ব্র্যাডলি ম্যানিং

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
ব্র্যাডলি ম্যানিং
Chelsea Manning on 18 May 2017.jpg
Manning in 2017
Born (১৯৮৭-১২-১৭) ১৭ ডিসেম্বর ১৯৮৭ (বয়স ২৯)
Crescent, Oklahoma, U.S.
Service/branch United States Army
Years of service Since 2007
Rank Army-USA-OR-03.svg Private First Class
Unit 2nd Brigade Combat Team,
10th Mountain Division
Awards National Defense Service Medal
Army Service Ribbon
Global War on Terrorism Service Medal
Iraq Campaign Medal
Parents Brian Manning
Susan Fox

ব্র্যাডলি ম্যানিং যুক্তরাষ্ট্রের একজন সেনা যিনি মার্কিন সাম্রাজ্যের স্পর্শকাতর তথ্য ফাঁস করার অভিযোগে এখন নির্জন কারাগারে বন্দিজীবন কাটাচ্ছেন। সাড়া জাগানো ওয়েবসাইট উইকিলিকসে যুক্তরাষ্ট্রের স্পর্শকাতর তথ্য ফাঁসের অভিযোগে যখন প্রাইভেট ব্র্যাডলি ম্যানিং অভিযুক্ত হন, তখন তাঁর বয়স ২২ বছর।[১] সরকারি গোপন নথি ফাঁস করার অপরাধে ২০১০ সালে এই মার্কিন সেনাকে গ্রেপ্তার করে এফবিআই।[২]

অভিযোগ[সম্পাদনা]

২০০৯ সালের সেপ্টেম্বরে ম্যানিং।

ব্র্যাডলি ম্যানিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে যে তিনি কয়েক হাজার সামরিক ফিল্ড রিপোর্ট আর প্রায় ৭ লাখ মিলিটারি কেবলের সাহায্যে আফগানিস্তান ও ইরাকে মার্কিন সেনার লক্ষাধিক গোপন রিপোর্ট দুনিয়ার সামনে ফাঁস করেছেন।[২] ইরাক ও আফগানিস্তানে মার্কিন সেনা অভিযান চালানোর সময় ২০০৭ সালে বাগদাদে চালানো মার্কিন বিমান হামলার স্পর্শকাতর ভিডিওচিত্র ডাউনলোড করে সেগুলো ছড়িয়ে দিয়েছেন ম্যানিং। একইভাবে ম্যানিং ২০০৯ সালে ইয়েমেনে চালানো মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ভিডিওচিত্র ডাউনলোড করে সেগুলো ছড়িয়ে দেন। অভিযোগ রয়েছে, এগুলো সবই ম্যানিং করেছেন অবৈধভাবে। অনলাইনে চ্যাটিং করার সময় ম্যানিং একবার লিখেছিলেন, ‘মিথ্যা সুখের চেয়ে আমি কষ্টকর সত্যকে বেছে নিতে চাই।’[১]

উইকিলকসে তথ্য ফাঁস[সম্পাদনা]

উইকিলিকসের কাছে একাধিক গোপন তথ্য ফাঁসের অভিযোগে অভিযুক্ত মার্কিন সেনা ব্রাডলি ম্যানিং তার বিরুদ্ধে আনা কয়েকটি অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছেন যদিও শত্রুকে সহায়তা করার অভিযোগটি স্বীকার করেননি তিনি। ম্যানিংয়ের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগগুলোর মধ্যে এটিই সবচেয়ে গুরুতর। যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডে এক সামরিক আদালতে ম্যানিংয়ের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে তিনি তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ২২টি অভিযোগের দশটি স্বীকার করে নেন ম্যানিং। এ সময় তিনি উইকিলিকসেকের কাছে গোপন তথ্য ফাঁসের অভিযোগটিও স্বীকার করে নেন এবং বলেন যে বিভিন্ন কারণে যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের মধ্যে মার্কিন বাহিনীর ভূমিকা এবং পররাষ্ট্র নীতি নিয়ে যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে তা লাঘব হবে মনে করে তিনি উইকিলিকসকে এসব তথ্য দেন।[৩]

পক্ষ অবলম্বন[সম্পাদনা]

Manning said he gave WikiLeaks the July 12, 2007 Baghdad airstrike video (so-called "Collateral Murder") in early 2010. Unedited version and edited version[৪]

ম্যানিংয়ের কর্মকাণ্ডের জন্য যুক্তরাষ্ট্রেই তার পক্ষে দাঁড়িয়েছেন অনেকে। ২০০৩ সালে ইরাকে মার্কিন আগ্রাসনের প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পদ থেকে পদত্যাগ করেন কর্নেল অ্যান রাইট। তিনি বলেছেন, ওবামা প্রশাসন ম্যানিংয়ের সঙ্গে যা করেছে, সেটি আইনের লঙ্ঘন। তাঁর সঙ্গে গুয়ানতানামো কারাগারের বন্দীদের মতো আচরণ করা হচ্ছে। ম্যানিংয়ের পক্ষে সোচ্চার হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের মানবাধিকার সংগঠনগুলোও। মেরিল্যান্ডের ফোর্ট মিডে তাঁর মামলার শুনানি চলছে। ম্যানিংয়ের সুবিচার করার জন্য তারা ফোর্ট মিডের সামনে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। [১]

বর্ষসেরা ব্যক্তি[সম্পাদনা]

বৃটেনের প্রভাবশালী পত্রিকা গার্ডিয়ান ২০১২ সালের বর্ষসেরা ব্যক্তি নির্বাচিত করেছে মার্কিন সেনা ব্র্যাডলি ম্যানিংকে। সাড়া জাগানো ওয়েবসাইট উইকিলিকসের কাছে তথ্য সরবরাহ করার জন্য ম্যানিং মার্কিন সেনা কারাগারে অবস্থান করছেন। ২০১২ অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ড্যানি বোয়েল, সার্নের ফাবিওলা গিয়ানোত্তি, আমেরিকার পরিসংখ্যানবিদ নাতে সিলভারও তালিকায় ছিলেন। এর মধ্যে পাঠকদের সবচেয়ে বেশি শতকরা ৭০ ভাগ ভোট পেয়েছেন ব্র্যাডলি ম্যানিং।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ম্যানিং: নায়ক না খলনায়ক? (ভিডিও),অনলাইন ডেস্ক, দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ১৭-১২-২০১১ খ্রিস্টাব্দ।
  2. উইকিলিকসের নেপথ্য নায়ক ব্রাডলি ম্যানিং কুণ্ঠিত নন,আন্তর্জাতিক ডেস্ক, দৈনিক আমাদের সময়। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ১৫-০৩-২০১৩ খ্রিস্টাব্দ।
  3. উইকিলকসে তথ্য ফাঁস ‘অভিযোগ স্বীকার করলেন ব্রাডলি ম্যানিং ‘, দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ০২-০৩-২০১৩ খ্রিস্টাব্দ।
  4. "Open Secrets: WikiLeaks, War and American Diplomacy," The New York Times.
  5. গার্ডিয়ানের দৃষ্টিতে বর্ষসেরা ব্রাডলি ম্যানিং, দৈনিক মানবজমিন। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ১১ ডিসেম্বর ২০১২ খ্রিস্টাব্দ।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]