ভি নানাম্মাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভি. নানাম্মাল
V Nanammal.jpg
২০১৮ সালে নানাম্মাল
জন্ম(১৯২০-০২-২৪)২৪ ফেব্রুয়ারি ১৯২০
মৃত্যু২৬ অক্টোবর ২০১৯(2019-10-26) (বয়স ৯৯)
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাযোগ শিক্ষক
পুরস্কার

ভি নানাম্মাল (২৪শে ফেব্রুয়ারি ১৯২০ - ২৬শে অক্টোবর ২০১৯) ভারতের সবথেকে প্রবীণ যোগ শিক্ষক ছিলেন। তিনি ৪৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে প্রায় দশ লাখ শিক্ষার্থীকে প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন এবং প্রতিদিন একশত শিক্ষার্থীকে প্রশিক্ষণ দিতেন। বিশ্বজুড়ে তাঁর ছয় শতাধিক শিক্ষার্থী যোগ প্রশিক্ষক হয়েছেন[১]

২০১৬ সালে তিনি ভারতের জাতীয় নারী শক্তি পুরস্কার জয় করেন[২]। ২০১৮ সালে যোগের প্রচার ও প্রসারের ক্ষেত্রে তাঁর অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ভারতের চতুর্থ সর্ব্বোচ্চ অসামরিক পুরস্কার পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত হন তিনি[৩][৪]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

নানাম্মালের জন্ম ১৯২০ সালের ২৪শে ফেব্রুয়ারি ভারতের তামিলনাড়ুর কোয়েম্বাটুরের জমিন কালিয়াপুরম-এ একটি কৃষক পরিবারে। আট বছর বয়স থেকে, তিনি তাঁর পিতার অধীনে যোগাভ্যাস শুরু করেন[৫]

নানাম্মালের বাবা এবং ঠাকুরদাদা দুজনেই 'রেজিস্টার্ড ইন্ডিয়ান মেডিসিন প্র্যাকটিশনারস (আরআইএমপি)' ছিলেন। যোগব্যায়াম তাঁদের পারিবারিক ঐতিহ্য ছিল এবং তাঁরা পরিবারের বাইরের কাউকে যোগ শিক্ষা দিতেন না; তাই এটি একটি গোপন পারিবারিক ঐতিহ্য রূপেই থেকে যেত। নানাম্মালের পরিবারের প্রাথমিক ব্যবসা ছিল সনাতন সিদ্ধ ঔষধ এবং কৃষিকাজ। তাঁর পরিবার কেরালা রাজ্যে অনেক নারকেল এবং কাজু খামারের মালিক ছিল[৬]

নানাম্মালের স্বামীও একজন সিদ্ধ -ঔষধ চর্চাকারী ছিলেন এবং চাষাবাদে নিযুক্ত ছিলেন। বিয়ের পরে, স্বামীর সাথে নানাম্মাল নেগামাম এবং পরে গণপতিতে চলে এসেছিলেন[৫][৭]। তিনি বিয়ের পর স্বামীর দৌলতে প্রাকৃতিক চিকিৎসার প্রতিও আগ্রহী হয়ে উঠেছিলেন।

নানাম্মল কোয়েম্বাটুরে এক লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী এবং আগ্রহীদের যোগব্যায়াম শিখিয়ে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম ওঠানোর চেষ্টা করেছিলেন। তাঁর উদ্দেশ্য ছিল মহিলাদের মধ্যে বিশেষত বিয়ের পরে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গিয়ে যোগব্যায়ামের কৌশল সম্পর্কে মহিলাদের, বিশেষত বালিকা এবং কিশোরীদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করা। তিনি প্রতিযোগী হিসাবে ভারতীয় রিয়েলিটি শো 'ইন্ডিয়া'স গট ট্যালেন্ট' এ অংশ নিয়েছিলেন[৮]।পরবর্তীকালে তিনি ইউটিউবে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন যেখানে তিনি তার স্বাভাবিক পোশাক, একটি গোলাপী শাড়িতে যোগব্যায়ামের বিভিন্ন কৌশল দেখাতেন এবং শেখাতেন।[৯]

নানাম্মাল ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে নিজের বিছানা থেকে পড়ে গিয়ে বিছানাতে আবদ্ধ হয়ে পড়েন [১০][১০]। ২০১৯র ২৬শে অক্টোবার ভারতের প্রবীণতম এই যোগ-গুরুমা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন[১১]। তার পাঁচটি সন্তান, ১২ জন নাতি নাতনি এবং ১১ জন পুতি পুতনি বর্তমান।

যোগব্যায়াম[সম্পাদনা]

নানাম্মাল ৮ বছর বয়সে যোগব্যায়াম অনুশীলন শুরু করেছিলেন তাঁর বাবার অধীনে। তাঁর পরিবার যোগচিকিৎসার সাথে যুক্ত ছিল এবং তাঁর বাবা মার্শাল আর্টও জানতেন। তাঁর নিজের কথায় তিনি জীবনে একদিনও যোগব্যায়ামের বিরতি দেননি। যৌবন এবং প্রৌঢ় অবস্থাতে দিনে ৫০টি করে যোগবায়াম করতে পারলেও, বৃদ্ধাবস্থায় তিনি দিনে ১০টি করে ব্যায়াম অভ্যাস করতেন। জীবনের শেষ সময় অবধি তিনি ময়ূরাসন, শীর্ষাসনের মত কঠিন আসনও সহজভাবে করতে পারতেন[৭]। তাঁর নিজের কথায়, তিনি কখনও কোন চিকিতসালয়ে যাওয়ার প্রয়োজন বোধ করেননি।

নানাম্মাল ১৯৭২ সালে কোয়েম্বাটুরে "ওজোন যোগ কেন্দ্র" প্রতিষ্ঠা করেন। নানাম্মাল এবং তাঁর পরিবার, পরবর্তী প্রজন্মের কাছে এই যোগবিদ্যাকে প্রবাহিত করে গিয়েছেন। ওজোন যোগ কেন্দ্রটি তাদের ঐতিহ্যবাহী যোগব্যায়ামের রীতিতেই বেশি জোর দেয়, যেখানে প্রাণায়ামের (শ্বাস নিয়ন্ত্রণ) উপর খুব বেশি নির্ভর করা হয়। ওজোন যোগ কেন্দ্রের মাধ্যমে নানাম্মাল এবং তাঁর পরিবার ১ লক্ষাধিক শিক্ষার্থীকে যোগশিক্ষা দিয়েছেন।। তাঁর পুত্র বালাকৃষ্ণণের মতে, নানাম্মাল ৬০ জনের বেশি পরিবারের সদস্যকে যোগশিক্ষা দিয়েছেন, যাঁদের মধ্যে ৩৬ জন বর্তমানে যোগশিক্ষক রূপে কাজ করেন[১০]

উত্তরাধিকার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

নানাম্মালের ইউটিউব চ্যানেলের দৌলতে তাঁকে আন্তর্জালের অনেকেই 'যোগা ঠাকুমা' হিসেবে চেনেন।[১১] যোগব্যায়ামের প্রচার ও প্রসারে তাঁর উদ্যোগের জন্যে তিনি বহু পুরস্কার এবং সম্মান পেয়েছেন। কয়েকটি উল্লেখযোগ্য পুরস্কার হল:

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. K Jeshi (১৯ জুন ২০১৭)। "Bend it like Nanammal"Online Edition of The Hindu, dated 19 June 2017। 2017, thehindu.com। ১৯ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  2. Government of India। "Nari Shakti Puraskar 2016"Online Edition of Ministry of Women & Child Development। 2016, Government of India। ২৪ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  3. Madhurima Sarkar (২১ মার্চ ২০১৮)। "V Nanammal Receives Padma Shri; The 99-Year-Old Yoga Practitioner Continues to Follow A Lifestyle Close to Nature"latestly.com। 2018, latestly.com। ২৪ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  4. "Padma Awards 2018, Know the recipients"The Times of India। ২০ মার্চ ২০১৮। ২ মে ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মে ২০১৮ 
  5. "Nanammal, the yoga grandma, wins Padma Shri"The Times of India। ২৬ জানুয়ারি ২০১৮। ২৫ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মে ২০১৮ 
  6. Sushma UN। "India's oldest yogini says you're doing yoga wrong if you're working up a sweat"qz.com। 2017, Quartz India। ২৫ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  7. Merin James (২০ আগস্ট ২০১৬)। "V Nanammal: The nonagenarian yogini"deccanchronicle.com। 2016, deccanchronicle.com। ২৪ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  8. Staff। "Nanammal: The 97-year-old woman from Tamil Nadu who teaches yoga to 100 students"dailyhunt.com। 2018, dailyhunt.com। ২৫ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  9. Nath, Akshaya (২৬ অক্টোবর ২০১৯)। "Yoga grandma V Nanammal passes away at 99 in Coimbatore"India Today (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০১৯ 
  10. "99-year-old 'Yoga Grandma' V Nanammal passes away in Coimbatore"The New Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০১৯ 
  11. "India's 'yoga grandma' breathes her last at 99"BBC। ২৬ অক্টোবর ২০১৯। ২৬ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ অক্টোবর ২০১৯ 
  12. Government of India। "Nari Shakti Puraskar 2016"Online Edition of Ministry of Women & Child Development। 2016, Government of India। ২৪ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  13. "Padma Awards 2018" (PDF)। ২১ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  14. GovOfIndia। "Story of Smt. V Nanammal, India's oldest Yoga teacher - Padma Awardee 2018"Online Edition MyGov India। 2018, MyGov India। 
  15. Govt. of India। "Padma Awards 2018: V. Nanammal"padmaawards.gov.in। 2018, padmaawards। ২৪ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  16. "At 98, Amma Nanammal, India's Oldest Yoga Guru, is Giving Us Some Serious Fitness Goals"News18। সংগ্রহের তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০১৯ 
  17. Special Correspondent V.S. Palaniappan (২২ মার্চ ২০১৮)। "In Coimbatore Today"thehindu.com। 2018, thehindu.com।