ভিন্টসেন্ট ফন দার বিল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভিন্টসেন্ট ফন দার বিল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামভিন্টসেন্ট আদ্রিয়ান পিটার ফন দার বিল
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৫৬ ৯২
রানের সংখ্যা ২২৬৯ ৫১৭
ব্যাটিং গড় ১৬.২০ ১৫.৬৬
১০০/৫০ ০/১ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৮৭ ৪৭
বল করেছে ১২,৬৯২ ৫,২৩৭
উইকেট ৭৬৭ ১৩২
বোলিং গড় ১৬.৫৪ ১৮.০৬
ইনিংসে ৫ উইকেট ১২
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ৮/৩৫ ৫/১২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৫১/০ ২১/০
উৎস: ক্রিকইনফো.কম, ২৪ জুন ২০১৮

ভিন্টসেন্ট আদ্রিয়ান পিটার ফন দার বিল (ইংরেজি: Vintcent van der Bijl; জন্ম: ১৯ মার্চ, ১৯৪৮) কেপটাউনের রোন্দবস এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক ও বিখ্যাত দক্ষিণ আফ্রিকান প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট তারকা। ঘরোয়া দক্ষিণ আফ্রিকান প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে নাটাল ও গটেংয়ের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। এছাড়াও, প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে মিডলসেক্সের পক্ষে খেলেছেন ‘ভিন্স’ বা ‘পিটার’ নামে পরিচিত ভিন্টসেন্ট ফন দার বিল

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ভিন্টসেন্ট ফন দার বিলের বাবা পিটার ফন দার বিল প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স ও দক্ষিণ আফ্রিকার প্রতিনিধিত্ব করেন এবং খেলা থেকে অবসর নেয়ার পর ডিওসেসান কলেজ প্রিপারেটরি স্কুলে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন। তার দাদা ভি.এ.ডব্লিউ ফন দার বিল (তিনিও ভিন্টসেন্ট)[১] এবং গ্রেট-আঙ্কেল ভল্টেলিন ফন দার বিল ওয়েস্টার্ন প্রভিন্সের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[২]

ডিওসেসান কলেজ রোন্দবসে পড়াশোনা করেছেন ভিন্টসেন্ট ফন দার বিল। ক্রিকেটেই শুধুমাত্র সিদ্ধহস্তের অধিকারী ছিলেন না; নিজস্ব উচ্চতা ও শক্তিমত্তাকে কাজে লাগিয়ে কার্যকরী রাগবি ইউনিয়নের খেলোয়াড়সহ নাটাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অসাধারণ গোলক নিক্ষেপক ছিলেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালীন বিখ্যাত ক্রিকেটার ট্রেভর গডার্ডের ছত্রচ্ছায়ায় আসেন।[৩] স্নাতক ডিগ্রী সম্পন্ন করার পর পিটারমারিৎজবার্গের মারিৎজবার্গ কলেজে শিক্ষকতায় নিয়োজিত হন।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৬৮-৬৯ মৌসুম থেকে ১৯৭৯-৮০ মৌসুম পর্যন্ত নাটালের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে শৌখিন খেলোয়াড় হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৭১ সালে সাউথ আফ্রিকান ক্রিকেট কর্তৃক বর্ষসেরা ক্রিকেটারে মর্যাদা লাভ করেন। ১৯৭৬-৭৭ মৌসুমে নাটালের অধিনায়কত্ব করেন ও তার নেতৃত্বে কারি কাপড্যাটসান শীল্ডের শিরোপা লাভ করে নাটাল দল।

১৯৭৯ সালে শিক্ষকতা পেশা ত্যাগ করেন ও উইগিন্স টিপে কাজ করেন। কিন্তু, ১৯৮০ সালে মিডলসেক্সের পক্ষে খেলার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। মিডলসেক্সের পক্ষে ১৪.৭২ গড়ে ৮৫ উইকেট দখল করেন। ঐ মৌসুমে প্রথম-শ্রেণীর বোলিং গড়ে ২০ বা ততোধিক উইকেট লাভকারী বোলারদের মধ্যে জোয়েল গার্নাররিচার্ড হ্যাডলি’র পর তার অবস্থান ছিল তৃতীয়।[৪]

মিডলসেক্স দল কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপ ও জিলেট কাপ জয় করে। ১৯৮১ সালে উইজডেন কর্তৃক অন্যতম বর্ষসেরা ক্রিকেটার হিসেবে নামাঙ্কিত হন তিনি।[৩] ১৯৮২-৮৩ মৌসুমে ট্রান্সভালের পক্ষে সর্বশেষ মৌসুম খেলেন। সর্বমোট ১৫৬টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নেন তিনি। ১৬.৫৫ গড়ে ৭৬৭ উইকেট দখল করেন। ৬ ফুট সাড়ে সাত ইঞ্চি দীর্ঘ উচ্চতার অধিকারী তিনি। ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার হিসেবে নিখুঁত, পেস ও বাউন্স মারতেন। খেলোয়াড়ী জীবনের শীর্ষে আরোহণকালে দক্ষিণ আফ্রিকার সরকারের বর্ণবৈষম্যবাদের কারণে ক্রীড়ায় আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা বলবৎ ছিল।

১৯৭১-৭২ মৌসুমে ডি’অলিভেইরা কেলেঙ্কারীর কারণে অস্ট্রেলিয়া সফর বানচাল হয়ে যায়। এ সম্পর্কে ক্রিকইনফো মন্তব্য করে যে, অন্যতম সেরা বোলার হওয়া স্বত্ত্বেও তিনি টেস্ট ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করতে পারেননি।

অবসর[সম্পাদনা]

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর নেয়ার পর ২০০৮ সালে আইসিসি আম্পায়ার ও রেফারি’র ব্যবস্থাপক হিসেবে মনোনীত হন।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Voltelin Albert William van der Bijl
  2. The Blue Book: A History of Western Province Cricket, 1890-2011 page 51
  3. Woodcock, John, সম্পাদক (১৯৮১)। Wisden Cricketers' Almanac। Cricketer of the Year - 1981: Vintcent van der Bijl। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জানুয়ারি ২০১২ 
  4. "First class bowling in England for 1980 (ordered by average)"। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০২-১৬ 
  5. "van der Bijl named ICC umpires' and referees' manager"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০২-১৬ 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]