ভারতীয় ডাক বিভাগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভারতীয় ডাক বিভাগ
ভারত সরকার-এর সংস্থা
প্রতিষ্ঠাকাল১ এপ্রিল ১৭৭৪
সদরদপ্তরসংসদ মার্গ, নতুন দিল্লী- ১১০০০১
প্রধান ব্যক্তি
শ্রীমতী পদ্মিনী গোপীনাথ, মুখ্য প্রবন্ধক
কর্মীসংখ্যা
৪৬৬,৯০৩
( ৩১ মার্চ ২০১১ পর্য্যন্ত )[১]
স্লোগানডাক সেবা জন সেবা

ভারতীয় ডাক বিভাগ, যা ভারতীয় ডাক হিসাবে ব্যবসায় করে আসছে , হল ভারত-এর সরকার চালিত ডাক প্রণালী যা সাধারণত ডাক ঘর হিসাবে পরিচিত ।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রাক স্বাধীনতা কাল (১৮৫৮-১৯৪৭)[সম্পাদনা]

Tall, round red mailbox with decorative crown on top
সিমলাতে থাকা একটা ব্রিটিশ যুগের পোষ্ট বক্স

১৮৫৮ সালের ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানী ভারতবর্ষকে রাণীর হাতে সমর্পন করার সাথে সাথে ভারত-এ ব্রিটিশ রাজের প্রতিষ্ঠা হয় ।[২] ১৮৬১ সাল থেকে ৮৮৯টা ডাকঘর তৈরি হয় যেখানে ৪৩ নিযুত চিঠি এবং ৪.৫ নিযুত খবরের কাগজের আদান প্রদান হয়েছিল । ১৯১১ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি তারিখে বিশ্বর প্রথম উড়ো ডাক (এয়ার মেইল)-এর ঘটনা ঘটে যেখানে হেনরী পেকুয়েট নামের ফরাসি পাইলট এলাহাবাদ থেকে ১৫ কেজি ভার (প্রায় ৬০০০ চিঠি) নিয়ে উড়ে গংগা নদীর অন্যপারে অবস্থিত নেইনি নামের স্থানে উপস্থিত হন ।

স্বাধীনোত্তর কাল[সম্পাদনা]

স্বাধীনতার পর থেকে ভারতীয় ডাক দেশজুড়ে বিভিন্ন সেবা প্রদানে অগ্রণী হয় । ১৯৫৯ সালের ভারতীয় ডাক বিভাগ "Service before Self"কে নিজের আদর্শ বাক্য হিসাবে গ্রহণ করে । স্বাধীনতার পরবর্তী সময়কালে ভারতীয় ডাক বিভাগ আধুনিকীকরণে ব্যাপক গুরুত্ব আরোপ করি আসছে ।

কম্পিউটারাইজেশন[সম্পাদনা]

১৯৯১ সালের বহুমুখী কাউণ্টার যন্ত্রের ব্যবহার দিয়ে লাভালাভের জন্য আরম্ভ করা হয়েছিল ।

  • গ্রাহক সেবার উৎকর্ষ সাধন, আয় বৃদ্ধি ও কর্মচারীর কার্য্যদক্ষতা বৃদ্ধির জন্য ।
  • ডাক সেবাকে রাজ্যিক সমাজ-নিরাপত্তা প্রচারের কেন্দ্রবিন্দু করার জন্য ।
  • ১,৩০,০০০ গ্রাম্য ডাক ঘরকে অণুবৈদ্যুতিক (ইলেক্ট্রনিক) ব্যবস্থার মাধ্যমে সংযোগ করার জন্য । যার পোশাকি নাম RICT ডিভাইস।
  • ডাক সেবা, ডাক বেংকিং ও বীমা সেবাতে কাগজবিহীন লেনদেনের জন্য ।
  • ডাক সেবাতে ট্রেকিং ও ট্রেচিং ব্যবস্থা প্রয়োগের জন্য ।
  • Postal Life Insurence (PLI&RPLI) এর সুবিধা

২০০৬-০৭ ও ২০১১-১২ সালের মধ্যে একটি ১৮৭৭.২ কোটি টাকার প্রচারের মাধ্যমে ২৫,০০০ ডাক ঘর (২৫,৪৬৪র মধ্যে) কম্পিউটারাইজড্ করা হয় ।[৩]

অণুবৈদ্যুতিক (ইলেক্ট্রনিক) ভারতীয় পোষ্টাল অর্ডার (e-IPO)[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের ২২ মার্চ তারিখে অণুবৈদ্যুতিক(ইলেক্ট্রনিক) ভারতীয় পোষ্টাাল অর্ডার (e-IPO) আরম্ভ করা হয় কেবল দেশের বাইরে থাকা ভারতীয়দের জন্য । এইগুলি পোষ্টাল অর্ডারের সহায়তায় অনলাইন যোগে ২০০৫ সালের তথ্য জানার অধিকার আইনের মাশুল পরিশোধ করার সুবিধা হয় । ২০১৪ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি তারিখে এই সেবা সকল ভারতীয়র জন্য মুক্ত করে দেয়া হয় ।[৪]

সংগঠন[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.indiapost.gov.in/Report/Annual_Report_2011-2012.pdf
  2. Kaul, Chandrika। "From Empire to Independence: The British Raj in India 1858–1947."। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১১ 
  3. "India News in Hindi, Latest Hindi News Punjab & World News, Hindi Newspaper"। Punjabkesari.in। ২০১২-০৫-১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৬-০৭ 
  4. "RTI Process gets Further Boost with the Introduction of 'e-Indian Postal Order' for all by the Department of Posts" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। PIB। ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৪