ব্যবহারকারী:এস. এম. জহিরুল ইসলাম সুজন/উল্‌ম গির্জা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
উল্‌ম গির্জা
উল্‌ম ক্যাথেড্রাল
জার্মান: Ulmer Münster
Ulmer Münster-Westfassade.jpg
উল্‌ম গির্জার ছবি
উল্‌ম গির্জা জার্মানি-এ অবস্থিত
উল্‌ম গির্জা
উল্‌ম গির্জা
Location in Germany
৪৮°২৩′৫৫″ উত্তর ৯°৫৯′৩৩″ পূর্ব / ৪৮.৩৯৮৬১° উত্তর ৯.৯৯২৫০° পূর্ব / 48.39861; 9.99250স্থানাঙ্ক: ৪৮°২৩′৫৫″ উত্তর ৯°৫৯′৩৩″ পূর্ব / ৪৮.৩৯৮৬১° উত্তর ৯.৯৯২৫০° পূর্ব / 48.39861; 9.99250
অবস্থানউল্‌ম
দেশজার্মানি
মণ্ডলীলুথেরান
Previous denominationক্যাথলিক চার্চ
ওয়েবসাইটwww.ulmer-muenster.de
ইতিহাস
স্থাপত্য
মর্যাদাগির্জা
প্যারিশ গির্জা
সক্রিয়তাসক্রিয়
স্থাপত্যশৈলীক্যাথেড্রাল
শৈলীগোথিক স্থাপত্য
ভূমিখননের তারিখ১৩৭৭
বৈশিষ্ট্য
গির্জাশিখরের সংখ্যা
ঘণ্টার সংখ্যা১৩
প্রশাসন
বিভাগভার্টমেম্বে ইভাঞ্জেলিক-লুথেরান চার্চ[১]
ভবনের বিস্তারিত
উচ্চতার রেকর্ড
বিশ্বের সর্বোচ্চ কাঠামো ১৮৯০ থেকে ১৯৯৪ পর্যন্ত[I]
পূর্ববর্তীকোলন গির্জা
পরবর্তীফিলাডেলফিয়া সিটি হল
সাধারণ তথ্য
নির্মাণ শুরু হয়েছে১৩৭৭
সম্পূর্ণ৩১ মে ১৮৯০
উচ্চতা১৬১.৫ মি (৫৩০ ফু)
কারিগরী বিবরণ
তলার সংখ্যানেই
তথ্যসূত্র
[২]
উল্‌ম গির্জা (২০০৩)

উল্‌ম গির্জা বেলেন-উল্টেমেগ্গ (জার্মানি) রাজ্য উলম শহরে অবস্থিত একটি লুথারান গির্জা। বার্সেলোনা স্পেনের সাগরদা ফ্যামিলিয়া শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত এটিই বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা স্থাপন ছিলো এবং বিংশ শতাব্দীর পূর্বে নির্মিত ৫ম তম লম্বা কাঠামো যার উচ্চতা ছিলো ১৬১.৫ মিটার (৫৩০ ফুট)।[৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্যারিশের বাইরের শহর উলমের প্রধান ফটকটিতে নির্মান করা হয়েছিল উ্লম গির্জা ১৪ শতাব্দীর সংঘর্ষে শহরটির নাগরিকদের জন্য এটি সমস্যায় হয়েছিল যা শহরটির চার্লস চতুর্থ চতুর্থাংশের অবরোধের দ্বারা উলুমের সাথে জড়িত ছিল। এই প্যারিশ গির্জাটি ৮১৩ সালে শেরলেমেনের রেইসেনাউও মঠের অধীনস্থ ছিল এবং উলমের সংখ্যাগরিষ্ঠরা শহরের দেয়ালের ভিতরে একটি নতুন স্বাধীন গির্জার স্থাপন করতে চেয়েছিলেন। এদিকে শহরের প্রায় ১০,০০০ জন বাসিন্দারা নিজেরাই নির্মাণের জন্য অর্থায়ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো। ১৩৭৭ সালের ১৩ই জুন উ্লমের মেয়র লুডভিগ ক্রাফ্ট নতুন গির্জার প্রথম ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছিলেন। এই চার্চের নকশা তৈরী করেছিলেন হিউচরিচ পালার, যিনি শ্বাভিচ জিমুন্ডের হোলি ক্রস মিনস্টারের স্থপতি। প্রথম পরিকল্পনা ছিল প্রশস্ত হোল্ড গির্জার, প্রশস্ত এবং প্রায় কেন্দ্রীয় নৌপথের মতো উচ্চতর, দক্ষিণে একটি প্রধান স্পিয়ার এবং সিঙ্গার (২৯ মিটার (৯৫ ফুট) দীর্ঘ এবং ১৫ মিটার (৪৯ ফুট) প্রশস্ত।[৪] [৫] [৬] [৭]

চিত্র সমাহার[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Herzlich Willkommen in der Münstergemeinde Ulm" [Welcome to the Münster community of Ulm] (German ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  2. টেমপ্লেট:Emporis
  3. Oggins, Robin O. (২০০০)। "Cathedrals"। Sterling Publishing Company, Inc.। পৃষ্ঠা 82। আইএসবিএন 978-1567993462। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  4. City of Ulm: Ulmer Geschichte(n) - Die Ulmer Sammlung 1230–1808[অকার্যকর সংযোগ]
  5. "Pee problem eroding world's tallest church"BBC News। London। ২৪ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৪ অক্টোবর ২০১৬ 
  6. Connor, Richard (২৩ অক্টোবর ২০১৬)। "Ulm kicks up a fuss over urination threat to world's tallest church"Deutsche Welle News 
  7. Dowd, Katie (২৪ অক্টোবর ২০১৬)। "World's tallest church being eroded by peeing, vomiting vandals"San Francisco Chronicle। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]