ভাইরাস পদার্থবিজ্ঞান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ভাইরাস পদার্থবিজ্ঞান বিজ্ঞানের একটি শাখা যা জীববিজ্ঞানপদার্থবিজ্ঞানের তাত্ত্বিক ধারণা এবং এই শাখার উৎপত্তি হয়েছে পরীক্ষামূলক কৌশল প্রয়োগ করার জন্য। এই শাখা তাপমাত্রা এবং ভাইরাসের কোষের মধ্যে মিথস্ক্রিয়া চালায়।[১][২][৩]

সংক্ষিপ্ত বিবরণ[সম্পাদনা]

ভাইরাস পদার্থবিজ্ঞানে সাধারণত গবেষণা করা হয় ভাইরাসের গঠন, কাঠামোগত বৈশিষ্ট্য নিয়ে। এছাড়া আরো গবেষণা করা হয় তাদের সংক্রমণ নিয়ে। ভাইরাস আক্রমণে জনসংখ্যার আক্রান্তের উত্থান তাদের জনসংখ্যা একটি সংক্রমণের উপর গতিবিদ্যা। এবং বিভিন্ন আলিঙ্গনের উত্থান এবং বিবর্তন বৈশিষ্ট্য সমাধান করার জন্য এই বিজ্ঞানের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করা হয়।[১][২][৩] এই প্রচেষ্টার সাধারণ লক্ষ্য রয়েছে। লক্ষ্যটি হল একটি মডেল সেট (এক্সপ্রেশন বা আইন) স্থাপন করা। এটা স্থাপন করার ফলে পরিমাণগতভাবে ভবিষ্যদ্বাণীপূর্ণ ভাইরাসের ক্ষমতার সাথে ভাইরাল সংক্রমণ জড়িত সমস্ত প্রক্রিয়ার বিশদ বর্ণনা করা যায়। ভাইরাসের পরিমাণগত বিষয় বোঝার ফলে ভাইরাল সংক্রমণের কোর্স প্রতিরোধ, নির্দেশিকা বা নিয়ন্ত্রণ করার কৌশল বিকাশের সাথে এই বিজ্ঞান যুক্তিযুক্ত করবে না। তবে ভাইরাসের প্রক্রিয়া শোষণ করতে এবং ভাইরাসটি ন্যানোস্কি, উপকরণ এবং জৈব প্রযুক্তির ক্ষেত্রে কাজ করার জন্য এই বিজ্ঞান ব্যবহার করা হয়।

ঐতিহ্যগতভাবে, ভিভো এবং ভিট্রো ছিল পরীক্ষা করার জন্য ভাইরাল সংক্রমণের অধ্যয়ন করার একমাত্র উপায়। একমাত্র পরীক্ষামূলক পর্যবেক্ষণের উপর ভিত্তি করে জ্ঞান অর্জনের জন্য এই পদ্ধতিটি সাধারণ জ্ঞান অনুমানের উপর নির্ভর করে । অন্যদের প্রভাবিত না করে এই জটিল পদ্ধতির পৃথক উপাদান নিয়ন্ত্রণ করতে অসুবিধার কারণে এই অনুমান প্রায়শই অরক্ষিত হয়েছে। তবে গাণিতিক মডেল এবং কম্পিউটার সিমুলেশন এর ব্যবহার এই জাতীয় পদ্ধতি বর্ণনা করার জন্য ব্যবহার হয়েছে। তবে পৃথক উপাদান একটি পরীক্ষামূলক পদ্ধতির ডিকনস্ট্রাক্ট করা এবং টুকরা সংক্রমণ তৈরির জন্য কীভাবে একত্রিত হয় তা নির্ধারণ করে তোলে আমাদের নিজেদের পর্যবেক্ষণ।

ভাইরোফিজিক্স বা ভাইরাস পদার্থবিজ্ঞান অন্যান্য ক্ষেত্রের সাথে বৃহৎ ওভারল্যাপ রয়েছে। উদাহরণস্বরূপ, সংক্রামক রোগের গতিবিদ্যার মডেলিং গণিতে একটি জনপ্রিয় গবেষণা বিষয়। বিশেষত প্রয়োগিত গণিত বা গাণিতিক জীববিজ্ঞানে। যদিও গণিতে বেশিরভাগ মডেলিংয়ের প্রচেষ্টাগুলি একটি মহামারীবিজ্ঞান হিসাবে (ব্যক্তি থেকে ব্যক্তি) সংক্রামক রোগের প্রসারণের গতিবিদ্যাকে আলোকপাত করার দিকে মনোনিবেশ করেছে। সেখানে সেলুলার স্কেল (সেল-টু-সেল) -এতে গুরুত্বপূর্ণ কাজ চলছে। ভাইরাস পদার্থবিজ্ঞান এককোষে বা একাধিক কোষ স্কেলে প্রায় একচেটিয়া মনোনিবেশ করে। একটি কোষের ভিট্রো একটি অঙ্গ ভিভো বা একটি সম্পূর্ণরূপে ছড়িয়ে পড়া ভাইরাল সংক্রমণের অস্থায়ী এবং স্থানিক গতিবিদ্যা সমাধান করতে শারীরিক মডেলগুলি ব্যবহার করে শারীরিক মডেলগুলি ব্যবহার করে হোস্ট (ভিভোতে)।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "এনএসইআরসি আবিষ্কারের অনুদান ভাইরাস পদার্থবিজ্ঞান বর্ণনা দিচ্ছে"। nserc.gc.ca। ১ অক্টোবর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০ আগস্ট ২০১৫ 
  2. "কনফারেন্স ভাইরাস পদার্থবিজ্ঞানের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে এবং বর্ণনা করে"। ScienceConf.org। ২৬ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০ আগস্ট ২০১৫ 
  3. "ভাইরাস পদার্থবিজ্ঞানের প্রবর্তনমূলক আলোচনা"। physics.mcmaster.ca। ১২ নভেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০ আগস্ট ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

আরো[সম্পাদনা]