মন্তেভার্দে বৃষ্টিপ্রবণ সংরক্ষিত বনাঞ্চল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মন্তেভার্দে বৃষ্টিপ্রবণ সংরক্ষিত বনাঞ্চল
রিজার্ভা বায়োলোজিকা বস্কু নুবসো মন্তেভার্দে
Monteverde bosque.jpg
মন্তেভার্দে বৃষ্টিপ্রবণ সংরক্ষিত বনাঞ্চলের স্থিরচিত্র
মানচিত্র মন্তেভার্দে বৃষ্টিপ্রবণ সংরক্ষিত বনাঞ্চলের অবস্থান দেখাচ্ছে
মানচিত্র মন্তেভার্দে বৃষ্টিপ্রবণ সংরক্ষিত বনাঞ্চলের অবস্থান দেখাচ্ছে
কোস্টা রিকার মানচিত্র
অবস্থানপান্তারেনাসআলাজুয়েলা, কোস্টা রিকা
নিকটবর্তী শহরমন্তেভার্দে
স্থানাঙ্ক১০°১৮′০০″ উত্তর ৮৪°৪৯′০০″ পশ্চিম / ১০.৩০০০০° উত্তর ৮৪.৮১৬৬৭° পশ্চিম / 10.30000; -84.81667স্থানাঙ্ক: ১০°১৮′০০″ উত্তর ৮৪°৪৯′০০″ পশ্চিম / ১০.৩০০০০° উত্তর ৮৪.৮১৬৬৭° পশ্চিম / 10.30000; -84.81667
আয়তন১০,৫০০ হেক্টর (২৬,০০০ একর)
স্থাপিত১৯৭৩
www.reservamonteverde.com
মন্তেভার্দে বৃষ্টিপ্রবণ সংরক্ষিত বনাঞ্চলের হামিংবার্ডের স্থিরচিত্র

মন্তেভার্দে বৃষ্টিপ্রবণ সংরক্ষিত বনাঞ্চল (স্পেনীয়: Reserva Biológica Bosque Nuboso Monteverde) কোস্টা রিকার সংরক্ষিত বনাঞ্চলবিশেষ। পান্তারেনাসআলাজুয়েলা প্রদেশের কর্দেলেরা দে তিলারান এলাকায় বনাঞ্চলটি অবস্থিত। ১৯৭২ সালে সংরক্ষিত এলাকাটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। নিকটস্থ শহর মন্তেভার্দের নামানুসারে এ বনাঞ্চলের নামকরণ হয়েছে।[১] সংরক্ষিত বৃষ্টিপ্রবণ বনাঞ্চলটির আয়তন ১০,৫০০ হেক্টরেরও (২৬,০০০ একর) অধিক। গড়পড়তা বছরে প্রায় ৭০,০০০ পর্যটক এ বন পরিদর্শনে আসেন। বনটিকে ৬টি জীববৈচিত্র্য অঞ্চলে বিভক্ত করা হয়েছে; তন্মধ্যে ৯০% পূর্বেকার বনের।[২] ব্যাপকভাবে উচ্চ জীববৈচিত্র্য বিরাজমান। ২,৫০০-এর অধিক প্রজাতির বৃক্ষ রয়েছে। তন্মধ্যে, সবচেয়ে বেশী রয়েছে অর্কিডজাতীয় গাছের। ১০০ স্তন্যপায়ী প্রজাতি, ৪০০ প্রজাতির পাখি, ১২০ প্রজাতির সরীসৃপজলজ প্রাণী এবং হাজার হাজার প্রজাতির পোকামাকড় অগণিত বিজ্ঞানীপর্যটকদের বিমুগ্ধ করেছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৫১ সালে ১১টি পরিবার থেকে কয়েক ডজন কুয়াকা সদস্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যালাবামা থেকে এখানে আসেন। কোস্টা রিকায় তারা জমি ক্রয় করে কৃষিকার্য করে জীবনধারণ করতে থাকেন।[৩] মূলতঃ কোরীয় যুদ্ধের প্রভাব থেকে নিজেদেরকে মুক্ত রাখতেই তারা এ পদক্ষেপ নেন। এ যুদ্ধে কুয়াকাদের শান্তিবাদী মতধারার উপর নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হয়েছিল। কোস্টা রিকাকে তারা বেছে নেন কেননা, এখানে তিন বছর পূর্বে সেনাবাহিনী বিলুপ্ত করা হয়।[৪] এ স্থানকেই তারা মন্তেভার্দে (সবুজ বাগান) নাম রাখেন, যেখানে বছর ঘুরতেই সবুজ বাগানে পরিণত করতে সক্ষম হয়।[৪]

১৯৬০-এর দশকে জীববিজ্ঞানীরা মন্তেভার্দের উপর দৃষ্টি রাখছিলেন। অবকাঠামো ও আশ্রয়ের অভাব স্বত্ত্বেও তারা গবেষণা কর্ম চালিয়ে যেতে থাকেন। তারা শুধুমাত্র গবেষণালদ্ধ দলিলের দিকেই নজর দিচ্ছিলেন না; বরঞ্চ মন্তেভার্দেতে বসবাসও করতে শুরু করেন।

১৯৬৮ সালে ড. যোসেফ তোসি ক্রান্তীয় সংরক্ষণবিষয়ক সংস্থা ট্রপিক্যাল সায়েন্স সেন্টারে কাজ করছিলেন। ড. লেসলি হলড্রিজকে সাথে নিয়ে মন্তেভার্দে ভ্রমণে যান। সরকারের জাতীয় পরিকল্পনা দপ্তরের অনুরোধে এ সফরটি কোস্টা রিকার শিক্ষাসফরের অংশ ছিল। সেখান তারা কুয়াকার সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি হুবার্ট মেন্ডেনহালের সাথে স্বাক্ষাৎ করেন। তিনি তাদেরকে এ সম্প্রদায়কে ঘিরে বনের প্রাথমিক পর্যায়টি দেখান।

এ সফর শেষে হলড্রিজ ও তোসি কুয়াকার সম্প্রদায়ের কাছে বন সংরক্ষণসহ পানি সরবরাহকে নিশ্চিতকরণ ও এলাকাকে তীব্র বাতাস থেকে মুক্ত রাখতে এবং জমি ও বাড়ী-ঘরকে রক্ষা করতে বনটির ভূমিকা তুলে ধরেন।

১৯৭৫ সালে ৪৩১জন ভ্রমণকারী প্রতিশ্রুত সংরক্ষণ এলাকায় আসেন। অধিকাংশই বিজ্ঞানী ও পাখি দর্শনকারী ছিলেন। দুই বছর পরও সেখানে কোন অবস্থানের ব্যবস্থা করা হয়নি। কিন্তু স্থানীয় কুয়াকার মিসেস উড নিজ গৃহে বিছানা ও নাস্তার ব্যবস্থা করেন। সেখানে মাঝে-মধ্যেই ভ্রমণকারীরা রাত কাটাতেন।

বিদেশী পর্যটকদের সংখ্যাও উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেতে থাকে। ১৯৮০ সালে যেখানে ২,৭০০জন এসেছিলেন; ১৯৯১ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৪০,০০০-এর অধিক। সংরক্ষণের স্থানও ঐ বছরগুলোয় বাড়ানো হয়। বিশেষ প্রজাতির ব্যাঙ গোল্ডেন টোডের কারণে এর পরিচিত বাড়তে থাকে। পাশাপাশি ৪০% মন্তেভার্দের উভচর প্রাণী বিলুপ্ত হতে থাকে মূলতঃ ছড়িয়ে পড়া এককোষী মারাত্মক ফাঙ্গাসের কারণে।

বর্তমানে প্রতি বছর ৭০,০০০-এর অধিক ব্যক্তি এ স্থানটি পরিদর্শনে আসেন। এরফলে তারা জীববৈচিত্র্যের ধারনা লাভ করে কৌতুহল নিবারণ করছেন।

জীববৈচিত্র্য[সম্পাদনা]

মন্তেভার্দের গোল্ডেন টোড।

মন্তেভার্দের ৯১টি পাখি প্রজাতি যা মোট প্রজাতির ২১%, দীর্ঘ দূরত্বের পরিযায়ী পাখী। এরা উত্তর আমেরিকায় বসবাস করে ও শীতকালে মন্তেভার্দেতে ফিরে আসে। এ প্রজাতিগুলোর তিনটি পাখী হচ্ছে - সোয়ালো-টেইলড কাইট (এলানোইদেস ফোরফিকাতাস), পাইরাটিক ফ্লাইক্যাচার (লেগাতাস লিউকোফাইয়াস) ও হলুদ-সবুজ ভাইরিও (ভাইরিও ফ্লাভোভাইরিদিস)। এগুলো মন্তেভার্দে এলাকায় বংশবৃদ্ধি করে ও পুণরায় মিলনবিহীনকালে দক্ষিণ আমেরিকায় অবস্থান করে।

অবকাঠামো[সম্পাদনা]

সংরক্ষিত বন এলাকার ঝুলন্ত সেঁতু

সংরক্ষণ বনাঞ্চলটিতে বাস যোগাযোগ ব্যবস্থা বিদ্যমান। মন্তেভার্দে ও সান্তা এলেনা থেকে দৈনিক পাঁচবার আসা-যাওয়া করা যায়। এছাড়াও একটি ভবন রয়েছে যেখানে ৪৭জন ভ্রমণকারী অবস্থান করতে পারেন। ছোট আকারের রেঁস্তোরা, উপহারসামগ্রী ক্রয়ের দোকান, মন্তেভার্দে প্রাকৃতিক কেন্দ্র, সরীসৃপ স্থান, ব্যাঙের পুকুর, বাদুরের জঙ্গল ও প্রজাপতি বাগান রয়েছে। বনের মাঝ দিয়ে সুড়ঙ্গ চলে গেছে। এছাড়াও, সেঁতু ও জিপ-লাইন রয়েছে। মাঝে-মধ্যে ঘোড়ায় চড়ারও ব্যবস্থা করা হয়।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৩০ নভেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৭ 
  2. https://www.monteverdeinfo.com/tours/monteverde-cloud-forest-reserve
  3. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৭ 
  4. "Monteverde Friends School (Escuela de los Amigos)"। ৯ মে ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৭ 
  5. Stater, Adam। "Monteverde Cloud Forest Reserve Facilities" 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

গ্যালারী চিত্র[সম্পাদনা]