মঞ্জুলা চেল্লুর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মাননীয় বিচারপতি

মঞ্জুলা চেল্লুর
Justice Manjula Chellur.jpg
বোম্বে হাইকোর্ট এর প্রধান বিচারপতি
কাজের মেয়াদ
২২শে আগস্ট ২০১৬ – ৪ঠা ডিসেম্বর ২০১৭
নিয়োগদাতাপ্রণব মুখোপাধ্যায়
পূর্বসূরীবিচারপতি ধীরেন্দ্র এইচ. বাঘেলা
কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি
কাজের মেয়াদ
৬ই আগস্ট ২০১৪ – ২১শে আগস্ট ২০১৬
নিয়োগদাতাপ্রণব মুখোপাধ্যায়
পূর্বসূরীবিচারপতি অরুণ কুমার মিশ্র
উত্তরসূরীবিচারপতি গিরিশ চন্দ্র গুপ্ত
কেরালা উচ্চ আদালতের প্রধান বিচারপতি
কাজের মেয়াদ
২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১২ – ৫ই আগস্ট ২০১৪
ভারপ্রাপ্ত: ৯ই নভেম্বর ২০১১ - ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১২
নিয়োগদাতাপ্রতিভা দেবীসিংহ পাটিল (ভারপ্রাপ্ত)
প্রণব মুখোপাধ্যায় (স্থায়ী)
পূর্বসূরীবিচারপতি জাস্টি চেলামেশ্বর
উত্তরসূরীবিচারপতি অশোক ভূষণ
কর্ণাটক হাইকোর্টের বিচারক
কাজের মেয়াদ
২১শে ফেব্রুয়ারি ২০০০ – ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১২
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1955-12-05) ৫ ডিসেম্বর ১৯৫৫ (বয়স ৬৪)
বেল্লারী, মহীশূর রাজ্য, ভারত
(এখন কর্ণাটক, ভারত)
নাগরিকত্বভারতীয়
জাতীয়তাভারত ভারতীয়
প্রাক্তন শিক্ষার্থীআলাম সানমঙ্গলম্মা উইমেন'স কলেজ, বেল্লারী
ধর্মহিন্দু

মঞ্জুলা চেল্লুর (জন্ম ৫ই ডিসেম্বর ১৯৫৫) হলেন বোম্বে হাইকোর্টের প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি। তিনি কলকাতা হাইকোর্টের প্রথম মহিলা প্রধান বিচারপতি, কেরল হাইকোর্ট এর প্রধান বিচারপতি এবং কর্ণাটক হাইকোর্ট এর প্রথম মহিলা বিচারক ছিলেন। অবসরকালীন বয়স পার হয়ে যাবার পর ২০১৭ সালের ৪ঠা ডিসেম্বর তিনি কাজ থেকে অবসর নিয়েছিলেন। [১][২][৩][৪]

শিক্ষাগত যোগ্যতা[সম্পাদনা]

চেল্লুরের জন্ম হয়েছিল কর্ণাটকে। তিনি কলায় স্নাতক ডিগ্রি পেয়েছিলেন বেল্লারীর আলাম সানমঙ্গলম্মা উইমেন'স কলেজ থেকে, এবং বেঙ্গালুরু রেণুকাচার্য আইন কলেজ থেকে আইন ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন। ১৯৭৭ সালে ভারতের সর্বোচ্চ ন্যায়ালয় তাঁকে ইংল্যান্ডের ওয়ারউইক বিশ্ববিদ্যালয় এর লিঙ্গ ও আইন ফেলোশিপ পড়ার খরচ দিয়েছিল।[২] ২০১৩ সালে চেল্লুর কর্ণাটক রাজ্য মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একটি সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রী পেয়েছিলেন।[৫]

কর্ম জীবন[সম্পাদনা]

চেল্লুর বেল্লারীতে আইন অনুশীলনকারী প্রথম মহিলা আইনজীবী ছিলেন। তিনি স্থানীয় বেল্লারি আদালতে আইনি পরামর্শদাতা হিসাবে দেওয়ানি ও ফৌজদারি আইন উভয়ই অনুশীলন করেছিলেন।[২]

১৯৮৮ সালে তিনি জেলা ও দায়রা বিচারক নিযুক্ত হন; তিনি কোলার এবং মহীশূরের প্রধান ও দায়রা বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এই পদগুলির পাশাপাশি তিনি ছোট কারণগুলির আদালতের প্রধান বিচারক এবং বেঙ্গালুরুর পারিবারিক আদালতের প্রধান বিচারকও ছিলেন। ২০০০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি, তাঁকে কর্ণাটক হাইকোর্টের বিচারক মনোনীত করা হয়।[২][৪]

চেল্লুর ২১শে জুন ২০০৮ থেকে ২৫শে মার্চ ২০১০ পর্যন্ত কর্ণাটকের জুডিশিয়াল একাডেমির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি কর্ণাটক রাজ্য আইনি পরিষেবা কর্তৃপক্ষের নির্বাহী সভাপতিও ছিলেন। ২০১১ সালের ৯ই নভেম্বর তিনি কেরালা হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নিযুক্ত হন [৬] এবং ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১২ সাল থেকে তিনি কেরালার প্রধান বিচারপতি ছিলেন।[২][৪]

উচ্চ মর্যাদাসম্পন্ন মামলা[সম্পাদনা]

২০১৩ সালে, প্রধান বিচারপতি চেল্লুর এবং বিচারপতি বিনোদ চন্দ্রানের সমন্বয়ে গঠিত কেরালা হাইকোর্টের বিভাগীয় বেঞ্চ, রাজ্য সরকারকে রাজ্যসভার উপ সভাপতি পি. জে. কুরিয়েনেরর বিরুদ্ধে উচ্চ পর্যায় ভুক্ত ধর্ষণ মামলার বিষয়ে একটি বিবৃতি দাখিলের নির্দেশ দিয়েছিল।[৭] ২০১৩ সালের মার্চ মাসে, অন্য একটি তদন্তে, বিচারপতিরা বিশিষ্ট মার্কসবাদী রাজনীতিবিদ এবং বিরোধীদলীয় নেতা ভি. এস. অচ্যুতানন্দনের "আইসক্রিম পার্লার নাশকতার মামলা"র তাড়াতাড়ি শুনানির আর্জি নাকচ করে দেন। এই মামলাটি ১৯৯০-এর দশকে আইসক্রিম পার্লারের সাথে জড়িত যেখানে বালিকা এবং মহিলাদের পতিতাবৃত্তিতে প্রলুব্ধ করার জন্য করা হয়েছিল।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Manjula Chellur to become first woman Chief Justice of Calcutta High Court; Assumes office on August 5"Bar and Bench। B&B News Network। ২৩ জুলাই ২০১৪। ২৪ জুলাই ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০১৪ 
  2. Kerala High Court (২০১৩)। "Website Kerala High Court"Kerala High Court। ২৯ জুন ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৩ 
  3. Express News Service (২৭ সেপ্টেম্বর ২০১২)। "Manjula Chellur sworn in as Kerala HC CJ"The New Indian Express। ১২ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৩ 
  4. Venkatesan, J. (৩১ আগস্ট ২০১২)। "Manjula Chellur to be Chief Justice of Kerala High Court"The Hindu। ১ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৩ 
  5. Express News Service (৪ মার্চ ২০১৩)। "Honorary Doctorates for 5 Women"The New Indian Express। ৭ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৩ 
  6. "Manjula Chellur Acting Chief Justice"The Hindu। ৮ নভেম্বর ২০১১। ২৮ জুন ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৩ 
  7. "Suriyanelli rape case: Kerala HC asks govt to file statement against Kurien"First Post। ১১ মার্চ ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০১৩ 
  8. "Kerala HC turns down Achuthanandan plea"। WebIndia123। ২৬ মার্চ ২০১৩। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]