মানকাচর মহাবিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মানকাচর মহাবিদ্যালয়
ধরনসরকারী
স্থাপিত১৯৭১
অধ্যক্ষড০ আবেদ আলী
অবস্থান, ,
সংক্ষিপ্ত নামমানকাচর কলেজ
অধিভুক্তিগুয়াহাটি বিশ্ববিদ্যালয়, গুয়াহাটি

মানকাচর মহাবিদ্যালয় আসামের মানকাচর শহর থেকে এক কিঃমিঃ দূরে অবস্থিত এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।[১] আসাম সরকারের প্রাক্তন মন্ত্রী প্রয়াত জেহিরুল ইসলামের সাথে মানকাচর অঞ্চলের কিছু উদ্যমী লোকের প্রচেষ্টায় এই মহাবিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা হয়েছিল ১৯৭১ সালে। এর প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন মিহির দেব। বর্তমানে গুয়াহাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত এই মহাবিদ্যালয়টি জাতীয় মূল্যাঙ্কন এবং প্রত্যাপন পরিষদ (ইংরাজী: National Assessment and Accreditation Council) দ্বারা 'B+' শ্রেণীর মহাবিদ্যালয় হিসাবে চিহ্নিত হয় ২০১৬ সালে।

সংক্ষিপ্ত ইতিহাস[সম্পাদনা]

ভারতে স্বাধীনতা লাভের ২৪ বছর পরে ১৬জুলাই, ১৯৭১য়ে মানকাচর মহাবিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাপিত হয়। দক্ষিণ শালমারা-মানকাচর জেলার এটিই একমাত্র প্রাদেশীক উচ্চশিক্ষার অনুষ্ঠান। মাত্র ৭৯ জন শিক্ষার্থী নিয়েআরম্ভ হওয়া এই মহাবিদ্যালয় বর্তমানে এক বৃহৎ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ১৯৯৯ সালে এই মহাবিদ্যালয়ে বিজ্ঞান শাখা মুক্ত হওয়ায় এর ইতিহাসে এক নতুন পৃষ্ঠা সংযোজিত হয়।

সুবিধাসমূহ[সম্পাদনা]

এই মহাবিদ্যালয়টির আয়তন ১৬.১০ একর (আনুমানিক)। এখানে কলা এবং বিজ্ঞান শাখায় শিক্ষাদানের জন্য অনেকগুলি ভবন আছে। স্নাতক পর্যায়ে এখানে ছয়টা বিভাগ পাঁচটা বিষয়ক প্রধান বিষয় হিসাবে শিক্ষাদান করে। সাথে এখানে গুয়াহাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের IDOL এবং KKHOUর অধীনে অনেকগুলি বিষয়ে স্নাতকোত্তর শিক্ষা লাভেরও সুবিধা আছে। এই মহাবিদ্যালয়ে থাকা অন্য সুবিধাসমূহ হল- একটি স্থায়ী গ্রন্থাগার, একটি ছাত্রীনিবাস, জিম, comunity information center, কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, স্মার্ট ক্লাসরুম, অত্যাধুনিক কনফারেন্স রুম , বাস্কেটবল ফিল্ড, মহাবিদ্যালয় ক্যান্টিন ইত্যাদি।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

মহাবিদ্যালয়টিতে নিচে দেয়া বিভাগসমূহে শিক্ষা প্রদান করা হয়:

  • স্নাতক কলা (সম্মানসহ)
  • স্নাতক কলা (সাধারণ)
  • স্নাতক বিজ্ঞান (সম্মানসহ)
  • স্নাতক বিজ্ঞান (সাধারণ)
  • উচ্চতর মাধ্যমিক (কলা)

অন্যান্য পাঠক্রমসমূহের মধ্যে হল[সম্পাদনা]

  • এক বছরের কম্পিউটার ডিপ্লোমা
  • ছয় মাসের কম্পিউটার প্রমাণ-পত্র শিক্ষা
  • স্নাতকোত্তর (IDOL এবং KKHOU র অন্তর্গত)

বিভাগ[সম্পাদনা]

কলা[সম্পাদনা]

  • অসমীয়া বিভাগ
  • ইংরাজী বিভাগ
  • শিক্ষা বিভাগ
  • অর্থনীতি বিভাগ
  • ইতিহাস বিভাগ
  • রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগ

বিজ্ঞান[সম্পাদনা]

  • জীব বিজ্ঞান বিভাগ
  • রসায়ন বিজ্ঞান বিভাগ
  • পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগ
  • উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগ
  • গণিত বিভাগ

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Prospectus, Mankachar College। Mankachar: Mankachar College। ২০১৯–২০। পৃষ্ঠা ৩।