ব্যবহারকারী:Syed.Rakib.bd

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

== সৈয়দ রাকিব == থাম্ব|Rakib " নাম:~মো: মেহেদী হাসান (রাকিব)।
ডাক নাম:- সৈয়দ রাকিব
পিতার নাম:~ সৈয়দ জাকির হোসেন
মাতার নাম:- কাজল বেগম
জন্ম:- ২৮শে ফেব্রুয়ারি ১৯৯৮ইং
বাংলায়: ১৬ই ফাল্গুন ১৪০৪ বঙ্গাব্দ
আরবী: ২য় দিলকদ্ব ১৪১৮ হিজরী
ধর্ম: ইসলাম
গাত্রবর্ণ :- সুন্দর,তবে খুব বেশি আকর্শণীয় নয়।
জন্ম ঠিকানাঃ বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ থানার রঙ্গশ্রীতে নানা বাড়িতে।
রক্তের গ্রুপ:O+
প্রিয় রং:কালো
উচ্চতা :- পাঁচ ফুট নয় ইঞ্চি
প্রিয় মানুষ: হযরত মুহাম্মদ প্রিয় ফুল: বকুল, শিউলী, রক্তজবা,রজনীগন্ধা,গোলাপ প্রিয় ফল: চেরী,আম,আপেল, লিচু প্রিয় খাবার: বিরিয়ানী,চকলেট,আইসক্রীম,মিষ্টি, স্পাইছি চিকেন প্রিয় রং: কালোনীল প্রিয় ঋতু: বসন্ত,বর্ষা,শীত প্রিয় পাখি: টিয়া,মাছরাঙা,পানকৌড়ি, তোতা পতঙ্গ: প্রজাপতি,ঘাসফড়িং অনুষঙ্গ--ঘড়ি,মোবাইল ফোন প্রিয় ব্যান্ড :-শূন্যো,অর্থহীন (ব্যান্ড দল),মাইলস,মেঘদল,শিরোনামহীন, চিরকুট,পিটবুল,সিম্পল গান, আরও অনেক আছে ... প্রিয় কণ্ঠ শিল্পী : তৌসিফ(বাংলা),আতিফ আসলাম(হিন্দি),সেলিনা গোমেজ(ইংরেজী) প্রিয় খেলা :ক্রিকেট (বাংলাদেশ) ,ব্যাডমিন্টন,ফুটবল(ব্রাজিল) প্রিয় খেলোয়াড় : মাশরাফি বিন মর্তুজা(ক্রিকেট),নেইমার(ফুটবল) প্রিয় লেখক : জহির রায়হান ,সমরেশ মজুমদার,হুমায়ুন আহমেদ প্রিয় কবি :শামসুর রাহমান, কাজী নজরুল ইসলাম, জিবনানন্দ দাশ প্রিয় মুহূর্ত : প্রিয় মানুষটিকে নিয়ে তার হাত ধরে এক সাথে হাটা। মনের কথাগুলো ভাগাভাগি করা।তাছাড়া কারো মুখে হাসিটা যখন আমার জন্য আসে তখন নিজেকে খুব ভাগ্যবান মনে হয়। সখ : খুটি নাটি করে ভিন্ন কিছু করার চেষ্টা, আর এক কাপ কফি আর ল্যাপটপ নিয়ে সফটওয়্যার প্রোগ্রামিং করা। তাছাড়া লিখালিখি করার অন্যরকম একটা সখ আছে। প্রিয় মাস - ফেব্রুয়ারি এপ্রিল, জুন,নভেম্বর স্টাইল :- সবসময় নিজের মতই চলি, এই দিক থেকে অনুকরণ আমার দ্বারা হয়ে ওঠে না । যখন যেভাবে থাকি, যা পরে থাকি সেটাই আমার স্টাইল। ভালো দিনের স্মৃতি - সব দিন গুলোর ঠিক তারিখ মনে নেই, তবে ২২শে সেপ্টেম্বর এর কথা কখনওই ভুলা যাবেনা । এখন পর্যন্ত কষ্টের দিন - কষ্টই আমার জীবন তাই কষ্টের দিন নির্দিষ্ট করে বলাটা সম্ভব নয়।


স্থায়ি ঠিকানা:- গ্রাম  :রাজপাশা , ডাকঘর  : চৌদ্দবুড়িয়া , ইউনিয়ন : সিদ্ধকাঠী ইউনিয়ন , উপজেলা : নলছিটি, জেলা : ঝালকাঠি, দেশ :বাংলাদেশ
বর্তমান ঠিকানা:-গ্রাম  :রাজপাশা , ডাকঘর  : চৌদ্দবুড়িয়া , ইউনিয়ন : সিদ্ধকাঠী ইউনিয়ন , উপজেলা : নলছিটি, জেলা : ঝালকাঠি, দেশ :বাংলাদেশ <br /[১]

থাম্ব|সুন্দরবনে আমি

��ব্যাক্তিগত জীবনঃ �� আমি ছোটবেলা থেকে একটু অন্যরকম প্রাকৃতির। আট,দশটা ছেলের মত আমার জীবন নয়।আমি নিরব থাকতে বেশি পছন্দ করি।আমি সবকিছু নিয়ে মনে হয় একটু বেশি ভাবি।তবে হ্যা আমার ভাবনাটা সবসময় পজিটিভ। আমি মানুষকে খুব অল্প হলেও সাহায্য করতে ভালোবাসি সেটা আমার জন্য কষ্টের কারন হলেও।কারো মুখে হাসি ফোটাতে পারলে মনে হয় আমার জন্মটা সার্থক। নিকট বন্ধু-বান্ধবদের সাথে আমার মনের কথা খুলে বলতে কোনো সমস্যা মনে করিনা।খুব সহজে মানুষকে আপন ভেবে ফেলি যার জন্য মাঝে মাঝে অপমানিত হতে হয়।আমি কারো নোংরা কথার উত্তর নোংরা ভাষায় দিতে পছন্দ করিনা। আমি কারো সাথে খারাপ ব্যবহার মোটেই পছন্দ করিনা। আমি সবসময় হাসি মুখে কথা বলতে পছন্দ করি। আমি যেটা করিনা কেনো প্রতিটা কাজ করার পূর্বে অন্তত ২বার ভেবে দেখি কাজটা করা কতটা ঠিক আমার জন্য। যদি নিজ থেকে মনে হয় কাজটা আমার জন্য ঠিক হবে তবেই করি। আমি কারো বাধানিষেধ পছন্দ করিনা কারণ আমি বিশ্বাস করি যদি একটা মানুষ নিজ থেকে ভালো পথ অনুসরণ না করে তাকে শত চেষ্টা করেও ভালো পথে নিয়ে আসা সম্ভাব নয়।আমি যেটা ভালো মনে করি সবসময় তাই করি। লিখালিখির প্রতি আমার অন্যরকম একটা সখ আছে। আমার ভালোলাগা,খারাপলাগা, স্মৃতিময় মুহূর্ত ডায়েরীর পাতায় নোট করা ছোটবেলার অভ্যাস। . থাম্ব|সুন্দরবনে আমি . 'জীবন নিয়ে স্বপ্ন:'গাঢ় লেখা আমি সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের একটা সন্তান। প্রতিদিন আমাকে নিজের সাথে যুদ্ধ করে মনোবল ধরে রাখতে। তারপরেও মাঝে মাঝে খুব একা হয়ে পরি, মনে হয় এই পৃথিবীর আলো বাতাস আমার জন্য নয়। আমার মত সাধারণ একটা ছেলের স্বপ্ন দেখাও পাপ। তবে হ্যা! এটা সত্যি আমি এক সময় নিজেকে নিয়ে অনেক বড় বড় স্বপ্ন দেখতাম। স্বপ্ন বাস্তবায়নের সর্বাত্মক চেষ্টা করতাম। কিন্তু আমার স্বপ্ন ভাঙার শুরুটা হয় তখন, যখন এস, এস,সি পরিক্ষার রেজাল্ট পাবলিশ হয়। আমার ইচ্ছা ছিলো পলিটেকনিক্যালে ভর্তি হবো। আমার স্বপ্নকে বাস্তবে রুপ দেওয়ার জন্য সরকারী পলিটেকনিক্যাল এ ভর্তি পরিক্ষা দেই। পটুয়াখালী পলিটেকনিক্যাল এ কম্পিউটার ডিপার্টমেন্টে চান্সও হয়। দু:খের বিষয় চান্স পাওয়ার পরেও কোনো একটা পারিবারিক কারনে ভর্তি হওয়া হয়না। তারপরে বাধ্য হয়ে আমাকে পড়ালেখা করতে হয় জেনারেলে। যেটা আমি কখনো প্রত্যাশা করিনি। একটা সময় ভাগ্যকে মেনে নিয়ে সামনে একটু একটু করে এগিয়ে ছিলাম সময়ের সাথে। কিন্তু সেটাও খুব ভালো হলনা। ব্যর্থতার কষ্ট আমার জীবনটাকে প্রতিনিয়ত করে তুলছিলো বিষক্তময়। স্বপ্ন ভাঙার কষ্ট একটা মানুষের জীবনটাকে এভাবে নষ্ট করে দিতে পারে তা কখনো কল্পনাও করিনি। এটা সত্যি স্বপ্ন ভাঙার কষ্টের জন্য একটা সময় পৃথিবী ছেড়ে চলে যাওয়ার চেষ্ট করছিলাম। যার প্রমাণ আমার লিখা ডায়েরীর পাতা এখনো বহন করে। মাঝেমাঝে খুব ভাবনায় বিভোর হয়ে পরি,তখন নিজের কাছে প্রশ্ন জাগে জীবনটা কেনো এতটা বৈচিত্র্যময়? ছোটবেলা থেকে এমন কোনো কাজ করিনি যেটা আমার পরিবার, সমাজ, দেশের জন্য ক্ষতিকর। এমনকি আমি কখনো মিনিমাম একটা সিগারেট পাণ করে দেখেনি তার স্বাদ। প্রতিটা ক্ষেত্রে ছিলো আমার সততার প্রতি একটা আকর্শন। যেটা এখনো আছে। সত্যি বলতে একটা সন্তান কেমন হবে? তা অনেকাংশ নির্ভর করে তার পরিবারের সাপোর্ট এর উপর। হ্যা! আমি এটা অস্বীকার করবনা যে,আমি পরিবারের সাপোর্ট পেয়েছি। কিন্তু যতটা সাপোর্ট পেয়েছি তা আমার স্বপ্ন বাস্তবায়নের তুলনায় ছিলো খুবই সামান্য। আমার পরিবার তাদের নিজেদের মতামত প্রাধান্য না দিয়ে যদি আমার কথাগুলো একবার বোঝার চেষ্টা করতো আমি কোনটা চাই তাহলো হয়তো আমার জীবনটা আরো সুন্দর হতে পারতো। উচ্চমাধ্যমিক জীবন শেষ এখন অনার্স -এ ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টে পড়ছি। জানিনা কতদূর আমার পক্ষে পাড়ি দেওয়া সম্ভাব হবে। তবে ব্যর্থতা জীবনের একটা অংশ হিসেবে ধরে নিয়ে একটু একটু করে সামনের দিকে চলছি। এমন একটা মানুষ হতে চাই, যাকে যত নির্মম পরিস্থিতির মাঝে ফেলে দেওয়া হোকনা কেনো সেখান থেকে যেনো ক্যাম ব্যাক করতে পারি। স্বপ্ন বা লক্ষ্য বলতে এখন আমি বুঝি মানুষের মত মানুষ হওয়া। সততাকে নিজের ভিতর অটুট রেখে মানুষের কল্যাণে নিয়োজিত করে সকল অন্যায় কাজ থেকে নিজেকে দূরে রেখে মানব জীবন পাড়ি দিতে পারাটাই এখন আমার লক্ষ্য বলতে বুঝি।


থাম্ব|syed rakib

যোগাযোগ[সম্পাদনা]

যোগাযোগের জন্য ব্যবহারকারী আলাপ:Syed.Rakib.bd|আমার আলাপ পাতা ব্যবহার করতে পারেন। অথবা যুক্ত হতে পারেন সামাজিক যোগাযোগের সাইট ও ব্লগসাইট বা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। অথবা আমাকে সরাসরি ইমেইল করতে পারেন। এখানে উল্লেখিত যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর যেকোনো মাধ্যমে আমার সাথে যোগাযোগ করতে নিচে ফলো করুন।

চিত্র:Gmail Icon.png|22px|gmail মেইল ঠিকানা - syedrakib.bd@gmail.com

চিত্র:Gmail Icon.png|22px|mail মেইল ঠিকানা - syedrakib@mail.com

চিত্র:Google plus.svg|22px|গুগল প্লাস প্রোফাইল গুগল প্লাস প্রোফাইল - https://plus.google.com/+SyedRakib

চিত্র:Facebook Logo Mini.svg|22px|ফেসবুক প্রোফাইল ফেসবুক প্রোফাইল - www.facebook.com/Syed.Rakib2

চিত্র:Twitter Logo Mini.svg|22px|টুইটার প্রোফাইল টুইটার প্রোফাইল - www.twitter.com/Syed_Rakib_

চিত্র:Blogger icon.svg|22px|Logo Blogger ওয়েবসাইট সাইট - www.syedrakib.wapka.me


থাম্ব|ইলিয়াস ভাই এর সাথে আমি

 [[

ভালো লাগে যা কিছু[সম্পাদনা]

থাম্ব|syed rakib ¤.চাঁদ
¤.জোছনা
¤.পূর্ণিমা
¤.সবুজ প্রকৃতি
¤.খোলার মাঠ
¤.নির্মল বাতাস
¤.নদী
¤.ডিঙি নৌকো
¤.কুয়াশাভোর
¤সূর্যোদয়.
¤.শিশিরবিন্দু
¤.বৃষ্টির শব্দ
¤.সমুদ্রের গর্জন
¤.পাখির ডাক
¤.ঘুড়ি
¤.সাদা মেঘ
¤.নীল আকাশ
¤.পানকৌড়ি
¤.বালিহাঁস
¤.মাছরাঙা
¤.জল ছবি
¤.গোধূলী
¤.কাশ বন
¤.রংধনু
¤.মেঠোপথ
¤.আমার 'আমি' আর 'ও'

থাম্ব|সুন্দরবনে আমি

শিক্ষা[সম্পাদনা]

:
পরিক্ষার নাম বোর্ড পাশের সাল
এস এস সি বরিশাল ২০১৪
এইচ এস সি বরিশাল ২০১৬



পরিবার সদস্য [সম্পাদনা]

:

ব্যাক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

♦♦ব্যাক্তিগত জীবনঃ ♦♦আমি ছোটবেলা থেকে একটু অন্যরকম প্রাকৃতির। আট,দশটা ছেলের মত আমার জীবন নয়।আমি নিরব থাকতে বেশি পছন্দ করি।আমি সবকিছু নিয়ে মনে হয় একটু বেশি ভাবি।তবে হ্যা আমার ভাবনাটা সবসময় পজিটিভ। আমি মানুষকে খুব অল্প হলেও সাহায্য করতে ভালোবাসি সেটা আমার জন্য কষ্টের কারন হলেও।কারো মুখে হাসি ফোটাতে পারলে মনে হয় আমার জন্মটা সার্থক। নিকট বন্ধু-বান্ধবদের সাথে আমার মনের কথা খুলে বলতে কোনো সমস্যা মনে করিনা।খুব সহজে মানুষকে আপন ভেবে ফেলি যার জন্য মাঝে মাঝে অপমানিত হতে হয়।আমি কারো নোংরা কথার উত্তর নোংরা ভাষায় দিতে পছন্দ করিনা। আমি কারো সাথে খারাপ ব্যবহার মোটেই পছন্দ করিনা।

আমি সবসময় হাসি মুখে কথা বলতে পছন্দ করি।

আমি যেটা করিনা কেনো প্রতিটা কাজ করার পূর্বে অন্তত ২বার ভেবে দেখি কাজটা করা কতটা ঠিক আমার জন্য। যদি নিজ থেকে মনে হয় কাজটা আমার জন্য ঠিক হবে তবেই করি। আমি কারো বাধানিষেধ পছন্দ করিনা কারণ আমি বিশ্বাস করি যদি একটা মানুষ নিজ থেকে ভালো পথ অনুসরণ না করে তাকে শত চেষ্টা করেও ভালো পথে নিয়ে আসা সম্ভাব নয়।আমি যেটা ভালো মনে করি সবসময় তাই করি। লিখালিখির প্রতি আমার অন্যরকম একটা সখ আছে। আমার ভালোলাগা,খারাপলাগা, স্মৃতিময় মুহূর্ত ডায়েরীর পাতায় নোট করা ছোটবেলার অভ্যাস। . থাম্ব|শেখ রাসেল শিশু পার্কে আমি . ♦♦♦জীবন নিয়ে স্বপ্ন: ♦♦♦আমি সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের একটা সন্তান। প্রতিদিন আমাকে নিজের সাথে যুদ্ধ করে মনোবল ধরে রাখতে। তারপরেও মাঝে মাঝে খুব একা হয়ে পরি, মনে হয় এই পৃথিবীর আলো বাতাস আমার জন্য নয়। আমার মত সাধারণ একটা ছেলের স্বপ্ন দেখাও পাপ। তবে হ্যা! এটা সত্যি আমি এক সময় নিজেকে নিয়ে অনেক বড় বড় স্বপ্ন দেখতাম। স্বপ্ন বাস্তবায়নের সর্বাত্মক চেষ্টা করতাম। কিন্তু আমার স্বপ্ন ভাঙার শুরুটা হয় তখন, যখন এস, এস,সি পরিক্ষার রেজাল্ট পাবলিশ হয়। আমার ইচ্ছা ছিলো পলিটেকনিক্যালে ভর্তি হবো। আমার স্বপ্নকে বাস্তবে রুপ দেওয়ার জন্য সরকারী পলিটেকনিক্যাল এ ভর্তি পরিক্ষা দেই। পটুয়াখালী পলিটেকনিক্যাল এ কম্পিউটার ডিপার্টমেন্টে চান্সও হয়। দু:খের বিষয় চান্স পাওয়ার পরেও কোনো একটা পারিবারিক কারনে ভর্তি হওয়া হয়না। তারপরে বাধ্য হয়ে আমাকে পড়ালেখা করতে হয় জেনারেলে। যেটা আমি কখনো প্রত্যাশা করিনি। একটা সময় ভাগ্যকে মেনে নিয়ে সামনে একটু একটু করে এগিয়ে ছিলাম সময়ের সাথে। কিন্তু সেটাও খুব ভালো হলনা। ব্যর্থতার কষ্ট আমার জীবনটাকে প্রতিনিয়ত করে তুলছিলো বিষক্তময়। স্বপ্ন ভাঙার কষ্ট একটা মানুষের জীবনটাকে এভাবে নষ্ট করে দিতে পারে তা কখনো কল্পনাও করিনি। এটা সত্যি স্বপ্ন ভাঙার কষ্টের জন্য একটা সময় পৃথিবী ছেড়ে চলে যাওয়ার চেষ্ট করছিলাম। যার প্রমাণ আমার লিখা ডায়েরীর পাতা এখনো বহন করে। মাঝেমাঝে খুব ভাবনায় বিভোর হয়ে পরি,তখন নিজের কাছে প্রশ্ন জাগে জীবনটা কেনো এতটা বৈচিত্র্যময়? ছোটবেলা থেকে এমন কোনো কাজ করিনি যেটা আমার পরিবার, সমাজ, দেশের জন্য ক্ষতিকর। এমনকি আমি কখনো মিনিমাম একটা সিগারেট পাণ করে দেখেনি তার স্বাদ। প্রতিটা ক্ষেত্রে ছিলো আমার সততার প্রতি একটা আকর্শন। যেটা এখনো আছে। সত্যি বলতে একটা সন্তান কেমন হবে? তা অনেকাংশ নির্ভর করে তার পরিবারের সাপোর্ট এর উপর। হ্যা! আমি এটা অস্বীকার করবনা যে,আমি পরিবারের সাপোর্ট পেয়েছি। কিন্তু যতটা সাপোর্ট পেয়েছি তা আমার স্বপ্ন বাস্তবায়নের তুলনায় ছিলো খুবই সামান্য। আমার পরিবার তাদের নিজেদের মতামত প্রাধান্য না দিয়ে যদি আমার কথাগুলো একবার বোঝার চেষ্টা করতো আমি কোনটা চাই তাহলো হয়তো আমার জীবনটা আরো সুন্দর হতে পারতো। উচ্চমাধ্যমিক জীবন শেষ এখন অনার্স -এ ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টে পড়ছি। জানিনা কতদূর আমার পক্ষে পাড়ি দেওয়া সম্ভাব হবে। তবে ব্যর্থতা জীবনের একটা অংশ হিসেবে ধরে নিয়ে একটু একটু করে সামনের দিকে চলছি। এমন একটা মানুষ হতে চাই, যাকে যত নির্মম পরিস্থিতির মাঝে ফেলে দেওয়া হোকনা কেনো সেখান থেকে যেনো ক্যাম ব্যাক করতে পারি। স্বপ্ন বা লক্ষ্য বলতে এখন আমি বুঝি মানুষের মত মানুষ হওয়া। সততাকে নিজের ভিতর অটুট রেখে মানুষের কল্যাণে নিয়োজিত করে সকল অন্যায় কাজ থেকে নিজেকে দূরে রেখে মানব জীবন পাড়ি দিতে পারাটাই এখন আমার লক্ষ্য বলতে বুঝি। .

থাম্ব|সুন্দরবনে হরিনের সাথে আমি

ভালোলাগা[সম্পাদনা]

-আমি কখনো কারো প্রেমে পরবো আগে ভাবিনি। তখন ছিলো একটি বিয়ের রাত সবাই আনন্দ করছে তখন আমার চোঁখের সামনে একটি মেয়েকে দেখতে পাই।মেয়েটিকে আমার অনেক ভালোলাগে । তখন থেকে আমার ভিতর শুধু ঐ মেয়েটির ছবিটা বাসছে।আমি কথা বলার জন্য মেয়েটিকে ডাকদিলাম মেয়েটি আসলো। আমি নাম জিগ্গেস করলাম।মেয়েটি নাম বললো তমা।তমার সাথে সেদিন সারারাত কথাহয় আমার(আর একদিন বলবো)


ভালোবাসাকে দূরে রাখাই ভাল ! কারন একদিন না একদিন ভালোবাসা আমার কাছেই আসবে ... 'আমার আমি । আমি আর কারো না শুধু আমার'

যেখানে স্বর্গ ভাসে... তোমার আমার আকাশ সেখানে অন্য রঙে, আঁকা আয়নায় মৃত জলছবি... সে ছবিতে, অন্ধ কবি, আমি এক হাতড়ে ফিরি আলোর সিঁড়ি..


মন থেকে ঘৃণা করি যার মাঝে সামান্য হলেও হিংসা বা অহংকার আছে তাদের কে ।

শাহরুখ খান,সালমান শাহকে অনেক পছন্দ করি । অনেকেই করে কিন্তু আমি মনে করি আমি একটু বেশি করি ।

ღღ আমার নিজের একটা রাজ্য আছে ।

সে রাজ্যেই আমার বিচরন । এই রাজ্য যদি কেউ নিতে চায় তাহলে...... কিন্তু শুধু একজনই এই রাজ্যে প্রবেশ করতে পারবে ...। তার অপেক্ষায়ই রয়েছি

ღღএকটু বেশি ভাবি..... স্বপ্ন দেখতে ভালবাসি আর ভালবাসিগান শুনতে.....

পড়াশোনা যা হয়েছে হয়তো বা অনেক, বাকিটা চেষ্টা চলছে.... ভালবাসি নিজেকে,ভালবাসি বই পড়তে.... এই আমি এই আমার জগত

ღღ কিছু পেয়েছিলাম কিছু হারিয়েছিলাম এই ভেবে এক দিন খুব কেদেছিলাম... কিন্তু আজ চুপ করে আছি শুধু এই ভেবে যে... যা হারিয়েছিলাম সত্তি কি তা কনো দিন পেয়েছিলাম...?

ღღ কোন কোন সময় কারো সাথে কথা বলতে ইচ্ছা করে না । নিজের মত করে আর একা থাকতেই বেশী ভালো লাগে ।

ღღ নিজেকে বুঝি না , বোঝার চেষ্টাও করি না কোন সময় ।

ღღ বন্ধুত্ব কে সন্মান করি । কিন্তু বন্ধুত্ব রক্ষা করতে পারি না ।

ღღ কাউ কে কষ্ট দিতে ভালো লাগে না , কিন্তু মনে হয় নিজের অজান্তেই কষ্ট দিয়ে দেই ।

ღღ খুব সাধারণ মানুষ আমি তাই অসাধারণ মানুষ গুলো থেকে একটু দূরে থাকি । আর আপনি আমার চোখে একজন অসাধারণ মানুষ ।

ღღ হয়তো বা অনেক কিছুই আমার মাঝে নেই , তবুও যা আছে তাতেই আমি খুশী , তাই আমাকে আমার মত থাকতে দেন । আমি কোন দিনও অন্য কারো মত হতে চাই না ।

ღღ হাজারো কোলাহল থেকে নিজেকে লুকিয়ে রাখতে ভালোবাসি তাই অন্ধকার আমার প্রিয় , চাই না কেউ আলো হাতে আসুক আমার জীবনে ।

ღღ আধুনিক এই সমাজে মনে হয় আমি বেমানান তাই অনেক দূরে থাকি এই আধুনিকতা থেকে ।

ღღ আমি একটু আজব ধরণের মানুষ তাই রাত জেগে জেগে মুভি দেখার একটা আজব শখ আছে ।

ღღ সবাই কে অনেক বিশ্বাস করি । জানি না কে কতটুকু বিশ্বাসের মর্যাদা দিতে পারবে । আর আমি চাই সবার বিশ্বাসের মর্যাদাটা দিতে ।

ღღকারো দুঃখতে অনেক দুঃখ পাই কিন্তু আমার দুঃখটা কেউ বুঝতে পারে না আসলে কষ্টটা কাউকে বুঝতে দেই না ।

ღღ সোঁজা সরল মানুষ, কাউকে ঠকাতে পারলাম না।কিন্তু সবাই আমাকে ঠকায়।

ღღ আমি খুব সাধারন একজন মানুষ ।খুব সাধারন আমার জীবন যাপন ।


ღღ ভালবাসি সিনেমা দেখতে । মন খারাপ থাকলে ভালো লাগার গান শুনি । স্বপ্ন দেখতে খুব ভালবাসি । অন্যের কষ্টে খুব কষ্ট পাই । আশা আছে অনেক বড় ইন্জিনিয়ার হওয়ার । আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন


ღღ আমার পছন্দের গান হল তাহসান এর বড় অবেলায় পেলাম তোমায় কেন এখনি যাবে হারিয়ে কি করে বলো রবো একেলা ফিরে দেখ আছি দাড়িয়ে কেন হঠাত তুমি এলে কেন নয় তবে পুরোটা জুরে আজ পেয়েও হারানো যায় না বলা বাঁচার মানে টা রয়ে যাবে দূরে এবং আবেগি এ মনে তোমাকে আজ চেয়েছি দু চোখ মেলে এখানে যা ছিলো অজানা বলো নি কেনো প্রান খুলে মেঘের পরে আলোর ভিরে তুমি প্রথম চেয়েছিলে বুঝিনি আমি তোমাকে দেখে রেখেছ যে আপন করে।


    • যদি কখনও মনে হয় আমার

প্রয়োজন ফুরিয়ে গেছে তোমার কাছে,

আমাকে জানিয়ে দিও, আমি নিরবে তোমার জীবন থেকে সরে যাবো। দ্বিতীয়বার কোন প্রশ্ন করবোনা, কেন জানো ? কারণ আমি তোমাকে কথা দিয়েছিলাম, তোমার সব কথা রাখব আমার যতই কষ্ট হোক না কেন।...

    • কিছু কিছু মানুষের

সাথে হঠাৎ করেই পরিচয় হয়, খুব ভালো সম্পর্ক গড়ে ওঠে । কিন্তু , অবাক লাগে মানুষ গুলো যতো তাড়া - তাড়ি জীবনে আসে, ঠিক ততোটা তাড়া - তাড়ি চলে যায় । এরা কোনো কষ্ট দেয় না, শুধু কিছু স্মৃতি করে রাখার মুহুর্ত দিয়ে যায় থাম্ব|কুয়াকাটাতে আমি জানি না ।


  • Live the life you love, and love the life you live!


  • I love you, not only for what you are,

But for what I am when I am with you. - Roy Croft

  • True friends are like diamonds,

precious and rare. False friends are like leaves, found everywhere...

  • To keep a secret is important, just

because. A real friendship stays just because. So thank you for everything just because. I don't need excuses to thank you all you did for me.

  • Because of your smile, you make life

more beautiful. ~Thich Nhat Hanh

  • Dear whoever is reading this: you are

beautiful and someone out there is crazy about you, so SMILE cause life is too short you be unhappy.

থাম্ব|ইমরানের সাথে আমি ღღ যদি দৃশ্যমান মানুষকেই ভালবাসতে না পারি, তবে সেই অদৃশ্য সৃষ্টিকর্তাকে ভালবাসবো কি করে - মাদার তেরেসা

ღღ সেই তোমার প্রকৃত বন্ধু যে তোমাকে অর্থ দিয়ে বিদ্যা দিয়ে সাহায্য করবে কিন্তু তার বাক্য এবং কর্ম দিয়ে তোমার ক্ষতি করবে না- কুহেলিকা

ღღ তোমার বন্ধু হচ্ছে সে-ই যে তোমার সব খারাপ দিক জানে, তবুও তোমাকে পছন্দ করে। -অ্যালবাট হুবার্ড

ღღ আমি বলবো না যে আমি ১০০০ হাজার বার অসফল হয়েছি, আমি বলবো যে আমি ১০০০ হাজার পন্হা বের করেছি যার ফলাফল হতে পারে অসফলতা- টমাস [[আলভা এডিসন ]]

ღღ দেশটা কারও বাবারও নয় কারও স্বামীরও নয়, এ দেশ আমার আপনার,কোটি মানুষের। - দেশকে ভালবাসুন - Syed.Rakib.bd

ღღ মাঝে মাঝে কিছু আবিষ্কার করার বৃথা চেষ্টা করি । <bt />

ღღ ছবি তোলায় সখ আছে।

  • গিটার বাজানোর চরম সখ আছে।

থাম্ব|কুয়াকাটাতে আমি

যা কিছু অপ্রিয়[সম্পাদনা]

ফুল : গাঁদা

ফল : [[কাঁঠাল ]]
✔অপ্রিয় প্রানী: মানুষ , তেলাপোকা ✘অপ্রিয় সংগীত : যাবতীয় লুলু সংগীতবইঃ রসায়নগনিত বিষয়ক সকল পাঠ্যই অপ্রিয়।

অপছন্দ[সম্পাদনা]

থাম্ব|মিঞ্জাগঞ্জ আমি ¤.মিথ্যা
¤.পরনিন্দা
¤.কালো
¤.ঝাল
¤.বাচালতা
¤.কটুকথা
¤.মুখোশধারী মানুষ
¤.লোভ
¤.স্বার্থপরতা
¤.অবক্ষয়
¤.হিংসা
¤.পরাজয়
¤.নির্মমতা
¤.করুণা


বিবিধ[সম্পাদনা]

থাম্ব|আমি এবং আমার সাথে আমার বন্ধুরা সরমহলে মেলায় ২০১১

✔••• যে ৩ টা জিনিস ছাড়া দিন চলে না।ইন্টারনেট,ঘড়ি,মোবাইল। 

✔••• সব থেকে বেশি দেখা স্বপ্ন ঃবিছানা থেকে পড়ে গেছি। সুপার মেন হয়ে উরছি।

✔••• সব থেকে বেশি মিস করি ঃ স্বপ্নগুলোকে, ওকে,আর মাকে।

✔••• নিজেকে কখনো এমন ভাবি না,কিন্তু আসলেই এমন : আমি নিশাচর ।

✔••• আমি কেন বেঁচে আছি ??? প্রকৃতির প্রয়োজনে, মানুষের জন্যে।

✔••• একা রাস্তায় হাঁটতে ভালো লাগে।এক দিন ও মিস হয়না প্রতিদিন এটা করি। 

জীবন কথা[সম্পাদনা]


থাম্ব|আমি ঝালকাঠিতে।

☀☀মাঝে মাঝে একা একা কথা বলি। 
☀☀প্রতিরাতে স্বপ্ন দেখা এবং স্বপ্নে একজন প্রিয় মানুষকে দেখা।
☀☀জটিল সব চিন্তা করি যার সমাধান স্বয়ং আইনষ্টাইনও দিতে পারবেনা।
☀☀কবিতা ভালোবাসি।
☀☀মা এর পারফেক্ট ছেলে হয়ে উঠা এজীবনে হলোনা।
☀☀যুদ্ধে যাওয়ার ইচ্ছে আছে কিন্তু কবে যে আরেকটা যুদ্ধ লাগব।
☀☀তেঁতুল দেখলে জীভে জল আসে কিন্তু একটুতেই বিষে পরিনত হয় কেন,বুঝিনা।
☀☀তোকে তুই বলতে,তোমাকে তুমি বলতে আর আপনাকে আপনি বলতেই ভালো লাগে।
☀☀অন্ধকারে(চোখ বুজে) দৌড়ানোর প্র্যাকটিস করি।

☀☀মানুষকে বোঝার সর্বোচ্চ চেষ্টা করি।

☀☀ধানক্ষেত ভালো লাগে কিন্তু কচুক্ষেত ভালোলেগেনা।

☀☀কেউ ভুল বুঝলে মন প্রচন্ড খারাপ হয়ে যায়।

☀☀সকালে ঘুম থেকে উঠতে মন চায়না।

☀☀হতে চেয়েছিলাম অনেক কিছু কিন্তু ...কি আর বলবো ? চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

☀☀মা'কে আমি যতোটা ভালোবাসি, মা বাসে আরও বেশি।

থাম্ব|আমি এবং তুয়াস

ভালোলাগা বাক্য[সম্পাদনা]


  • জীবনের টানে জীবন মিলেছে

জীবন কেটেছে বেশ , শূন্য দিয়ে শুরু যে জীবনের শূন্যতেই এসে তা শেষ । বাকি যদি কিছু থেকে থাকে অবশেষ জীবনের আশা কখনও হবে না নিঃশেষ ব্যাকুল হলে মন সেই আভিলাষে মিলবে মুক্তি শুধু প্রভুরই বিশ্বাসে।


  • আমি আর বন্দী নই শূন্যের গোলক

ধাঁধায় । আমার স্বপ্ন যাত্রা চলছে চলবে- অবারিত শস্য ভূমির মাঝে শান্ত স্নিগ্ধ প্রভাতে ফাঁকা পথের সুদূর ঊর্ধ্বগমনে , ধীরে ধীরে বিনম্র পদক্ষেপে, কম্পিত হৃদ- স্পন্দন ,ভালবাসার আলিঙ্গনে শিহরিত দেহে , সশব্দ অস্রুভেজা চোখে আমার পথচলা । দিগন্তে ভেসে থাকা কিছু ছবির রংধনু আর আমার পথ চলা।

  • অর্ন্তনীল পথ অন্তসারশূন্য হয়

অঘোষিত মত নির্বাসিতই থেকে যায় যা বাঁচে তা মরার জন্যেই বাঁচে আর যা মরে যায় তা কখনও বাঁচানো যায় না ।

  • তুমি যেমন, তেমন কাউকে পছন্দ কর।

  • সম্পর্কতো অনেকই হয়, কিন্তু এমন

সম্পর্ক খুব কমই হয় যেখানে একটি হৃদয় খবর রাখে আরেকটি হৃদয়ের।


  • শুদ্ধ পথ একাধিক হতে পারে, কিন্তু সব

পথের মিলবন্ধনই গ্রহনযোগ্য পথ তৈরি করে।


  • মৃত্যুকে যে ভয় পায় সে আসলে সত্যকেই

ভয় পায় ।

  • যুক্তি তুলে সৃষ্টিকে ধূলো করা যায়

কিন্ত যুক্তি দিয়ে বিন্দু পরিমাণ বালিও সৃষ্টি করা যায় না।


  • সৃষ্টিকর্তার প্রিয় পাত্র হওয়ার

জন্যে ধর্মগুরু হওয়ার প্রয়োজন নেই, বরং ধার্মিক হওয়া প্রয়োজন।


  • উলম্ব আস্ফালন কেবল প্রলম্বিত

দীর্ঘশ্বাস ফিরিয়ে দেয়।


  • ভালোবাসার চেয়ে বিবেক অনেক

বেশি শক্তিশালী। ভালোবাসা মানুষকে অন্ধ করে আর বিবেক, অন্ধকেও আলোকিত করে।


  • ভালোবাসা মানুষকে মানবিক

করে তোলে আর কামুকতা মানুষকে অমানুষ করে তোলে।


  • যৌনতার উদ্দ্যেশ্য হল ইন্দ্রিয়ের

তৃপ্তি; ভালোবাসা যুক্ত যৌনতা আর ভালোবাসাহীন যৌনতার মধ্যে প্রথমটি বেশি ইন্দ্রিয়ের তৃপ্তি অনুভব করে, কারন ভালোবাসাহীন যৌনতায় শুধু দেহ মিলিত হয় আর ভালোবাসা যুক্ত যৌনতায় দেহের সাথে সাথে আত্মাও মিলিত হয়।


  • ভালোবাসা যুক্ত যৌনতার

সবচেয়ে বড় উদ্দেপক হচ্ছে চোখ।


  • ভালোবাসাহীন যৌনসুখ ক্ষণস্থায়ী ,

দৈহিক মিলনের সাথে সাথেই তার সমাপ্তি হয়, ভালোবাসা যুক্ত যৌনসুখ পরবর্তী মিলনের আগ পর্যন্ত স্থায়ী হয়।


  • একটি প্রকৃত ভালোবাসা সুস্থ

মস্তিষ্ক উপহার দেয়, মস্তিষ্ক সুস্থ রাখতে হলে ভালোবাসার যত্ন নাও।


  • প্রকৃত প্রেমিকের

ভালো না থাকা অপ্রকৃত প্রেমিকের হাজার গুন ভালো থাকার সমান।


  • প্রকৃত ভালোবাসা শর্তহীন।

  • ভালোবাসার কোন জন্ম মৃত্যু নেই,

এঁকে শুধু স্থানান্তরিত করা যায়।


  • পাওয়া না পাওয়ার সাথে প্রকৃত

ভালোবাসার কোন যোগসূত্র নেই, কাউকে না পেয়েও আজীবন তুমি তাকে ভালোবাসে যেতে পারো।


  • ভালোবাসার মান কোন স্থায়ী ধ্রুবক

নয়, এটা প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল।


  • রাতের কান্না কখনও শুকিয়ে যাবে না ,

কারন, রাতে সূর্য্য ওঠে না।


  • রাত কোন প্রহসন নয় বরং প্রকৃতির রুঢ়

বাস্তবতা।


  • শাশ্বত সুখ বলতে ইহজীবনে কিছু নেই,

উহা একমাত্র পরকালেই সম্ভব।


  • ভালোবাসার কষ্টের বিভীষিকা মৃত্যু

যন্ত্রনার কাছাকাছি।


  • আত্মার চেয়ে বড় কোন বন্ধু নেই,

নিঃসঙ্গতার সর্বশেষ সঙ্গী।


  • বিবেক কখনও কাঁদে না, তাই বিবেকের

যন্ত্রনাও কোনদিন প্রশমিত হয় না।


‌‌‌‌‍‍

    • যেকোন বিপদ

কে হাসি মুখে গ্রহন করি, কিন্তু পরে কি হবে তা জানার চেষ্টা করিনা ।

    • ক্লাস চলাকালীন

দুষ্টুমি করি, কিন্তু ক্লাস এ স্যার না থাকলে ভাল থাকি ।

    • সবার
সাথে হাসিমুখে থাকার

চেষ্টা করি,তাই বলে কারো পা চাটার অভ্যাস আমার নাই ।

    • মাঝে মাঝে চোর

কে পালাতে সাহায্য করি,কারন চোর

পালালে বুদ্ধি বাড়ে


    • অন্য

কে পচাইতে ভালো লাগে। তবে নিজে কারো কাছ থেকে পচানি খেলে খারাপ লাগে ।

    • আম্মু বলে আমি নাকি খুব্ই

অভদ্র, পাশের বাসার আন্টির মতে আমি খুব শান্ত।

    • আমি কিন্তু বোকা।

তবে ভাজা মাছ টা উল্টে খেতে জানি।

    • কেউ আমার উপর রাগ করুক

সেটা পছন্দ করিনা। তবে নিজে রাগ করতে ভালোবাসি ।

    • কোনো কারণ ছাড়ায়
চার পাশের

আপন মানুষদের প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবতে শুরু করি।

    • আমি যা নিয়ে গর্বিত বোধ

করি। সেটায় আমার অবনতির কারন হয়ে দাড়ায়।

    • কৌতুক শুনাতে ভাল লাগে।

খারাপ লাগে তখন, যদি কেউ বলে দোস্ত ওটা আমি আগে শুনেছিলাম

    • আমি মনে করি, দূঃখ

এবং খুশি এ দুটি জিনিস বন্ধুদের সাথেই ভাগ করা উচিত। তাই আমি নিজে অন্যের সাথে সুখ দূ:খের কথা ভাগাভাগি করি এবং অন্ য কে ও উৎসাহিত করি।

    • আমি খুবই

আড্ডাবাজ। আমাকে যে কেউ চ্যাটে নক করলেই উত্তর

করি। 
    • আমি ভদ্রতা দেখাতে পছন্দ করি আর ভদ্র লোক কেও।
আমার সাথে যদি কেউ অভদ্রতা করে তাহলে আমি তাকে কিছুই বলিনা শুধু সহ্য করি।

থাম্ব|সুন্দরী গাছের মাঝে সুন্দরবনে আমি

♣♣আমি সকাল বেলার সূর্য, সন্ধায় নিভে যাই।


আমি বর্ষার প্লাবন, শরতে শুকিয়ে যাই ।।


আমি ভোরের কুয়াশা, দুপুরে নিঃশেষ হয়ে যাই ।।


আমি বসন্তের কোকিল, গ্রীষ্মে পালিয়ে যাই ।।


আমি আঁখি ঝরা জল, টুপ করে ঝরে যাই ।।


আমি না বলা ভালোবাসা, অর্থহীন ভাবে পড়ে রই ।।


আমি হৃদয় গভীরের কষ্ট, হৃদয়েই মরে যাই ।।


আমি দুঃখের পাহাড় দুঃখের নিচেই আমার ঠাই।

এই আমি আর এই হয়তোবা আমার জীবন !!


আশা ছিল ভালবাসা ছিল, আজ আশা নেই ভালবাসা নেই |


এই সেই কৃষ্ঙচুড়া, যার তলে দাড়িয়ে, চোখে চোখ, হাতে হাত, কথা যেত হারিয়ে,
আজ এখানে আমার আশার সমাধি, ব্যাথা জানাবার ভাষা নেই,


আশা নেই ভালবাসা নেই |


আজ তুমি কত দুরে, মুছে গেছো মরণে,
নেই কাছে তবু আছো ব্যাথা ভরা স্বরণে,
ফিরে চলে যায় যে সময় হায় একবার, তার যাওয়া আছে আসা নেই, আজ আশা নেই |


আশা ছিল ভালবাসা ছিল, আজ আশা নেই ভালবাসা নেই


থাম্ব|গ্রাম্য পথের ধারে আমি

জানি না কি দিতে পারব ,এই জীবনে তোমায় । অল্প কিছু দিতে পারি আমি , ভালবাসবে কি আমায় । সাধারন একটা ছেলে আমি , কি বা আমার আছে । ভালবাসাটা হয়তো দিতে পারি আমি , থাকবে কি তুমি কাছে । মন বলে আমার , থাকবো না যখন , আমায় তুমি খুঁজবে । তখন হয়তো কাঁদবে তুমি , ভালবাসাটা কি বুঝবে । রাস্তার ধারে , দিঘির পাড়ে , দাড়াবে না আর কেউ । নদী তার মত বয়ে চলে যাবে , সাগর থামাবে না ঢেউ । রোদের মাঝে হঠাত্ করে , বৃষ্টি হয়তো পড়বে । সেদিনআমি থাকব না আর , আমার খোঁজ করবে । খুঁজে হয়তো পাবে তুমি , রংধনু হয়ে থাকব । আকাশেরমাঝে বৃষ্টি হয়ে , তোমায় দেখে কাঁদব ।

দুঃস্বপ্নের শেষ সীমানায়, চমকে ঘুম ভেঙ্গে যায় জেগে দেখি তুমি পাশে নাই, চোখ পড়ে খোলা জানালায় জোছনায় আলো নেই আর, হতাশার কালো আঁধার নির্বাক রয় ধরণী, দুঃখ যেনো আমারি এক ঝিম ধরা দিবা স্বপনে আনাগোনা সন্দেহে আমি একা মেতে উঠি পুণ্যে বিকশিত, অবহেলায় ধরে মনে, শরীরে কবে আসবে ফিরে ভালোবাসা? কবে আসবে ফিরে ভালোবাসা? জীবনের সব আশায়, হতাশার আলিঙ্গনে ঘুণে ধরা স্বপ্নগুলো, সব যেনো এলোমেলো স্মৃতি নিয়ে আমি একা, ভাসমান এই জীবন তাই বুঝি বেঁচে থাকা, জানিনা শেষ কোথায়!!! থাম্ব|বন্ধুদের সাথে কুয়াকাটাতে

ক্রমিক নং নাম সম্পর্ক
সৈয়দ রাকিব আমি
সৈয়দা শ্রাবনী সুলতানা বোন
সৈয়দা সুমাইয়া আক্তার বোন
সৈয়দা ইভা আক্তার বোন
সৈয়দা ইশিতা আক্তার আফিয়া বোন
  1. www.syedrakib.tk