মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির প্রশাসনিক বিভাগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বর্তমান তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ এবং কর্ণাটক, কেরালা, তেলেঙ্গানাওড়িশার একাধিক জেলা ও তালুক নিয়ে গঠিত ছিল ব্রিটিশ ভারতের দক্ষিণতম প্রশাসনিক খণ্ড মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সি৷ রামনাড়পুদুকোট্টাইয়ের মতো ছোট বড় দেশীয় রাজ্যগুলিও স্বাধীন ভারতে মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির অন্তর্ভুক্ত করা হয়৷ ১৯৫০ খ্রিস্টাব্দে ভারত সংবিধান স্বীকৃত গণতন্ত্রে পরিণত হলে মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সি মাদ্রাজ প্রদেশে পরিবর্তিত হয়৷ ১৯৫৩ খ্রিস্টাব্দে এই প্রেসিডেন্সির তেলুগু ভাষী জেলাগুলি নিয়ে অন্ধ্র রাজ্য গঠন করা হয়৷ এর পরপর ১৯৫৯ খ্রিস্টাব্দে কন্নড় ভাষী ও মালয়ালম ভাষী জেলা ও অঞ্চল যথাক্রমে মহীশূরত্রিবাঙ্কুর রাজ্যের সাথে যুক্ত করা হয়৷

প্রেসিডেন্সির প্রশাসনিক ক্ষেত্র[সম্পাদনা]

মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সি ১৯৫১

মাদ্রাজ প্রেসাডেন্সির জেলাগুলি পাঁচটি ক্ষেত্রে বিভক্ত ছিল:[১]

পশ্চিম উপকূল[সম্পাদনা]

প্রেসিডেন্সির আরব সাগর সংলগ্ন জেলাগুলি নিয়ে গঠিত ছিলো পশ্চিম উপকূল অঞ্চল৷ বর্তমানে এগুলি মূলত তৎকালীন মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির অন্তর্ভুক্ত কর্ণাটককেরালার উপকূলবর্তী জেলার সমষ্টি৷[১]

দাক্ষিণাত্য[সম্পাদনা]

ইঙ্গ-মহীশূর যুদ্ধের পর মহীশূর রাজ্য থেকে ব্রিটিশদের যে সকল জেলা প্রাপ্তি ঘটে তা ছিলো দাক্ষিণাত্যের অন্তর্ভুক্ত৷ অবশ্য এর অন্তর্ভুক্ত জেলাগুলি সমর্পিত জেলা নামেও পরিচিত ছিল৷ বর্তমানে কর্ণাটকের বেল্লারী, অন্ধ্রপ্রদেশের অনন্তপুর, কাডাপা এবং কর্নুল জেলা ছিল এই ক্ষেত্রের অন্তর্গত৷[২]

এজেন্সি[সম্পাদনা]

পূর্বঘাট পর্বতমালা বরাবর অবস্থিত পার্বত্য অঞ্চল, বর্তমান উপকূলীয় অন্ধ্র, বিশাখাপত্তনম জেলা, ওড়িশার গঞ্জাম জেলার অঞ্চলগুলিকে এজেন্সি বলা হতো৷ এই অঞ্চলগুলি ব্রিটিশ গভর্নরের এজেন্ট ব্রিটিশ জেলা সমাহর্তা (ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টর) দ্বারা শাসিত হতো৷[২]

উত্তরের সরকার[সম্পাদনা]

এই ক্ষেত্রের অন্তর্ভুক্ত ছিল বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূলীয় অন্ধ্র বিভাগ এবং ওড়িশার গঞ্জাম জেলা ও পরবর্তীতে জয়পুর রাজ্যের মতো কিছু করদ দেশীয় রাজ্য৷[২]

করমণ্ডল[সম্পাদনা]

প্রেসাডেন্সির দক্ষিণের বিভাগ, যা বর্তমান তামিলনাড়ু রাজ্যের সীমানার অনুরূপ ও অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের চিত্তুর জেলা নিয়ে গঠিত ছিল৷ ব্রিটিশ উচ্চারণে এটি করমণ্ডল হলেও স্থানীয়ভাবে এটির নাম ছিল চোলমণ্ডল৷ বর্তমান করমণ্ডল উপকূল এই ক্ষেত্রের নামানুসারেই এসেছে৷[২]

প্রেসিডেন্সির জেলা[সম্পাদনা]

১৮৮০ খ্রিস্টাব্দে মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির মানচিত্র

ব্রিটিশ ভারতে মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সি ২৬ টি জেলা নিয়ে গঠিত ছিল৷[৩][৪] এগুলি হলো যথাক্রমে:

  1. গঞ্জাম (ওড়িশা)
  2. বিশাখাপত্তনম (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  3. পূর্ব গোদাবরী (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  4. পশ্চিম গোদাবরী (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  5. কৃষ্ণা (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  6. গুণ্টুর (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  7. কর্নুল (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  8. বেল্লারী (কর্ণাটক)
  9. অনন্তপুর (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  10. কাডাপা (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  11. নেল্লোর (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  12. চিত্তুর (অন্ধ্রপ্রদেশ)
  13. দক্ষিণ কানাড়া (কর্ণাটক ও কেরালা)
  14. মালাবার (কেরালা)
  15. নীলগিরি (তামিলনাড়ু)
  16. কোয়েম্বাটুর (তামিলনাড়ু)
  17. সালেম (তামিলনাড়ু)
  18. উত্তর আর্কট (তামিলনাড়ু)
  19. চিঙ্গলপৎ (তামিলনাড়ু)
  20. মাদ্রাজ শহর (তামিলনাড়ু)
  21. দক্ষিণ আর্কট (তামিলনাড়ু)
  22. ত্রিচিনোপলি (তামিলনাড়ু)
  23. তাঞ্জোর (তামিলনাড়ু)
  24. রামনাড় (তামিলনাড়ু)
  25. মধুরা (তামিলনাড়ু)
  26. তিন্নেবেলী (তামিলনাড়ু)

গঞ্জাম[সম্পাদনা]

বর্তমান ওড়িশা রাজ্যের গজপতিগঞ্জাম জেলা দুটি নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির গঞ্জাম জেলা৷ এটি ছিল মূলত ওড়িয়া ভাষী জেলা৷

বিশাখাপত্তনম[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের শ্রীকাকুলাম, বিশাখাপত্তনমবিজয়নগরম জেলা তিনটি নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির বিশাখাপত্তনম জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

পূর্ব গোদাবরী[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের পূর্ব গোদাবরী জেলা ও তেলেঙ্গানা রাজ্যের মুলুগু জেলার ওয়াজেড়, বেঙ্কটপুরম তহশিল ও ভদ্রাদ্রি কোথাগুড়েম জেলার চেরলা ও দুম্মুগুড়েম তহশিল নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির পূর্ব গোদাবরী জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

পশ্চিম গোদাবরী[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের পশ্চিম গোদাবরী জেলাই পূর্বতন মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির পশ্চিম গোদাবরী জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

কৃষ্ণা[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের কৃষ্ণা জেলাই পূর্বতন মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির কৃষ্ণা জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

গুণ্টুর[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের গুণ্টুর জেলা ও প্রকাশম জেলার আদ্দঙ্কি, চিরালা ও ওঙ্গোল নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির গুণ্টুর জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

কর্নুল[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের কর্নুল জেলা ও প্রকাশম জেলার মার্কাপুর, গিদ্দলুর ও ইয়রাগোণ্ডাপালেম নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির কর্নুল জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

বেল্লারী[সম্পাদনা]

বর্তমান কর্ণাটক রাজ্যের বেল্লারীবিজয়নগর জেলা তিনটি নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির বেল্লারী জেলা৷ এটি ছিল মূলত কন্নড় ভাষী জেলা৷

অনন্তপুর[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের অনন্তপুর জেলাই পূর্বতন মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির অনন্তপুর জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

কাডাপা[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের কাডাপা জেলাই পূর্বতন মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির কাডাপা জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

নেল্লোর[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের নেল্লোর জেলা ও প্রকাশম জেলার কণ্ডুকুর, কনিগিরি, দর্শি ও পোদিলি নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির নেল্লোর জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

চিত্তুর[সম্পাদনা]

বর্তমান অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের চিত্তুর জেলাই পূর্বতন মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির চিত্তুর জেলা৷ এটি ছিল মূলত তেলুগু ভাষী জেলা৷

দক্ষিণ কানাড়া[সম্পাদনা]

বর্তমান কর্ণাটক রাজ্যের দক্ষিণ কন্নড়উড়ুপি জেলাকেরালা রাজ্যের কাসারগড় জেলা নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির দক্ষিণ কানাড়া জেলা৷ এটি ছিল মূলত তুলু ভাষী জেলা৷

মালাবার[সম্পাদনা]

বর্তমান কেরালা রাজ্যের শ্রীকাকুলাম, কালিকট, বয়নাড়, মালাপ্পুরম , আলাতুর ও চিত্তুর তালুকের কিছু অংশ বাদে সম্পূর্ণ পালঘাট জেলা, ত্রিশূর জেলার সম্পূর্ণ চাওঘাট ও কদুঙ্গালুর তালকের কিছু অংশ ও এর্নাকুলাম জেলার কোচি বন্দর নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির মালাবার জেলা৷ এটি ছিল মূলত মালয়ালম ভাষী জেলা৷

নীলগিরি[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের নীলগিরি জেলাই পূর্বতন মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির নীলগিরি জেলা৷ এটি ছিল মূলত বাডাগা ভাষী জেলা৷

কোয়েম্বাটুর[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের কোয়েম্বাটুর, ইরোড়ু, তিরুপুরকর্ণাটক রাজ্যের চামরাজনগর জেলার কোল্লেগাল[৫] নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির কোয়েম্বাটুর জেলা৷ এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

সালেম[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের সালেম, ধর্মপুরী, কৃষ্ণগিরিনামক্কাল জেলা নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির সালেম জেলা৷[৬] এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

উত্তর আর্কট[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের তিরুবন্নমালাই, তিরুপত্তুর, ভেলোররাণীপেট জেলা নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির উত্তর আর্কট জেলা৷ এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

চিঙ্গলপৎ[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের তিরুভেলুর, কাঞ্চীপুরম, চেঙ্গলপট্টু জেলা ও চেন্নাই জেলার একাধিক তালুক ও গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির চিঙ্গলপৎ জেলা৷ এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

মাদ্রাজ শহর[সম্পাদনা]

পূর্বতন মাদ্রাজ জেলার উত্তর, দক্ষিণ ও পশ্চিমে একাধিক লোকালয় যুক্ত করে বর্তমান চেন্নাই জেলা গঠন করা হয়৷

দক্ষিণ আর্কট[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের ভিল্লুপুরম, কালকুরিচিকডলুর জেলা নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির দক্ষিণ আর্কট জেলা৷ এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

ত্রিচিনোপলি[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের তিরুচিরাপল্লী, কারূর, পেরম্বালুরআরিয়ালুর জেলা নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির ত্রিচিনোপলি জেলা৷ এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

তাঞ্জোর[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের তাঞ্জাবুর, তিরুবারূর, নাগপত্তনম, ময়িলাড়ুতুরাইপুদুকোট্টাই জেলার অরন্তাঙ্গী, আবুড়ায়ারকোয়িল ও মনমেলকুড়ি নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির তাঞ্জোর জেলা৷[৭] এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

রামনাড়[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের শিবগঙ্গা, রামনাথপুরমবিরুধুনগর জেলা তিনটি নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির রামনাড় জেলা৷ এরও পূর্বে এটি ছিল মধুরা জেলার অংশ৷[৮][৯][১০] এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

মধুরা[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের দিন্দিগুল, মাদুরাইতেনি জেলা তিনটি নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির মধুরা জেলা৷[১১] এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

তিন্নেবেলী[সম্পাদনা]

বর্তমান তামিলনাড়ুর রাজ্যের তেনকাশী, তুতিকোরিনতিরুনেলবেলি জেলা তিনটি নিয়ে গঠিত ছিল মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির তিন্নেবেলী জেলা৷[১২] এটি ছিল মূলত তামিল ভাষী জেলা৷

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Thurston 1913, পৃ. 8–9
  2. Thurston 1913, পৃ. 10–11
  3. Thurston 1913, p. 182
  4. https://www.researchgate.net/figure/The-Madras-Presidency-with-its-26-districts-1-Anantapur-2-Bellary-3-Chingleput_fig2_225755174/amp
  5. Madraspresidency 1862, পৃ. 35–36
  6. Madraspresidency 1862, পৃ. 33–34
  7. Madraspresidency 1862, পৃ. 16–17
  8. "Sethupathi Tondaimans"The History of Tamil Nadu 
  9. "Holder of History:The Ramnad Sethupathis"। High Beam। ২০১২-১০-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  10. "Sethupathi Dynasty of Ramnad - Guardians of Rama Sethu"। Bridge of Ram। ৬ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  11. Madraspresidency 1862, পৃ. 21–22
  12. Madraspresidency 1862, পৃ. 24–25