ব্রাইটন ওয়াতাম্বা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ব্রাইটন ওয়াতাম্বা
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামব্রাইটন টন্ডারাই ওয়াতাম্বা
জন্ম (1977-06-09) ৯ জুন ১৯৭৭ (বয়স ৪৩)
সলসবারি, রোডেশিয়া
ডাকনামবাল্ব, স্পাইকি, স্লিম[১]
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৫০)
১৯ এপ্রিল ২০০১ বনাম বাংলাদেশ
শেষ টেস্ট২৮ ফেব্রুয়ারি ২০০২ বনাম ভারত
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৯৭/৯৮ - ২০০০/০১ম্যাশোনাল্যান্ড এ
১৯৯৯/২০০০ - ২০০১/০২ম্যাশোনাল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ২১ ১২
রানের সংখ্যা ১১ ৭০ ১৫
ব্যাটিং গড় ৩.৬৬ ৫.৮৩ ২.১৪
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান * ১৪* ৬*
বল করেছে ৯৩১ ৩,০৭৬ ৫৯৮
উইকেট ১৪ ৬৬
বোলিং গড় ৩৫.০০ ২৬.০৬ ৫৯.৪৪
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৪/৬৪ ৬/৯৬ ২/৩৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ৫/– ৩/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৭ জুন ২০২০

ব্রাইটন টন্ডারাই ওয়াতাম্বা (ইংরেজি: Brighton Watambwa; জন্ম: ৯ জুন, ১৯৭৭) সলসবারি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক জিম্বাবুয়ীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার| জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ২০০০-এর দশকের শুরুরদিকে বেশ সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে জিম্বাবুয়ের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর জিম্বাবুয়ীয় ক্রিকেটে ম্যাশোনাল্যান্ড ও ম্যাশোনাল্যান্ড এ দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন ‘বাল্ব’ ডাকনামে পরিচিত ব্রাইটন ওয়াতাম্বা

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯৯৭-৯৮ মৌসুম থেকে ২০০১-০২ মৌসুম পর্যন্ত ব্রাইটন ওয়াতাম্বা’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ঘরোয়া ক্রিকেটে ম্যাশোনাল্যান্ড ও ম্যাশোনাল্যান্ড এ দলের পক্ষে খেলতেন।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ছয়টিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন ব্রাইটন ওয়াতাম্বা। ১৯ এপ্রিল, ২০০১ তারিখে বুলাওয়েতে সফরকারী বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ২৮ মার্চ, ২০০২ তারিখে দিল্লিতে স্বাগতিক ভারত দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

ডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার ব্রাইটন ওয়াতাম্বা এপ্রিল, ২০০১ সাল থেকে মার্চ, ২০০২ সাল পর্যন্ত জিম্বাবুয়ের পক্ষে ছয়টি টেস্টে অংশ নিয়েছেন। এ পর্যায়ে তিনি ১৪ উইকেট দখল করেন।

২০০১ সালে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ফাস্ট বোলার হিসেবে ব্রাইটন ওয়াতাম্বা’র উত্থান ঘটে। অপরিপক্কতা আগ্রাসন ও প্রতিশ্রুতিশীলতায় পূর্ণ ছিল তার খেলোয়াড়ী জীবন। অংশগ্রহণকৃত ছয় টেস্টে নিজেকে মেলে ধরতে সচেষ্ট হন ও জিম্বাবুয়ের উদীয়মান তারকা খেলোয়াড়দের অন্যতম ছিলেন। কিন্তু, মাঠের বাইরে কর্তৃপক্ষের সাথে মতবিরোধ ঘটে। বোর্ডের ক্রমবর্ধমান রাজনীতিকরণের বিষয়ে আপত্তি জানান। ফলশ্রুতিতে, তাকে চুক্তিতে নেয়া হয়নি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসন[সম্পাদনা]

জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট ইউনিয়নের সাথে খেলোয়াড়দের চুক্তির বিষয়ে মতানৈক্য ঘটায় ২০০২ সালের শরৎকালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসিত হন।[২][৩] মিয়ামি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রীধারী হন। ফ্লোরিডায় ক্রিকেট খেলা চালিয়ে যেতে থাকেন। চার বছরের অবস্থানকালীন শর্ত পূরণের পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ক্রিকেট দলে যোগদানের চেষ্টা চালান।

এরপর, ২০০৯ সালে বেলজিয়ামে চলে যান। সেখানে ব্রাসেলসভিত্তিক জনসন এন্ড জনসনে পূর্ণাঙ্গকালীন চাকুরীতে নিযুক্তি লাভ করেন।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Brighton Watambwa - a biography"ESPNcricinfo। ২৫ এপ্রিল ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৩ 
  2. "Zimbabwe players emigrate to USA"ESPNcricinfo। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১৩ 
  3. "The speed merchant Zimbabwe lost"ESPNcricinfo। ২০ সেপ্টেম্বর ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৩ 
  4. Muchinjo, Enock (২২ এপ্রিল ২০১৪)। "Meet the cricket captain of... eeh... Belgium!"Daily News। Harare। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুন ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]