ভুটিয়া-লেপচা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ভুটিয়া-লেপচা
মোট জনসংখ্যা
১,১২,৫০৭
উল্লেখযোগ্য জনসংখ্যার অঞ্চল
 সিকিম, ভারত১,১২,৫০৭ (২০১১ সালের আদমশুমারি)[১]
ভাষা
সিকিমী, নেপালি, জংখা, তিব্বতি, লেপচা
ধর্ম
বৌদ্ধধর্ম, বন, মুন

ভুটিয়া-লেপচা হল ভারতের সিকিমের ভুটিয়া এবং লেপচা সম্প্রদায়ের মানুষদের নিয়ে গঠিত একটি জাতিগত গোষ্ঠী। এই উভয় গোষ্ঠীই ভারত সরকার কর্তৃক তফসিলি উপজাতি তালিকাভুক্ত হয়েছে।[২]

২০০২ সালে সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের পর, সিকিম বিধানসভায় এই গোষ্ঠীর জন্য ১২টি (৩২টির মধ্যে) আসন সংরক্ষিত হয়েছে।[৩]

সিকিমের মধ্যে সংরক্ষণ[সম্পাদনা]

ভুটিয়া-লেপচা (বিএল) জনগণের জন্য সংরক্ষণ শুরু হয়েছিল ১৯৫৩ সালের সিকিমের সাধারণ নির্বাচন থেকে। সিকিম রাজ্য পরিষদে এদের জন্য ছয়টি আসন (১৮টির মধ্যে) সংরক্ষিত হয়।[৪] ১৯৫৩ সালে সিকিমের সাধারণ নির্বাচনের সময় এটিকে পরিবর্তন করে সাতটি (২৪টির মধ্যে) আসন করা হয়েছিল।[৫] ১৯৭৪ সালে সর্বজনীন ভোটাধিকারের উপর ভিত্তি করে প্রথম নির্বাচনে আসন সংখ্যা ১৫টিতে (৩২টির মধ্যে) বৃদ্ধি করা হয়েছিল। ২০০৬ সালের হিসাবে, সিকিম বিধানসভায় বিএল-এর জন্য ১২টি আসন (৩২টির মধ্যে) সংরক্ষিত রয়েছে।[৬][৭]

সিকিম ভুটিয়া লেপচা শীর্ষ কমিটি[সম্পাদনা]

ভারতীয় যুক্তরাজ্যে সিকিমকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য কিছু পূর্বশর্ত ছিল এবং সিকিমের জনগণকে বিশেষ করে আদিবাসী সংখ্যালঘু সিকিমী ভুটিয়া লেপচা সম্প্রদায়কে আনুষ্ঠানিক আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল। এগুলি ১৯৭৩ সালের ৮ই মে এর ত্রিপক্ষীয় চুক্তি, ১৯৭৪ সিকিম সরকার আইন, এবং ভারতীয় সংবিধানের ৩৭১ এফ অনুচ্ছেদ প্রতিফলিত হয়েছে।[৮]

সিকিম ভুটিয়া লেপচা শীর্ষ কমিটি (এসআইবিএলএসি) হল সিকিমী, ভুটিয়া-লেপচা (বিএল) এবং সিকিমী বংশোদ্ভূত নেপালিদের রাজনৈতিক অধিকারের জন্য সংগ্রামকারী একটি দল।[৯] সিকিমের বিধানসভায় বিএল-এর জন্য সংরক্ষণ ছাড়াও, তারা স্থানীয় সংস্থার (পঞ্চায়েত) নির্বাচনেও সংরক্ষণের পক্ষে বক্তব্য রাখে।[১০]

আইনি লড়াই[সম্পাদনা]

১৯৯৩ সালে, ভারতের সর্বোচ্চ ন্যায়ালয়- সুপ্রিম কোর্টে একটি মামলা আনা হয়েছিল। সিকিমের বিএল নির্বাচনী এলাকা এবং সংঘ নির্বাচনী এলাকার জন্য সংরক্ষণের বিরুদ্ধে আপত্তি জানিয়ে এই মামলাটি করা হয়। মামলা করেছিলেন রাইজিং সান পার্টির রাম চন্দ্র পৌড়িয়াল[৯] সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ সেই আবেদন খারিজ করে দেন। তাঁরা বলেছিল যে সংরক্ষণ (বা তাদের পরিমাণ) ১৪, ১৭০(২) বা ৩৩২ আইনের ধারাগুলি লঙ্ঘন করছে না।[১১][১২]

২০১৫ সালে, সিকিমের আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে ভুটি-লেপচা এবং সেইসাথে লিম্বু-তামাংদের (এলটি) জন্য সংরক্ষণ পুনঃনির্ধারণের পক্ষে যুক্তি দিয়ে ফিগু শেরিং ভুটিয়া সিকিম হাই কোর্টে একটি আবেদন জানিয়েছিলেন। বিচারক, মীনাক্ষী মদন রাই আবেদনটি খারিজ করে দেন, তিনি অতীতের উদাহরণ দেখিয়ে বলেছিলেন যে নির্বাচনী এলাকায় সংরক্ষণের বিষয়টি আইনের কোনো আদালতের আওতাভুক্ত নয়।[১৩][১৪]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "A-11 Individual Scheduled Tribe Primary Census Abstract Data and its Appendix"www.censusindia.gov.inRegistrar General and Census Commissioner of India। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৭ 
  2. "State/Union Territory-wise list of Scheduled Tribes in India"Ministry of Tribal Affairs, India। ২০১৬-০৮-১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৯-১৯ 
  3. "Sikkim - Final Publication"Election Commission of India। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০২১ 
  4. Hamlet Bareh (২০০১)। Encyclopaedia of North-East India: Sikkim। Mittal Publications। পৃষ্ঠা 16। আইএসবিএন 9788170997948 
  5. "Sikkim Darbar Gazette - Declaration of the Results of Election, 1970"। ১৪ মে ১৯৭০। পৃষ্ঠা 59–60। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০২১ 
  6. CEO Sikkim। "AC Map of Sikkim"। সংগ্রহের তারিখ ৬ জানুয়ারি ২০২২ 
  7. CEOSikkim। "Assembly constituencies Revenue Blocks"। সংগ্রহের তারিখ ৬ জানুয়ারি ২০২২ 
  8. "Welcome to SIBLAC"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  9. Joydeep Sen Gupta (৬ এপ্রিল ২০১৯)। "Sikkim's Sangha Assembly seat is a perfect example of the state's unique political process to protect minority rights - Politics News"Firstpost। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জানুয়ারি ২০২১ 
  10. "Sikkim Bhutia Lepcha Apex Committee - About us"www.siblac.org। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জানুয়ারি ২০২১ 
  11. "R.C. Poudyal and ANR. Vs. Union of India and ORS." (PDF)Supreme Court of India। ১০ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৩। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০২১The reservation of seats for Bhutias and Lepchas is necessary because they constitute a minority and in the absence of reservation they may not have any representation in the Legislative Assembly. [...] That impugned provisions providing for reservation of 12 seats, out of 32 seats in the Sikkim Legislative Assembly in favour of Bhutias Lepchas, are neither unconstitutional as violative of the basic features of democracy and republicanism under the Indian Constitution nor are they violative of Articles 14, 170(2) and 332 of the Constitution. [...] The extent of reservation of seats is not violative of Article 332(3) of the Constitution. 
  12. "R.C. Poudyal & ANR Vs. Union of India & Ors (1993) INSC 77 (10 February 1993)"www.latestlaws.com। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জানুয়ারি ২০২১ 
  13. Hon'ble Mrs. Justice Meenakshi Madan Rai, Judge (৩০ জুলাই ২০১৬)। "Judgement - WP(C) No.60 of 2015 - Shri Phigu Tshering Bhutia vs. State of Sikkim and Others - Petition under Article 226 of the Constitution of India" (PDF)Sikkim High Court। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২১As there is a specific bar to interference by Courts in electoral matters, I would not be inclined to wade into forbidden waters 
  14. "Phigu Tshering Bhutia v. State Of Sikkim and Ors"www.casemine.com। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Scheduled tribes of India টেমপ্লেট:Hill tribes of Northeast India