ব্লাইন্ড অডিশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ব্লাইন্ড অডিশন, পরীক্ষার মাধ্যমে কোন কাজের দক্ষতা পরিমাপের একটি পদ্ধতি যেখানে পরীক্ষার্থীকে দেয়াল অথবা পর্দার পেছনে থেকে দক্ষতা প্রদর্শন করতে হয়। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে কর্তা ব্যক্তিকে বিচারের যথার্থতা সর্ম্পকে নিশ্চিত করা যাতে ব্যক্তিত্ব, নাম কিংবা লিংগের পক্ষপাতিত্ব ব্যতীত কেবল দক্ষতার ভিত্তিতে রায় দেয়া যায়।  

চিত্র:Blind Audition in Voice Spain.jpg
বিচারক গণ রায় প্রদানের পূর্বে প্রার্থীর লিঙ্গ পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত নন এরকম একটি দৃশ্য

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আমেরিকান ইকোনমিক রিভিউ তে প্রকাশিত গবেষণা দেখিয়েছে যে ব্লাইন্ড অডিশনের ব্যবহার, দক্ষতা প্রদর্শনের সময় লিংগের দৃশ্যমান প্রভাবকে পরিবর্তন করেছে । ২০০১ সালে, প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে  সিসিলিয়া রোজ  এবং হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ক্লডিয়া গোল্ডিন এর একটি সমীক্ষার মতে, আমেরিকার সিম্ফোনি অর্কেষ্ট্রার প্রতিযোগীতায় ব্লাইন্ড অডিশনের ব্যবহার করার পর যেকোন মহিলার প্রাথমিক ধাপ পেরিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা ৫০ শতাংশ বেড়ে যায়। তারা আরো মনে করেন, ১৯৭০এর দশকে অর্কেষ্ট্রার মহিলা সদস্য ছিল প্রায় ১০ শতাংশ , যা নব্বই দশকের মাঝামাঝিতে ৩০ শতাংশে এসে দাড়ায় যাকে সিসিলিয়া রোজ এবং ক্লডিয়া গোল্ডিন ৩৫ শতাংশ বৃদ্ধি বলে দাবী করেন।"[১]

জ্যাজ সংগীতের বেজবাদক  এবং ব্যবহারিক মনোরোগ বিদ্যার বিশেষজ্ঞ আর্ট ডেভিস  একটি মামলা করেন যার কারনে বর্তমানের ব্লাইন্ড অডিশন এর ধারা চালু হয় ।[২][৩]

২০১০ সালে  প্রতিভা খোঁজার  অনুষ্ঠান দ্যা ভয়েজ অব হল্যান্ডে  টেলিভিশন সম্প্রচারের মাধ্যমে ব্লাইন্ড অডিশন এর সুচনা করা হয়; এই ধারণা খুব দ্রুতই  অনেক গুলো দেশে বিস্তৃতি পায় এবং এরকম অনুষ্ঠানে ব্যবহৃত হতে থাকে।

বাছাই এবং নিয়োগ পদ্ধতি[সম্পাদনা]

দ্যা ভয়েজ অব হল্যান্ড [৪] থেকে অনুপ্রানিত হয়ে প্রযুক্তি নির্মাতা গ্যাপজাম্পার[৫], চাকুরি প্রত্যাশিদের ব্লাইন্ড অডিশনের মাধ্যমে প্রকৃত দক্ষতার ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়ার কাজে লাগায়।

ব্লাইন্ড অডিশন, বিভিন্ন গবেষনায় প্রমান করে যে ,অধিকাংশ ক্ষেত্রেই মহিলা এবং সংখালঘু নিয়োগের মাত্রা বাড়ায় কারণ এটি পক্ষপাতিত্ব করার সব সম্ভবনা দূর করে।

ডলবি ল্যাবোরেটোরিজ বলেছে তারা সম্প্রতি একজন প্রকৌশল বিষয়ক নবীশকে নিয়োগ দিয়েছে যে অভিজ্ঞতা এবং উচ্চতর শিক্ষার অভাবে সম্ভবত বাদ পড়ে যেত।[৬]

ভেঞ্চারবীট এর প্রধান সম্পাদক তার প্রকাশনায় নতুন প্রযুক্তি বিষয়ক সাংবাদিক নিয়োগে ব্লাইন্ড অডিশন এর ঘোষণা দিয়েছেন, তিনি আশা করেন এতে আরো বেশি নারী সাংবাদিক প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করতে সুযোগ পাবে, কিন্তু সময়ই তা জানিয়ে দেবে বলে তিনি স্বীকার করেন[৭]

টুডে শো ব্লাইন্ড অডিশন কে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নিয়োগ করার ক্ষেত্রে প্রতিভাবানদের জাতি,লিংগ এবং আর্থ-সামাজিকতা নির্বিশেষে বিবেচনা করে।[৮]

গ্যাপজাম্পার[৫] যারা ধারাটি চালু করে, ব্লাইন্ড অডিশনের মাধ্যমে সিলিকন ভ্যালীর  নিয়োগদাতাদের বৈচিত্রের অভাব পূরণের সুযোগ দেয়।[৯]

আমেরিকান ইকোনমিক রিভিউ দেখিয়েছে যে কর্মক্ষেত্রে জাতিগত বৈষম্য এখনো খুবই প্রকট ভাবে রয়েছে।[১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Marks, Marilyn (February 12, 2001).
  2. Stewart, Jocelyn Y. (August 5, 2007).
  3. Osborne, William.
  4. "They don't call it colorblind for nothing", January 29, 2015.
  5. "Make optimal talent decisions by interrupting implicit bias"। GapJumpers, Inc। 
  6. SF Chronicle.
  7. Huff Post Tech.
  8. "Companies are using blind auditions to hire top talent".
  9. "Why companies are using 'blind auditions' to hire top talent".
  10. NBER Working Paper No. 9873 "Are Emily and Greg More Employable than Lakisha and Jamal?

আরো দেখা যেতে পারে[সম্পাদনা]

Blind auditions in Holland