মাণ্ডবী নদী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(মাণ্ডবি নদী থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মান্দোবি নদী / মহাদায়ী
Goa Mandovi Bridge view from Ribandar 10-25-2008 6-14-02 PM.JPG
রিবন্দর থেকে মান্দোবি সেতু
মাণ্ডবী নদী ভারত-এ অবস্থিত
মাণ্ডবী নদী
গোয়ায় অবস্থান
অন্য নামমহাদায়ী, মহাদেই
Countryভারত
Stateকর্ণাটক, গোয়া ও মহারাষ্ট্র
অববাহিকার বৈশিষ্ট্য
মূল উৎস ভীমগড়
কর্ণাটক, ভারত
মোহনাআরব সাগর, ভারত
১৫°২৯′৩৮″ উত্তর ৭৩°৪৮′৪০″ পূর্ব / ১৫.৪৯৩৮৯° উত্তর ৭৩.৮১১১১° পূর্ব / 15.49389; 73.81111স্থানাঙ্ক: ১৫°২৯′৩৮″ উত্তর ৭৩°৪৮′৪০″ পূর্ব / ১৫.৪৯৩৮৯° উত্তর ৭৩.৮১১১১° পূর্ব / 15.49389; 73.81111
প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্য
দৈর্ঘ্য৮১ কিমি (৫০ মা)
নিষ্কাশন
  • গড় হার:
    ২০০ মি/সে (৭,১০০ ঘনফুট/সে)
শীতকালে মেঘাচ্ছন্ন দিনে মাণ্ডবি নদীর দৃশ্য, গোয়া

মাণ্ডবি নদী (ইংরেজি: Mandovi), যা মহাদায়ী বা মহাদেই নদী নামেও পরিচিত, ভারতের গোয়া রাজ্যের বেঁচে থাকার অবলম্বন হিসাবে বর্ণনা করা হয়। মাণ্ডবি এবং জুয়ারি গোয়া রাজ্যের দুটি প্রাথমিক নদী। মাণ্ডবি জুবুড়ির সাথে কাবো আগুয়াদায় একটি সাধারণ খাঁড়ির সাথে মিলিত হয়ে মার্মাগাঁও বন্দর গঠন করে। রাজ্যের রাজধানী পানজী এবং গোয়ার সাবেক রাজধানী ওল্ড গোয়া দুটোই মাণ্ডবির বাম তীরে অবস্থিত।

নদীর গতিপথ[সম্পাদনা]

নদীর মোট দৈর্ঘ্য ৮১ কিলোমিটার (৫০ মাইল); কর্ণাটকে ৩৫ কিলোমিটার (২২ মাইল), মহারাষ্ট্রে ১ কিলোমিটার (০.৬২ মাইল) এবং গোয়ায় ৪৫ কিলোমিটার (২৮ মাইল)। এটি কর্ণাটকের বেলাগাম জেলার পশ্চিম ঘাটের ভীমগড়ের ৩০টি ঝর্ণার একটি গুচ্ছ থেকে উদ্ভূত হয়েছে। [১] নদীতে মোট ২,০৩৩ বর্গ কিমি জোয়ার অঞ্চল রয়েছে। এর মধ্যে ১,৫৮০ বর্গ কিমি, ৩৭৫ বর্গ কিমি এবং ৭৭ বর্গ কিমি জোয়ার অঞ্চল যথাক্রমে গোয়া, কর্ণাটক এবং মহারাষ্ট্রে। [২] [৩] দুধসাগর জলপ্রপাত এবং ভারপোহা জলপ্রপাতের জন্য এর গাঢ় নীল জল কয়েকটি স্থানে গোমতী নামেও পরিচিত।

মাণ্ডবি কর্ণাটকের উত্তরা কন্নড় জেলা থেকে গোয়ায় প্রবেশ করে সত্তারী তালুকা হয়ে ক্যাসল রক রেলওয়ে স্টেশনের কাছে। মাণ্ডবি প্রবাহিত হয় কর্ণাটকের বেলাগাভি, উত্তর কন্নড় এবং গোয়ার কুম্বারজুয়া, দিবার এবং চোরাও হয়ে শেষ পর্যন্ত আরব সাগরে পতিত হয়। মাপুসা নদী মাণ্ডবির একটি শাখা নদী।

কুম্বারজুয়েম খাল, যা উভয় নদীর সাথে সংযোগ স্থাপন করে, মাণ্ডবির অভ্যন্তরীণ অংশে লোহা আকরিক বহনকারী জাহাজগুলিকে প্রবেশ করতে দেয়। লোহার আকরিক গোয়ার প্রধান খনিজ এবং এটি পূর্ব পার্বত্য অঞ্চলে খনন করা হয়। তিনটি বৃহৎ মিঠা পানির দ্বীপপুঞ্জ — দিবার, চারাও এবং ভ্যানক্সিম মাণ্ডবিতে পুরনো গোয়া শহরের কাছে উপস্থিত থাকে। চোরাও দ্বীপে সলিম আলির পাখি অভয়ারণ্য রয়েছে, নামটি পক্ষিবিদ সলিম আলীর নামে নামকরণ করা হয়েছে। একটি নিয়মিত ফেরি দ্বীপ এবং মূল ভূখণ্ডের মধ্যে বাসিন্দাদের পরিবহণ করে।

সেতু[সম্পাদনা]

মাণ্ডবি নদীর পর পনাজির কাছে তিন সমান্তরাল হয় সেতু, মাণ্ডবি সেতু রয়েছে। ভারী যানবাহনের জন্য ১৯৮০-এর দশকে পুরানো সেতুটি ভেঙে পড়েছিল। পরে নতুন সেতু তৈরি করা হয়। মান্ডোভি সেতু পানাজি শহরকে পোরভরিমের সাথে সংযুক্ত করে। ১৪ ই জুন, ২০১৪, তৃতীয় সেতুর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, যা গোয়ার বৃহত্তম সেতু। এটি ৫ কিলোমিটার (৩.১ মাইল) বিস্তৃত এবং বিদ্যমান সেতুগুলির তুলনায় ১৫ মিটার (৪৯ ফুট) উঁচু। তৃতীয় মান্দোভি সেতুটির নাম ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর নাম অনুসারে অটল সেতু। এই সেতুর উদ্বোধন করা হয়েছিল ২ জানুয়ারী, ২০১৯ এ কেন্দ্রীয় সড়কমন্ত্রী নিতিন গডকরি, গোয়ার সিএম মনোহর পরিকরের হাতে।

শীতের মাসগুলিতে, শীর্ষ পর্যটন মরসুম, মাণ্ডবিতে বিশেষ সন্ধ্যাকালীন নদীভ্রমণ হয় - সান্ধ্যসংগীত সেখানে পূর্ণতা আনে, যা নদীর সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। [৪]

আন্তঃদেশীয় জলের ভাগাভাগি[সম্পাদনা]

এই নদীর জলের ভাগাভাগি কর্ণাটক ও গোয়া সরকারের মধ্যে বিবাদের কারণ। আন্তঃদেশীয় নদী জল বিরোধ আইনের অধীনে মহাদয়ী জল বিরোধ ট্রাইব্যুনাল রাজ্যগুলির দ্বারা নদীর জলের ভাগাভাগি করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য গঠিত হয়েছে। আগস্ট ২০১৮ এ, মহাদয়ী জল বিরোধ ট্রাইব্যুনালের রায়ে গোয়াকে ২৪ টিএমসিফুট, কর্ণাটককে ১৩.৪২ টিএমসিফুট এবং মহারাষ্ট্রকে ১.৩৩ টিএমসিফুট ব্যবহারের জন্য অনুমতি দেয়। [২] ট্রাইব্যুনাল কর্ণাটক ও মহারাষ্ট্রে মাণ্ডবি নদীর উৎপন্ন জল যথাক্রমে ৩২.১১ টিএমসিফুট এবং ৭.২১ টিএমসিফুট হিসাবে ৭৫% নির্ভরযোগ্যতার হিসাবে মূল্যায়ন করেছে। ট্রাইব্যুনাল নদী তীরবর্তী তিনটি রাজ্যের মধ্যে ব্যবহারের জন্য মাত্র ৪০.১২৫ টিএমসিফুট মাণ্ডবি নদীর জলের ভাগাভাগি করেছে। রাজ্যকে পানি বরাদ্দ দেওয়ার ক্ষেত্রে অবিচার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করে কর্ণাটক সুপ্রিম কোর্টে পর্যন্ত গিয়েছিল। [৫]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Mahadayi River"। India9.com। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  2. "Mahadayi water dispute tribunal report (pages 2693 to 2706, Volume XII)"। সংগ্রহের তারিখ ১৭ আগস্ট ২০১৮ 
  3. "Turmoil over Mhadei River"। Daijiworld। ১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০১৩ 
  4. "Oh!Mandovi"Navhind Times। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১০-১৬ 
  5. "Mahadayi row: Karnataka petitions SC challenging tribunal decision on water allocation"। সংগ্রহের তারিখ ১৪ নভেম্বর ২০১৮