ব্যাংক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্ট শহরে ডয়চে-ব্যাংক

ব্যাংক (অপর বানান: ব্যাঙ্ক) হল এক ধরণের আর্থিক প্রতিষ্ঠান যা সাধারণ মানুষের সঞ্চয় সংগ্রহ করে পুঁজি গড়ে তোলে এবং সেই পুঁজি উদ্যোক্তাদের ধার দিয়ে বিনিয়োগে সাহায্য করে। এছাড়া আন্তর্জাতিক লেন-দেনের ক্ষেত্রে ব্যাংক দায়িত্ব পালন করে থাকে। আধুনিক পুজিঁবাদী অর্থনিতক ব্যবস্থায় ব্যাংক একটি দেশের প্রধান অর্থনৈতিক চালিকা শক্তি। দেশ-বিদেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডকে সচল ও কার্যকর রাখতে এর ভূমিকা অপরিসীম। ব্যক্তি কিংবা রাষ্ট্রীয় সঞ্চয়, লেন-দেন ইত্যাদির গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসেবে কাজ করে থাকে এ প্রতিষ্ঠানটি। ব্যাংক ব্যক্তি কর্তৃক প্রদেয় সঞ্চিত অর্থ জমা রাখে এবং ঐ অর্থ ব্যক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠানে ঋণ গ্রহণ করে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে। নির্দিষ্ট সময় বা মেয়াদান্তে গ্রাহকের জমাকৃত অর্থের উপর সুদ বা মুনাফা প্রদান করে।

প্রাচীনতম ব্যাংক[সম্পাদনা]

পৃথিবীর প্রাচীনতম ব্যাংক হিসেবে মন্টে ডেই পাসচি ডি সিয়েনা চিহ্নিত হয়ে আছে। এর সদর দফতর ইতালীর সিয়েনায়। ১৪৭২ সালে প্রতিষ্ঠিত ব্যাংকটি এখনও আর্থিক লেনদেন পরিচালনা করে আসছে।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আধুনিক যুগের চিন্তা-চেতনা অনুযায়ী ধারণা করা হয় যে, ব্যাংকিং পদ্ধতির উন্মেষ ঘটে মধ্যযুগ এবং রেনেসাঁর শুরুতে। ইটালীর উত্তরাঞ্চলের ধনী শহর বিশেষ করে ফ্লোরেন্স, ভেনিস এবং জেনোয়ায় ব্যাংকিং প্রথা শুরু হয়। বর্দি এবং পেরুজি পরিবার চতুর্দশ শতকে ফ্লোরেন্সের ব্যাংকিং জগতে একচ্ছত্র প্রাধান্য বিস্তার করেছিল। তারা ইউরোপের বিভিন্ন অংশে ব্যাংকের শাখা প্রতিষ্ঠা করেছিল।[২] এছাড়াও, অধিকাংশ জনপ্রিয় ইটালীয়ান ব্যাংকই ছিল মেডিসি ব্যাংকের নিয়ন্ত্রণে। ১৩৯৭ সালে গিওভেন্নী মেডিসি মেডিসি ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করেন।[৩] শুরুর দিকে পরিচিত রাষ্ট্রীয় সঞ্চয় ব্যাংক হিসেবে রয়েছে ব্যাংকো ডি স্যান জিওর্জিও (ব্যাংক অব সেন্ট জর্জ)। ব্যাংকটি ১৪০৭ সালে ইটালীর জেনোয়ায় প্রতিষ্ঠিত হয়।[৪]

শব্দের উৎপত্তি[সম্পাদনা]

মধ্যযুগের ইংরেজী হিসেবে ব্যাংক (bank) শব্দটি বিভিন্ন ভাষা থেকে উৎপত্তি হয়েছে বলে ধারণা করা হয়। তন্মধ্যে - মধ্যযুগে ফরাসী শব্দ ব্যাংক, প্রাচীন ইটালীয়ান ভাষার ব্যাংকা, প্রাচীন উচ্চস্তরের জার্মান শব্দ ব্যাংক, ব্যাংক বেঞ্চ, কাউন্টার অন্যতম। রেনেসাঁ যুগে ফ্লোরেন্সের ব্যাংকারগণ বেঞ্চকে ডেস্ক বা লেনদেনের জায়গা হিসেবে ব্যবহৃত করতো। বেঞ্চের উপরিভাগ সবুজ টেবিলক্লথ দিয়ে ঢাকা থাকতো।[৫]

প্রকারভেদ[সম্পাদনা]

পৃথিবীতে বিভিন্ন ধরণের ব্যাংক দেখা যায়। এদের মধ্যে উল্ল্যেখযোগ্য হল: বানিজ্যিক ব্যাংক, বিনিয়োগ ব্যাংক, মার্চেন্ট ব্যাংক, উন্নয়ন ব্যাংক, বিশেষায়িত ব্যাংক, সমবায় ব্যংক প্রভৃতি।

ব্যাংকিং[সম্পাদনা]

ঝুঁকি ও মূলধন[সম্পাদনা]

অর্থনীতিতে ব্যাংক[সম্পাদনা]

নিয়ন্ত্রণ ও প্রবিধান[সম্পাদনা]

ব্যাংক শিল্পের চ্যালেঞ্জ[সম্পাদনা]

ব্যাংক অ্যাকাউন্টের জন্য অ্যাকাউন্টিং[সম্পাদনা]

ব্যাংকিং শিল্পের বিশ্বায়ন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Boland, Vincent (২০০৯-০৬-১২)। "Modern dilemma for world’s oldest bank"Financial Times। সংগৃহীত ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১০ 
  2. Hoggson, N. F. (1926) Banking Through the Ages, New York, Dodd, Mead & Company.
  3. Goldthwaite, R. A. (1995) Banks, Places and Entrepreneurs in Renaissance Florence, Aldershot, Hampshire, Great Britain, Variorum
  4. Macesich, George (৩০ জুন ২০০০)। "Central Banking: The Early Years: Other Early Banks"Issues in Money and BankingWestport, Connecticut: Praeger Publishers (Greenwood Publishing Group)। পৃ: ৪২। আইএসবিএন 978-0-275-96777-2ডিওআই:10.1336/0275967778। সংগৃহীত ২০০৯-০৩-১২। "The first state deposit bank was the Bank of St. George in Genoa, which was established in 1407." 
  5. de Albuquerque, Martim (১৮৫৫)। Notes and Queries। London: George Bell। পৃ: 431। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]