ব্লো-ব্জাং-ফ্যোগ্স-লাস-র্নাম-র্গ্যাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

ব্লো-ব্জাং-ফ্যোগ্স-লাস-র্নাম-র্গ্যাল (ওয়াইলি: blo bzang phyogs las rnam rgyal) (১৭৬২-১৮৩৯) তিব্বতী বৌদ্ধধর্মের দ্গে-লুগ্স ধর্মসম্প্রদায়ের তৃতীয় দ্কোন-র্দোর-স্প্রুল-স্কু (ওয়াইলি: dkon rdor sprul sku) উপাধিধারী বৌদ্ধ লামা ছিলেন। তিনি তিব্বতের খাম্স অঞ্চলে অবস্থিত ছাব-ম্দো-ছোস-'খোর-ব্যাম্স-পা-গ্লিং বৌদ্ধবিহারের (ওয়াইলি: chab mdo chos 'khor byams pa gling) চব্বিশতম প্রধান ছিলেন।

সংক্ষিপ্ত জীবনী[সম্পাদনা]

ব্লো-ব্জাং-ফ্যোগ্স-লাস-র্নাম-র্গ্যাল ১৭৬২ খ্রিষ্টাব্দে তিব্বতের স্গোম-স্দে-ঙ্গাগ-ছেন (ওয়াইলি: sgom sde ngang chen) নামক স্থানে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি লাসা শহরে অবস্থিত সে-রা বৌদ্ধবহার বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষালাভ করেন। এই সময় 'ফাগ্স-পা-দ্গে-লেগ্স-র্গ্যাল-ম্ত্শান (ওয়াইলি: phags pa dge legs rgyal mtshan) নামক চতুর্থ ঝি-বা-ল্হা (ওয়াইলি: zhi ba lha), ঙ্গাগ-দ্বাং-'ফ্রিন-লাস-দ্পাল-ব্জাং (ওয়াইলি: ngag dbang 'phrin las dpal bzang) নামক ষষ্ঠ ল্চাগ্স-রা-স্প্রুল-স্কু (ওয়াইলি: lcags ra sprul sku), 'জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পা'ই-ম্গোন-পো (ওয়াইলি: 'jigs med bstan pa'i mgon po) নামক সপ্তম 'ফাগ্স-পা-ল্হা (ওয়াইলি: 'phags pa lha) প্রভৃতি বিখ্যাত লামারা তাঁর উল্লেখযোগ্য শিক্ষক ছিলেন। তিনি দ্পাল-র্দো-র্জে-'জিগ্স-ব্যেদ-ক্যি-'খ্রুল-গ্যি-য়িগ-ছা (ওয়াইলি: dpal rdo rje 'jigs byed kyi 'khrul 'khor gyi yig cha) নামক একটি গ্রন্থ রচনা করেন। ১৭৯৪ খ্রিষ্টাব্দে তিনি ছাব-ম্দো-ছোস-'খোর-ব্যাম্স-পা-গ্লিং বৌদ্ধবিহারের চব্বিশতম প্রধানের দায়িত্ব গ্রহণ করেন এবং এগারো বছর এই পদে থাকেন।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Chhosphel, Samten (আগস্ট ২০১০)। "The Third Kondor Tulku, Lobzang Chokle Namgyel"The Treasury of Lives: Biographies of Himalayan Religious Masters। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৭-১২ 
পূর্বসূরী
ব্লো-ব্জাং-দ্বাং-ফ্যুগ
ব্লো-ব্জাং-ফ্যোগ্স-লাস-র্নাম-র্গ্যাল
তৃতীয় দ্কোন-র্দোর-স্প্রুল-স্কু
উত্তরসূরী
ব্লো-ব্জাং-'জাম-দ্পাল-ব্স্তান-'দ্জিন-র্নাম-র্গ্যাল
পূর্বসূরী
'জিগ্স-মেদ-ব্স্তান-পা'ই-ম্গোন-পো
ব্লো-ব্জাং-ফ্যোগ্স-লাস-র্নাম-র্গ্যাল
ছাব-ম্দো-ছোস-'খোর-ব্যাম্স-পা-গ্লিং বৌদ্ধবিহারের চব্বিশতম প্রধান
উত্তরসূরী
ব্লো-ব্জাং-'জিগ্স-মেদ-দ্পাল-ল্দান-ব্স্তান-পা'ই-ন্যি-মা