ভারতীয় মহিলা লিগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ভারতীয় মহিলা লিগ
সংগঠকসর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন
স্থাপিত২০১৬; ৮ বছর আগে (2016)
দেশ ভারত
কনফেডারেশনএএফসি
দলের সংখ্যা৭ (২০২৩–২৪)
লিগের স্তর
আন্তর্জাতিক কাপএএফসি মহিলা ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপ
বর্তমান চ্যাম্পিয়নগোকুলাম কেরালা (৩য় শিরোপা)
সর্বাধিক শিরোপাগোকুলাম কেরালা
(৩টি শিরোপা)
সম্প্রচারকইউরোস্পোর্ট (ভারত)
এআইএফএফ (ইউটিউব)
ওয়েবসাইটthe-aiff.com
২০২৩–২৪ ভারতীয় মহিলা লিগ

ভারতীয় মহিলা লিগ (ইংরেজি: Indian Women's League) বা সংক্ষেপে আইডব্লিউএল (IWL) হল ভারতীয় ফুটবলে মহিলাদের শীর্ষ স্তরের পেশাদার ফুটবল লিগ। এটি হিরো মোটোকর্পের সাথে স্পনসরশিপ সম্পর্কের জন্য হিরো ইন্ডিয়ান উইমেনস লিগ নামে পরিচিত। ২০১৬ সালে প্রতিষ্ঠিত, বর্তমানে সারা দেশ থেকে মোট ৭টি দল এই লিগে অংশগ্রহণ করে।

প্রতিযোগিতাটি ২০১৪ সাল থেকে পরিকল্পনা করা হয়েছিল এবং ২০১৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, প্রথম মৌসুম অক্টোবর ২০১৬ থেকে কটকে শুরু হয়েছিল।[১] ভারত জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের দক্ষতা ও খেলোয়াড় নির্বাচন বাড়ানোর লক্ষ্যে মহিলাদের জন্য ভারতের প্রথম পেশাদার ফুটবল লিগ হিসেবে লিগটি চালু করা হয়েছিল। ২০১৯-২০ সাল থেকে, যে ক্লাবগুলি চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তাদের এএফসি মহিলা ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপে খেলার সুযোগ দেওয়া হয়েছে, যা এশিয়ার শীর্ষ স্তরের মহিলা ক্লাব ফুটবল প্রতিযোগিতা৷

এখন পর্যন্ত চারটি ক্লাব চ্যাম্পিয়ন হয়েছে : ইস্টার্ন স্পোর্টিং ইউনিয়ন, রাইজিং স্টুডেন্টস ক্লাব, সেতু এবং গোকুলাম কেরালা। এর মধ্যে গোকুলাম কেরালা তিনবার চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি জিতেছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বিন্যাস[সম্পাদনা]

প্রতিযোগিতার বিন্যাস প্রাথমিক মৌসুম থেকে পরিবর্তন হয়েছে, তবে বেশিরভাগই নক-আউট টুর্নামেন্ট হিসাবে খেলা হয়েছিল যেখানে ৪টি দল একক রাউন্ড-রবিন বিন্যাসে খেলা গ্রুপ পর্বের মাধ্যমে একক-লেগ সেমিফাইনালের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছিল এবং শেষ পর্যন্ত একটিকে দল হিসেবে ঘোষণা করা হবে। ফাইনালে জিতে চ্যাম্পিয়ন। বর্তমানে, প্রতিযোগিতাটি একক ভেন্যুতে খেলা ১২ রাউন্ডের একক রাউন্ড-রবিন লিগ বিন্যাস অনুসরণ করে। নিজ নিজ রাজ্যের টুর্নামেন্টের বিজয়ীদল, পূর্ববর্তী মৌসুমের শীর্ষ চারটি দল সহ, লিগে সরাসরি যোগ্যতা অর্জন করে।

ফলাফল[সম্পাদনা]

মৌসুম চ্যাম্পিয়ন রানার্স-আপ দলসংখ্যা
২০১৬–১৭ ইস্টার্ন স্পোর্টিং ইউনিয়ন রাইজিং স্টুডেন্টস ক্লাব
২০১৭–১৮ রাইজিং স্টুডেন্টস ক্লাব ইস্টার্ন স্পোর্টিং ইউনিয়ন
২০১৮–১৯ সেতু মণিপুর পুলিশ ১২
২০১৯–২০ গোকুলাম কেরালা ক্রিফসা ১২
২০২০–২১ কোভিড-১৯ মহামারীর জন্য বাতিল
২০২১–২২ গোকুলাম কেরালা সেতু ১২
২০২২–২৩ গোকুলাম কেরালা কিকস্টার্ট ১৬
২০২৩–২৪ [ক]
  1. ভারতীয় মহিলা লিগ দ্বিতীয় ডিভিশন চালু হওয়ায় আগের মৌসুমের ১৬টির মধ্যে গ্রুপ পর্বে বিদায় নেওয়া ৮টি ক্লাব ২য় ডিভিশনে অবনমিত হয়।

সংবাদমাধ্যম সম্প্রচার[সম্পাদনা]

লিগের প্রথম চারটি মৌসুম টিভি সম্প্রচারের অভাব ছিল এবং ম্যাচগুলি ইউটিউব চ্যানেল এবং ভারতীয় ফুটবলের ফেসবুক পেজে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছিল ।[২] ভারতীয় ফুটবলের টুইটার প্রোফাইলেও ম্যাচের লাইভ আপডেট পাওয়া যায় । ২০২২ সালে, এআইএফএফ আইডব্লিউএল- এর পঞ্চম আসর সম্প্রচারের জন্য ইউরোস্পোর্টের সাথে একটি চুক্তিতে পৌঁছেছিল, কিন্তু মোট ৬৬ টি ম্যাচের মধ্যে মাত্র ৩০ টি ম্যাচই সম্প্রচার করা হয়েছিল।[৩][৪]

বর্তমান দল (২০২৩/২৪)[সম্পাদনা]

স্টেডিয়াম এবং অবস্থান[সম্পাদনা]

ক্লাব শহর রাজ্য/অঞ্চল স্টেডিয়াম ক্ষমতা
ইস্টবেঙ্গল কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ ইস্টবেঙ্গল মাঠ ২৩,৫০০
গোকুলাম কেরালা কালিকট কেরালা ইএমএস কর্পোরেশন স্টেডিয়াম ৫০,০০
এইচওপিএস নতুন দিল্লি দিল্লি আম্বেদকর স্টেডিয়াম ১৫,০০০
কিকস্টার্ট বেঙ্গালুরু কর্ণাটক বেঙ্গালুরু ফুটবল স্টেডিয়াম ৮,৪০০
ওড়িশা ভুবনেশ্বর ওড়িশা কলিঙ্গ স্টেডিয়াম ১৫,০০০
ভুবনেশ্বর এফএ মাঠ ১,০০০
সেতু মাদুরাই তামিলনাড়ু তিলক ময়দান স্টেডিয়াম[ক] ৫,০০০
স্পোর্টস ওড়িশা ভুবনেশ্বর ওড়িশা ক্যাপিটাল ফুটবল এরিনা ১,৫০০
  1. ক্লাবটি তামিলনাড়ুতে অবস্থিত তবে স্টেডিয়ামগুলি অনুপলব্ধতার কারণে ২০২৩-২৪ মৌসুমে গোয়ায় তার হোম ম্যাচগুলি খেলবে।

কর্মী এবং স্পনসরশিপ[সম্পাদনা]

দল কোচ অধিনায়ক কিট প্রস্তুতকারক শার্ট স্পন্সর
ইস্টবেঙ্গল ভারত দীপঙ্কর বিশ্বাস ভারত তৃষা মল্লিক ট্রাক অনলি ইমামি
গোকুলাম কেরালা ভারত অ্যান্থনি অ্যান্ড্রুজ ভারত গ্রেস ডাংমেই ডু'স সিএসবি ব্যাংক
এইচওপিএস ভারত ওম প্রকাশ ছিব্বার ভারত আনুশকা স্যামুয়েল ধারম ফাউন্ডেশন
কিকস্টার্ট ভারত লঙ্গম চাওবা দেবী ভারত ডালিমা ছিব্বর সুইট হায়ার
ওড়িশা ভারত ক্রিসপিন ছেত্রী ভারত মনীষা পান্না ট্রাক অনলি ভিজিট ওড়িশা
সেতু ভারত কানন প্রিয়লকর নেপাল অঞ্জিলা তুম্বাপো সুব্বা হুমেল চির নবায়ন
স্পোর্টস ওড়িশা ভারত পরমিতা সিট ভারত মুনিকা মিনজ নিভিয়া স্পোর্টস ভিজিট ওড়িশা

বিজয়ী প্রধান কোচ[সম্পাদনা]

২৬ মে ২০২২ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
প্রধান কোচ ক্লাব বিজয়ী জয়ের মৌসুম
ভারত ওইনাম বেমবেম দেবী ইস্টার্ন স্পোর্টিং ইউনিয়ন ২০১৬-১৭
ভারত শুক্লা দত্ত রাইজিং স্টুডেন্টস ক্লাব ২০১৭–১৮
ভারত অমৃত অরবিন্দ সেতু ২০১৮–১৯
ভারত প্রিয়া পিভি গোকুলাম কেরালা ২০১৯-২০
ভারত অ্যান্টনি অ্যান্ড্রুজ গোকুলাম কেরালা ২০২১-২২

পরিসংখ্যান এবং খেলোয়াড়[সম্পাদনা]

সর্বোচ্চ গোলদাতা[সম্পাদনা]

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
অব. প্লেয়ার মরসুম গোল
মিয়ানমার উইন থিঙ্গি টুন ৬৪
ভারত নাঙ্গম বালা দেবী ৩৮
ভারত সাবিত্রা ভান্ডারী ৩১
ভারত নংমাইথেম রতনবালা দেবী ২৫
ভারত সন্ধ্যা রঙ্গনাথন
ভারত ইউমনাম কমলা দেবী ২২
ভারত গ্রেস ড্যাংমেই ১৫
ভারত অঞ্জু তামাং
ভারত কারিশমা শিরভোইকার ১১
১০ ভারত মনীষা কল্যাণ ১০
ভারত ইরম প্রমেশ্বরী দেবী
ভারত এম এস কাশমিনা
১৩ ভারত সঞ্জু যাদব
১৪ ভারত শস্মিতা মালিক
ভারত প্যারি জাজা
ভারত সৌম্য গুগুলথ
১৭ বাংলাদেশ সাবিনা খাতুন
ভারত জবামণি টুডু
১৯ উগান্ডা ফজিলা ইকওয়াপুত
ভারত হিগরুজম দয়া দেবী
ভারত ইন্দুমাথি কাথিরেসান
ভারত প্রদীপা সেকার
ভারত সুমিত্রা কামরাজ

মৌসুম অনুযায়ী সর্বোচ্চ গোলদাতা[সম্পাদনা]

মৌসুম প্লেয়ার ক্লাব গোল
২০১৬–১৭ ভারত ইউমনাম কমলা দেবী ইস্টার্ন স্পোর্টিং ইউনিয়ন ১২
২০১৭–১৮ ভারত নাঙ্গম বালা দেবী ক্রিফসা ১২
২০১৮–১৯ ভারত নাঙ্গম বালা দেবী মণিপুর পুলিশ ২৬
২০১৯-২০ নেপাল সাবিত্রা ভান্ডারী গোকুলাম কেরালা ১৬
২০২১-২২ ঘানা এলশাদ্দাই আচেম্পং গোকুলাম কেরালা ২০

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Puri, Rohan (২১ এপ্রিল ২০১৬)। "Women's football league from October"Times of India। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০১৬ 
  2. Thomas, Nevin (১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭)। "Indian Women's League: A new dawn"। The Hindu। Sportstar। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২২ 
  3. "Indian Women's League to kickstart on April 15 on Eurosport India"। The Times of India। ১৩ এপ্রিল ২০২২। 
  4. "Eurosport India to broadcast Hero Indian Women's League 2021-22"। Best Media Info। ১৩ এপ্রিল ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]