মনিরুল ইসলাম (চিত্রশিল্পী)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মনিরুল ইসলাম
জন্ম(১৯৪৩-০৮-১৭)১৭ আগস্ট ১৯৪৩[১]
জাতীয়তাবাংলাদেশী
পরিচিতির কারণচিত্রকলা
পুরস্কারএকুশে পদক (১৯৯৯)

মনিরুল ইসলাম (জন্মঃ ১৭ অগাস্ট, ১৯৪৩) মাদ্রিদ-নিবাসী বাংলাদেশের একজন চিত্রশিল্পী।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

তার জন্ম জামালপুরের ইসলামপুরে। তার পৈতৃক ভিটা চাঁদপুর। বাবার চাকরিসূত্রে কিশোরগঞ্জে তার শৈশব কেটেছে।

শিক্ষা ও কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি ঢাকা চারুকলা ইনস্টিটিউট থেকে চারুকলার পাঠ শেষে এখানেই শিক্ষকতা শুরু করেন ১৯৬৬ সালে। এরপর ১৯৬৯ সালে স্পেন সরকারের বৃত্তি নিয়ে সে দেশে যান উচ্চতর শিক্ষা গ্রহণের জন্য। এর পর থেকে স্পেনেই স্থায়ীভাবে বাস করে শিল্পচর্চা করছেন। স্পেনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তার বহু একক ও যৌথ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ছাড়া তিনি স্পেন ও মিসরে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক চারুকলা প্রদর্শনীতে বিচারক হিসেবে কাজ করেছেন।

চিত্রকলায় অবদান[সম্পাদনা]

তিনি বিশেষ খ্যাতিমান তার ছাপচিত্রের জন্য। এচিংয়ে তিনি এমন একটি স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য অর্জন করেছেন, যা স্পেনে ‘মনিরোর বিদ্যালয়’ বলে পরিচিত।

সম্মাননা ও স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

১৯৯৭ সালে তিনি স্পেনের রাষ্ট্রীয় পদক পান। ২০১০ সালে তিনি ভূষিত হন স্পেনের মর্যাদাপূর্ণ সম্মাননা দ্য ক্রস অব দি অফিসার অব দি অর্ডার অব কুইন ইসাবেলায়। স্পেনের রাজা সপ্তম ফার্দিনান্দ রানী ইসাবেলার সম্মানে ১৮১৫ সালের ১৮ই মার্চ রয়্যাল অ্যান্ড আমেরিকান অর্ডার অব ইসাবেলা দ্য ক্যাথলিক নামের এই পদক প্রথম প্রবর্তন করেন। পরে ১৮৪৭ সালে এর নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় রয়্যাল অর্ডার অব ইসাবেলা দ্য ক্যাথলিক১৯৯৮ সালে পদকটির বর্তমান নামকরণ হয়।[২]

আন্তর্জাতিক বিভিন্ন পুরস্কার ও সম্মাননার পাশাপাশি তিনি দেশে ১৯৯৯ সালে একুশে পদক, শিল্পকলা একাডেমী পদকসহ বিভিন্ন পদক ও সম্মাননা পান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "A master of his medium Monirul Islam turns 72"। Dhaka Courier। ২০ আগস্ট ২০১৫। ৩১ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ অক্টোবর ২০১৫ 
  2. "মনিরুল ইসলাম পেলেন কুইন ইসাবেলা সম্মাননা"দৈনিক প্রথম আলো। ১৫-০৩-২০১০। সংগ্রহের তারিখ 8 এপ্রিল 2018  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)