ভারীগান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ভারীগান (অসমীয়া: ভারীগান) হচ্ছে অসমের অন্যতম প্রধান জাতি রাভাদের লোকনাট্য ও গান । বিশেষকরে অসমের কামরূপগোয়ালপাড়া জেলায়[১] বসবাস করা পাতিরাভাদের মধ্যে এই প্রথা বহুঅতিত থেকেই চলে আসছে। এই প্রথা কখন থেকে চলে আসছে তার কোনো লিখিত প্রমাণ নাই। এর কাহিনী লোকের মুখে প্রচলিত হয়ে আসছে। ভারী অর্থ ওজন ও গীত অর্থ গান। ভারীগান করা দলটি তাঁদের প্রযোজনীয় বাদ্যযন্ত্র ও অন্যান্য সামগ্রী এক স্থান থেকে অন্য স্থানে নেওয়ার জন্য ভারী বহন করতে হয় বলে এই নৃত্য ও গানকে একত্রে ভারীগান বলা হয়। সাধারনত সমাজের কোনো বিদ্যান ব্যক্তি অধবা গুরুদেবে এই নাট্যশৈলীর আভাস দেন বলে পাতিরাভারা ইহাকে গুরুবিদ্যাও বলে[২]৷।

বিষয়বস্তু[সম্পাদনা]

ভারীগানের বিষয়বস্তু হচ্ছে রামায়ণের কাহিনী। রামায়ণের কাহিনী সমূহের মধ্যে সীতা হরণ, মেঘনাদ বধ, রাবণ বধ, লক্ষণের শক্তিশেল ইত্যাদি কাহিনী নাটকে প্রাধান্য বেশী পায়। কাহিনী পরিবেশন করার সময় দর্শকদের আমোদ-প্রমোদের জন্য হাস্য ব্যাঙ্গ করা হয়।

বেশ ভূষা ও প্রদর্শন রীতি[সম্পাদনা]

এই নাটক পরিবেশন করার সময় শিল্পীরা মুখমণ্ডলে রামায়ণের চরিত্রের মুখা পরিধান করেন। কাহিনী পরিবেশন করা চরিত্র সংলাপ না করে শুধু অভিনয় করে।

বাদ্যযন্ত্র[সম্পাদনা]

এই নাটক পরিবেশনের সময় ঢোল, খোল[৩]করতাল ব্যবহার করা হয়<ref>।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

  1. TI Trade। "Assam Tribune online"। Assamtribune.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-১১ 
  2. Bipuljyoti Saikia। "Bipuljyoti Saikia's Homepage : Sangeet - Bharigaan"। Bipuljyoti.in। ২০১৩-০৭-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-১১ 
  3. "The Music And Musical Instruments Of North Eastern India - Dilip Ranjan Barthakur - Google Books"। Books.google.co.in। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-১১