ভলকানোলজি আইও

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
আইও , বৃহস্পতি থেকে তোলা ছবি 

আইও বৃহস্পতি গ্রহের একটা উপগ্রহ। (বৃহস্পতির চাদ)১৯৭৯ সালে মহাকাশযান Voyager 1 (ভয়েজার ১) এই উপগ্রহকে প্রথম পর্যবেক্ষন করে।  এর পাশ দিয়ে এপর্যন্ত  ভয়েজার, গ্যালিও, ক্যাসসিনি ও নিউ হ্যারিজন রকেট গেছে।( Voyagers, Galileo, Cassini, and New Horizons) and Earth-based astronomers have revealed more than 150 active volcanoes. Up to 400 such volcanoes are predicted to exist based on these observations.[১] Io's volcanism makes the satellite one of only four known currently volcanically active worlds in the Solar System (the other three being Earth, Saturn's moon Enceladus, and Neptune's moon Triton)

আবিস্কার[সম্পাদনা]

Discovery image of active volcanism on Io. The plumes of Pele and Loki are visible above the limb and at the terminator, respectively.

ভয়েজার-১, ১৯৭৯ সালের মার্চ ৫ তারিখে এর পাশ দিয়ে যাবার আগে চাদের মত এটাকে মনে করা হত। সোডিয়ামের মেঘবেষ্টিত বলে এটাকে উদ্বায়ী উপগ্রহ হিসেবে ভাবা হয়ে ছিল।

ভয়েজার ১ এর সামনে আসলে স্টান পেল, প্যাট্রিক ক্যাসেন, ও আর. টি. রেনল্ডস এর অগ্নুপাৎ, পৃষ্ঠ, এবং এর অভ্যান্তরীন সর্ম্পকে ধারনা দেন।

Voyager 1 observation of Loki Patera and nearby lava flows and volcanic pits
আইওর তাপমাত্রা মানচিত্র 

References[সম্পাদনা]

  1. Lopes, R. M. C.; et al. (2004).