৬ 
  39. Benjamin J. Cohen, The Future of Money, Princeton University Press, 2006, আইএসবিএন ০৬৯১১১৬৬৬০; cf. "the dollar is the de facto currency in Cambodia", Charles Agar, Frommer's Vietnam, 2006, আইএসবিএন ০৪৭১৭৯৮১৬৯, p. 17
  40. "US GDP Growth Rate by Year"multpl.com। US Bureau of Economic Analysis। মার্চ ৩১, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৮, ২০১৪ 
  41. "Top Trading Partners"। U.S. Census Bureau। ডিসেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৮, ২০১৭ 
  42. "World Trade Statistical Review 2019" (PDF)World Trade Organization। পৃষ্ঠা 100। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০১৯ 
  43. "United States free trade agreements"Office of the United States Trade Representative। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০১৯ 
  44. Wright, Gavin, and Jesse Czelusta, "Resource-Based Growth Past and Present", in Natural Resources: Neither Curse Nor Destiny, ed. Daniel Lederman and William Maloney (World Bank, 2007), p. 185. আইএসবিএন ০৮২১৩৬৫৪৫২.
  45. Anthony, Craig (১২ সেপ্টেম্বর ২০১৬)। "10 Countries With The Most Natural Resources"Investopedia 
  46. "Income"Better Life Index। OECD। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯In the United States, the average household net adjusted disposable income per capita is USD 45 284 a year, much higher than the OECD average of USD 33 604 and the highest figure in the OECD. 
  47. "Household Income"Society at a Glance 2014: OECD Social Indicators। Society at a Glance। OECD Publishing। মার্চ ১৮, ২০১৪। আইএসবিএন 9789264200722ডিওআই:10.1787/soc_glance-2014-enঅবাধে প্রবেশযোগ্য। সংগ্রহের তারিখ মে ২৯, ২০১৪ 
  48. "OECD Better Life Index"। OECD। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২৫, ২০১২ 
  49. Digital History; Steven Mintz। "Digital History"। Digitalhistory.uh.edu। ২০০৪-০৩-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ২১, ২০১২ 
  50. "United States remains the world's top producer of petroleum and natural gas hydrocarbons"EIA 
  51. Katsuhiko Hara and Issaku Harada (staff writers) (১৩ এপ্রিল ২০১৭)। "US overtook China as top trading nation in 2016"Nikkei Asian Review। Tokyo। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৬-২২ 
  52. Vargo, Frank (মার্চ ১১, ২০১১)। "U.S. Manufacturing Remains World's Largest"। Shopfloor। এপ্রিল ৪, ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২৮, ২০১২ 
  53. "Trade recovery expected in 2017 and 2018, amid policy uncertainty"। Geneva, Switzerland: World Trade Organization। ১২ এপ্রিল ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৬-২২ 
  54. "Global 500 2016"Fortune  Number of companies data taken from the "Country" filter.
  55. "The US is home to more billionaires than China, Germany and Russia combined"। CNBC। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১৯ 
  56. "Wealth-X's Billionaire Census 2019 report reveals insights and trends about the world's top billionaires"hk.asiatatler.com। সংগ্রহের তারিখ মে ১৪, ২০১৯ 
  57. https://fred.stlouisfed.org/series/TLAACBW027SBOG/
  58. http://www.agefi.fr/sites/agefi.fr/files/fichiers/2016/07/bcg-doubling-down-on-data-july-2016_tcm80-2113701.pdf
  59. https://repositorio.cepal.org/bitstream/handle/11362/45045/1/S1900994_en.pdf
  60. "Monthly Reports - World Federation of Exchanges"। WFE। 
  61. Table A – Market Capitalization of the World's Top Stock Exchanges (As at end of June 2012). Securities and Exchange Commission (China).
  62. "CIA – The World Factbook"। Cia.gov। ডিসেম্বর ১১, ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ২১, ২০১২ 
  63. "CIA – The World Factbook"। Cia.gov। ডিসেম্বর ১১, ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ২১, ২০১২ 
  64. Adapting and evolving – Global venture capital insights and trends 2014. EY, 2014.
  65. "2014 Global R&D Funding Forecast" (PDF)battelle.org। ডিসেম্বর ১৬, ২০১৩। ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১৪ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  66. "Personal consumption expenditures (PCE)/gross domestic product (GDP)" FRED Graph, Federal Reserve Bank of St. Louis
  67. "Shares of gross domestic income: Compensation of employees, paid: Wage and salary accruals: Disbursements: To persons" FRED Graph, Federal Reserve Bank of St. Louis
  68. "United Nations Statistics Division – National Accounts Main Aggregates Database" 
  69. "Country comparison :: net migration rate"Central Intelligence Agency। The World Factbook। ২০১৪। ডিসেম্বর ২৬, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৮, ২০১৪ 
  70. Rankings: Global Competitiveness Report 2013–2014 (PDF), World Economic Forum, সংগ্রহের তারিখ জুন ১, ২০১৪ 
  71. FRED – Real GDP
  72. FRED – Household Net Worth
  73. FRED-Total Non-Farm Payrolls
  74. FRED-Civilian Unemployment Rate
  75. The New York Times. Casselbaum. "Up, Up, Up Goes the Economy". March 20, 2018
  76. Pound, Jesse (২৮ আগস্ট ২০২০)। "Fed's Bullard says the recession is over but rates will 'stay low for a long time'"CNBC। সংগ্রহের তারিখ ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  77. "The Great Recession Was Bad. The 'Great Lockdown' Is Worse."BloombergQuint। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০২০ 
  78. "IMF Says 'Great Lockdown' Worst Recession Since Depression, Far Worse Than Last Crisis"nysscpa.org। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০২০ 
  79. Ben Winck (১৪ এপ্রিল ২০২০)। "IMF economic outlook: 'Great Lockdown' will be worst recession in century"। Business Insider। সংগ্রহের তারিখ ২৭ এপ্রিল ২০২০ 
  80. Larry Elliott Economics editor। "'Great Lockdown' to rival Great Depression with 3% hit to global economy, says IMF | Business"। The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ২৭ এপ্রিল ২০২০ 
  81. "CIA World Factbook "Distribution of Family Income""। ৪ জুন ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ নভেম্বর ২০২০ 
  82. Gray, Sarah (জুন ৪, ২০১৮)। "Trump Policies Highlighted in Scathing U.N. Report On U.S. Poverty"Fortune। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮"The United States has the highest rate of income inequality among Western countries", the report states. 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]