ভাইমার প্রজাতন্ত্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
জার্মান রাইখ
ডয় রাইখ

১৯১৯–১৯৩৩
পতাকা প্রতীক
সঙ্গীত
Das Lied der Deutschen
ভেইমার যুগের জার্মানি, প্রুশিয়া স্বাধীন রাজ্য ছিল বৃহত্তম প্রদেশ।
রাজধানী বার্লিন
ভাষাসমূহ জার্মান
সরকার প্রজাতন্ত্র
রাষ্ট্রপতি
 -  ১৯১৮-১৯২৫ ফ্রিদরিখ এবের্ত
 -  ১৯২৫-১৯৩৩ পল ভন হিন্ডেনবার্গ
চ্যান্সেলর
 -  ১৯১৯ Philipp Scheidemann(প্রথম)
 -  ১৯৩৩ Kurt von Schleicher (শেষ)
আইন-সভা রাইখস্টাগ
 -  স্টেট কাউন্সিল রাইখস্ট্রাট
ঐতিহাসিক যুগ যুদ্ধকালীন সময়
 -  সংস্থাপিত ৯ নভেম্বর, ১৯১৮ ১৯১৯
 -  হিটলারের অধিষ্ঠান ৩০ জানুয়ারি ১৯৩৩
 -  রাইখস্টাগ অগ্নিকাণ্ড ২৭ ফেব্রুয়ারি, ১৯৩৩
 -  আইন বলবৎকরণ ২৩ মার্চ, ১৯৩৩ ১৯৩৩
আয়তন
 -  ১৯২৫ ৪,৬৮,৭৮৭ বর্গ কি.মি. (১,৮১,০০০ বর্গ মাইল)
জনসংখ্যা
 •  ১৯২৫ আনুমানিক ৬,২৪,১১,০০০ 
     ঘনত্ব ১৩৩.১ /কিমি  (৩৪৪.৮ /বর্গ মাইল)
মুদ্রা পাপিয়েরমার্ক (১৯১৯-১৯২৩)
রাইখ্‌সমার্ক (১৯২৪-১৯৩৩)
সতর্কীকরণ: "মহাদেশের" জন্য উল্লিখিত মান সম্মত নয়

ভাইমার প্রজাতন্ত্র ১৯১৯ থেকে ১৯৩৩ সাল পর্যন্ত যে জার্মান রাজ্য বিদ্যমান ছিল তার ডাকনাম। ইতিহাসবিদরা এই নামটি রেখেছিলেন ঐতিহাসিক শহর ভাইমার-এর নামানুসারে। এই শহরেই জার্মানির নতুন সংবিধান রচিত হয় এবং এটি কার্যকর করার জন্য এক বিশাল জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম বিশ্বযুদ্ধে জার্মানির পতনের পর ঐতিহাসিক জার্মান রাইখ-এর জন্য নতুন সংবিধান গৃহীত হয় এবং ১৯১৯ সালের ১১ আগস্ট থেকে তা কার্যকর হয় ।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]