ব্যবহারকারী:AbsShamim/কংশনগর উচ্চ বিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কংশনগর উচ্চ বিদ্যালয়
Kangshanagar High School
অবস্থান
কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক, কংশনগর, বুরিচং উপজেলা
কুমিল্লা জেলা
3531
বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক২৩°৩৩′১৭″ উত্তর ৯১°০৩′৩৪″ পূর্ব / ২৩.৫৫৪৮° উত্তর ৯১.০৫৯৫° পূর্ব / 23.5548; 91.0595স্থানাঙ্ক: ২৩°৩৩′১৭″ উত্তর ৯১°০৩′৩৪″ পূর্ব / ২৩.৫৫৪৮° উত্তর ৯১.০৫৯৫° পূর্ব / 23.5548; 91.0595
তথ্য
নীতিবাক্যপ্রভু জ্ঞান দাও
(God give us knowledge)
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৯৭ (1997)
বিদ্যালয় বোর্ডমাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, কুমিল্লা
বিদ্যালয় কোড105289
প্রধান শিক্ষকমোহাম্মদ কাইয়ুম খান
কর্মকর্তা15
শিক্ষকমণ্ডলী13
শ্রেণী6-10
বয়সসীমা11-18
তালিকাভুক্তি600+
ভাষার মাধ্যমবাংলা
ক্যাম্পাসের ধরন নগর
রঙগাঢ় নীল রং, নীল
ক্রীড়া ফুটবল, ক্রিকেট, বাস্কেটবল, ভলিবল, ব্যাডমিন্টন
ওয়েবসাইট

কংশনগর উচ্চ বিদ্যালয় বাংলাদেশ, কুমিল্লা জেলা , বরিচান উপজেলা , কংশনগর একটি মিলিত স্কুল । এটি এটি ১৩ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিম কুমিল্লা বরাবর কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে । এটি 1997 সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। স্কুলের শিক্ষা ইনস্টিটিউট আইডেন্টিফিকেশন নম্বর (ইআইআইএন) 105289।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

স্কুল প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল 1997 সালে। 55 সোটক এলাকায় স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হয়। সরকারি অধ্যয়ন সেশন 1997 সালে শুরু হয়।

সু্যোগ - সুবিধা[সম্পাদনা]

কংশনগর উচ্চ বিদ্যালয় গেট

স্কুলের তিনটি একাডেমিক ভবন, একটি প্রশাসনিক ভবন। স্কুল এলাকায় একটি ক্ষেত্র আছে। অন্যান্য সুবিধা কর্মশালা, মিলনায়তন, ক্যান্টিন, এবং গ্রন্থাগার অন্তর্ভুক্ত। 13 টি শিক্ষক ও ২ জন কর্মী আছেন। স্কুল দুটি ল্যাবরেটরিজ আছে।

আজ[সম্পাদনা]

একাডেমিক বিল্ডিং

স্কুল একটি একক স্থানান্তর সঞ্চালিত। ইউনিফর্ম একটি নৌবাহিনী নীল শার্ট, নীল লম্বা ট্রাউজার্স, কালো বেল্ট এবং সাদা জুতা হয়। স্কুল মনোগ্রাম শার্ট পকেটে ছাপা হয়। সাধারণত ছাত্র 6 বর্গ ভর্তি হয়। ভর্তি হলে অন্য ক্লাসে ভর্তি করা যেতে পারে অথবা অন্য কাউকে সরকারী স্কুল থেকে স্থানান্তর করা হয়। ভর্তি পরীক্ষার সাধারণত জানুয়ারীর প্রথম সপ্তাহে নেওয়া হয়।

প্রাতিস্থানিক যোগ্যতা[সম্পাদনা]

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে মাধ্যমিক ও মধ্যবর্তী শিক্ষা বোর্ড দ্বারা জেএসসি এবং এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) হল 8 বছরের স্কুল সমাপ্তি এবং মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) সফলভাবে সম্পন্ন হওয়ার পর বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের দ্বারা গৃহীত একটি পাবলিক পরীক্ষার হয় যা গ্রেড দশ সমাপ্তির জন্য ডিপ্লোমা প্রদান করা হয়, যা হে স্তরের সমতুল্য যুক্তরাজ্য। জেএসসি পরীক্ষায় 900 নম্বরের মোট নয়টি বিষয় রয়েছে, প্রতিটি বিষয়ের 100 টি নম্বর দেওয়া হয়েছে এবং এসএসসি পরীক্ষায় 1100 টি মোট 11 টি বিষয় রয়েছে, যার প্রতিটি বিষয়ের 100 টি প্রদত্ত বিষয় রয়েছে, যার মধ্যে বিজ্ঞান বিষয়গুলির জন্য পরীক্ষামূলক পরীক্ষা রয়েছে। প্রতিটি বিষয় পাস করার জন্য সর্বনিম্ন 33 টি চিহ্ন প্রয়োজন। বিষয়গুলি কোন ছাত্রের পড়াশুনা করার জন্য নির্বাচিত হয়েছে তার উপর নির্ভর করবে। এই প্রধান প্রোগ্রাম বিজ্ঞান হয়; শিল্পকলা এবং মানবতা; এবং ব্যবসায় স্টাডিজ। শিক্ষার্থীদের এসএসসি এর জন্য 9 ম গ্রেডের তালিকাভুক্তির পূর্বে এই তিনটি প্রোগ্রামের একটি বেছে নিতে হবে। উভয় পরীক্ষার ফলাফল একটি জিপিএ আকারে প্রকাশিত হয়। সর্বোচ্চ স্কোর জিপিএ -5। কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড বছরে গ্রামীণফোন -5 স্কোরারদের ক্ষেত্রে এই অঞ্চল জুড়ে স্কুল এবং কলেজের স্থান নেয়। 2004 সালে স্কুলটি " চট্টগ্রাম বিভাগের শ্রেষ্ঠ স্কুল" এবং 2010 সালে "শ্রেষ্ঠ স্কুল" এসএসসি ও জেএসসি উভয় ক্ষেত্রেই ভাল ফলাফলের জন্য বিএসবি ফাউন্ডেশন দ্বারা ভূষিত হয়।

জেএসসি ফলাফল[সম্পাদনা]

2012 থেকে 2014 পর্যন্ত জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট স্তরের পরীক্ষার ফলাফল নিম্নরূপ:

এসএসসি ফলাফল[সম্পাদনা]

মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট স্তরের পরীক্ষার জন্য 2006 থেকে 2014 সালের ফলাফলগুলি নিম্নরূপ:

পাঠক্রম বহির্ভূত কার্যক্রম[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বাহ্যিক লিঙ্ক[সম্পাদনা]